ফাতমা সুলতান (প্রথম সেলিমের কন্যা)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ফাতমা সুলতান
জন্মআনু. ১৫০০
ট্রাবজন, উসমানীয় সাম্রাজ্য
মৃত্যুআনু. ১৫৭৩ (বয়স ৭২–৭৩)
কনস্টান্টিনোপল, উসমানীয় সাম্রাজ্য
সমাধিকারা আহমেদ পাশা সমাধিস্তম্ভ
দাম্পত্য সঙ্গীমুস্তাফা পাশা
কারা আহমেদ পাশা
হাদিম ইবরাহীম পাশা
রাজবংশউসমানীয়
পিতাপ্রথম সেলিম
মাতাহাফসা সুলতান
ধর্মইসলাম

ফাতমা সুলতান ( উসমানীয় তুর্কি: فاطمہ سلطان, আনু. ১৫০০-আনু. ১৫৭৩) ছিলেন একজন উসমানীয় শাহজাদী। তিনি প্রথম সেলিমহাফসা সুলতানের কন্যা এবং প্রথম সুলাইমানের বোন।

জীবনবৃত্তান্ত[সম্পাদনা]

তিনি প্রথমে ১৫১৬ সালে আনতালিয়ার গভর্নর মোস্তফা পাশাকে বিয়ে করেছিলেন;  তবে যখন দেখা গেল যে তিনি সমকামী ছিলেন এবং ফাতমা সুলতানের প্রতি তার কোনও আগ্রহ নেই তখন তারা বিবাহবিচ্ছেদ করেছিলেন। [১]

তারপর, ১৫২২ সালে তিনি কারা আহমেদ পাশার সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন, যিনি ১৫৩৩ থেকে ১৫৫৫ সাল পর্যন্ত উসমানীয় সাম্রাজ্যের উজিরে আজম ছিলেন এবং এ দম্পতির দুজন কন্যা ছিল। পাশার মৃত্যুর পরে, হয়তোবা তিনি বুরসায় বসবাস করতে চলে গিয়েছিলেন কিন্তু প্রথম সুলাইমানের মৃত্যুর পরে রাজকীয় প্রাসাদে ফিরে আসেন, অথবা,  অন্যান্য উৎস অনুসারে তাঁর ষড়যন্ত্রের শাস্তি হিসেবে ১৫৫৬ সালে তাকে জোরপূর্বক হাদিম ইবরাহিম পাশার সাথে বিয়ে দেয়া হয়। ফাতমা সুলতান তোপকাপিতে একটি মসজিদ নির্মাণ করেন।[২] ১৫৭৩ সালে তিনি মৃত্যুবরণ করেন এবং কারা আহমেদ পাশার সমাধিতে তাকে সমাধিস্থ করা হয়।

সাহিত্য এবং জনপ্রিয় সংস্কৃতিতে চিত্রায়ন[সম্পাদনা]

টিভি সিরিজ মুহতেশেম ইয়েজিয়েল-এ ফাতেমা সুলতান চরিত্রে অভিনয় করেছেন তুর্কি অভিনেত্রী মেলতেম সুম্বুল।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]