পিরপাঞ্জাল রেল সুড়ঙ্গ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পিরপাঞ্জাল রেল সুড়ঙ্গ
Pir panjal tunnel.jpg
পিরপাঞ্জাল রেল সুড়ঙ্গের সম্মুখ ভাগ
সংক্ষিপ্ত বিবরণ
রেলপথজম্মু তাই-উধমপুর-শ্রীনগর-বারামুলা রেলপথ
স্থানজম্মু এবং কাশ্মীর
স্থানাঙ্ক৩৩°৩৪′ উত্তর ৭৫°১১′ পূর্ব / ৩৩.৫৬° উত্তর ৭৫.১৯° পূর্ব / 33.56; 75.19
অবস্থাসক্রিয়
শুরুবানিহাল
শেষহিল্লা শাহাবাদ
ক্রিয়াকলাপ
স্বত্বাধিকারীভারতীয় রেল
চালনাকারীভারতীয় রেল
যানবাহনরেল
কারিগরী
রেলপথের দৈর্ঘ্য১১.২১৫ কিলোমিটার[১]
ট্র্যাক গেজ৫.৬ ফুট
কার্যকর গতি৭৫ কিলোমিটার/ঘণ্টা

পিরপাঞ্জাল রেল সুড়ঙ্গ হল ভারত এর জম্মু এবং কাশ্মীর রাজ্যে অবস্থিত জম্মু -উধমপুর-শ্রীনগর-বারামুলা রেলপথের অংশ।এটি পিরপাঞ্জাল পর্বতশ্রেণকে ভেদ করে চলেগেছে।এর দৈর্ঘ্য ১১.২১৫ কিলোমিটার।এই রেল সুড়ঙ্গ বিচলেরি উপত্যকা ও কাশ্মীর উপত্যকার মধ্যে সংযোগ ঘটিয়েছে এবং কাশ্মীর উপত্যকার মানুষের জীবন যাত্রায় গতি আনবে এই রেল সুড়ঙ্গ।

সুড়ঙ্গের বিবরণ[সম্পাদনা]

এই সুড়ঙ্গটির দৈর্ঘ্য ১১.২১৫ কিলোমিটার এবং এটি সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকে ২,১৯৪ মিটার (৭,১৯৮ ফুট)।সুড়ঙ্গটি ৮.৪০ মিটার চওড়া ও ৭.৩৯ মিটার উচু সুড়ঙ্গের মেঝে থেকে।এটি জহর সুড়ঙ্গের ৫০০ মিটার নীচ দিয়ে পিরপাঞ্জাল পর্বতকে অতিক্রম করেছে। [২] সুড়ঙ্গে একটি রেলপথ রয়েছে এবং এর পাশে সুড়ঙ্গের মধ্যে ৩ মিটার চওড়া সড়ক পথ রয়েছে যা আপতকালিন সময়ে খুবই দরকারি।এছাড়া সুড়ঙ্গে ৬০ মিটার অন্তর অন্তর সিসিটিভি,স্মোক ডিটেক্টর ও অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থা রয়েছে।পিরপাঞ্জাল রেল সুড়ঙ্গটি এশিয়ার দ্বিতীয় দীর্ঘতম রেল সুড়ঙ্গ ছিল নির্মাণ কালে বর্তমানে এটি এশিয়ার চতুর্থ দীর্ঘ রেল সুড়ঙ্গ।[৩][৪]

প্রকল্পের অগ্রগতি[সম্পাদনা]

কাশ্মীর উপত্যকায় কাজিগুন্দের সঙ্গে বানিহালের বিচল্লি উপত্যকায় সংযোগকারী জম্মু-বারামুল্লা রেলপথের ১১.২১৫ কিলোমিটার (৭ মাইল)[১] দীর্ঘ বানিহাল-কাজিগুন্দ সুড়ঙ্গটি উধামপুর-শ্রীনগর-বারামুলা রেল সংযোগ প্রকল্পের অংশ হিসাবে নির্মিত হয়েছে। চার বছরের মধ্যে সুড়ঙ্গ খনন সম্পন্ন করা হয়েছিল অক্টোবর ২০১১ সালে, রেলপথের সঙ্কেত ব্যবস্থা ও রেলপথ স্থাপন পরবর্তী এক বছরে সম্পন্ন হয়েছিল এবং ২৮ ডিসেম্বর ২০১২ সালে পরীক্ষামূলক রেল চলাচল শুরু হয়েছিল। এই সুড়ঙ্গটি ২৬ জুন ০১৩ সালে চালু করা হয়েছিল এবং বাণিজ্যিক ভাবে ২৭ জুন ২০১৩ সাল থেকে শুরু হয়েছিল।[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ভূস্বর্গে মেলবন্ধনের রেলে মনমোহন-সনিয়া"। archives.anandabazar.com। ২৭ জুন ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২১ অক্টোবর ২০১৮ 
  2. "J & K Project Brief"usbrl.org। ৪ মার্চ ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  3. "India's longest railway tunnel unveiled in Jammu & Kashmir"The Times of India। ১৪ অক্টোবর ২০১১। ২৯ জুন ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ অক্টোবর ২০১১ 
  4. "Railways' Himalayan Blunder"Tehelka Magazine, Vol 8, Issue 32। ১৩ আগস্ট ২০১১। [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]