পাত্রা

স্থানাঙ্ক: ৩৮°১৫′ উত্তর ২১°৪৪′ পূর্ব / ৩৮.২৫০° উত্তর ২১.৭৩৩° পূর্ব / 38.250; 21.733
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পাত্রা
Πάτρα
শহর
Panoramic view of Ethnikis Antistaseos Square areaRio-Antirio BridgeLighthouse of PatrasNight view of PatrasGeorgiou I SquareApollon TheatreCastle of PatrasPatras montage. Clicking on an image in the picture causes the browser to load the appropriate article, if it exists.
এই চিত্র সম্পর্কে
পাত্রার অফিসিয়াল সীলমোহর
সীলমোহর
পাত্রা গ্রিস-এ অবস্থিত
পাত্রা
পাত্রা
পাত্রা বলকান-এ অবস্থিত
পাত্রা
পাত্রা
পাত্রা ইউরোপ-এ অবস্থিত
পাত্রা
পাত্রা
গ্রিস বলকান, ও ইউরোপের মধ্যে অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ৩৮°১৫′ উত্তর ২১°৪৪′ পূর্ব / ৩৮.২৫০° উত্তর ২১.৭৩৩° পূর্ব / 38.250; 21.733
রাষ্ট্র গ্রিস
ভৌগলিক অঞ্চলপেলোপনিস
প্রশাসনিক অঞ্চলপশ্চিম গ্রিস
আঞ্চলিক এককআচিয়া
জেলাসমূহ
সরকার
 • ধরনমেয়র–পরিষদ সরকার
 • মেয়রকোস্তাস পেলেটিডিস (কেকেই)
আয়তন
 • পৌরসভা৩৩৪.৯ বর্গকিমি (১২৯.৩ বর্গমাইল)
 • পৌর এলাকা১২৫.৪ বর্গকিমি (৪৮.৪ বর্গমাইল)
 • মহানগর২,৯২৮.৭১৭ বর্গকিমি (১,১৩০.৭৮৪ বর্গমাইল)
সর্বোচ্চ উচ্চতা১০ মিটার (৩০ ফুট)
সর্বনিন্ম উচ্চতা০ মিটার (০ ফুট)
জনসংখ্যা (২০১১)
 • পৌরসভা২,১৩,৯৮৪
 • পৌর এলাকা১,৬৭,৪৪৬
 • পৌর এলাকার জনঘনত্ব১,৩০০/বর্গকিমি (৩,৫০০/বর্গমাইল)
 • মহানগর৩,১৪,৫৬৭[১]
বিশেষণপাত্রীনোস [el] (গ্রিক: Πατρινός)
সময় অঞ্চলইইটি (ইউটিসি+২)
 • গ্রীষ্মকালীন (দিসস)ইইএসটি (ইউটিসি+৩)
পোস্টাল কোড২৬x xx
টেলিফোন২৬১
যানবাহন নিবন্ধনএএক্সx, এজেডx, এওx,এওয়াইx
রক্ষাকর্তা সাধুসেন্ট আন্দ্রিয় (৩০শে নভেম্বর)
ওয়েবসাইটwww.e-patras.gr

পাত্রা হল গ্রিসের তৃতীয় বৃহত্তম শহর এবং অ্যাথেন্স থেকে ২১৫ কিমি (১৩৪ মাইল) পশ্চিমে উত্তর পেলোপনিসে অবস্থিত পশ্চিম গ্রিসের আঞ্চলিক রাজধানী। শহরটি পাত্রা উপসাগরকে সম্মুখে পানাখাইকো পর্বতের পাদদেশে নির্মিত হয়েছে।

২০১১ সালের আদমশুমারি অনুসারে, পাত্রা শহরের জনসংখ্যা হল ১,৬৭,৪৪৬ জন এবং পৌর এককে ১,৭০,৮৯৬ জন বাসিন্দা রয়েছে; পৌরসভায় মোট ২,১৩,৯৮৪ জন বাসিন্দা রয়েছে। কার্যকরী শহুরে এলাকার জনসংখ্যা ২০১১ সালে ২,১৭,৫৫৫ জন ছিল।[২] মূল বসতিটির চার সহস্রাব্দের ইতিহাস রয়েছে। এটি রোমান যুগে পূর্ব ভূমধ্যসাগরের একটি বিশ্বজনীন কেন্দ্রে পরিণত হয়েছিল, যখন খ্রিস্টান ঐতিহ্য অনুসারে, এটি প্রেরিত আন্দ্রিয়ের শহীদরূপে প্রাণ ত্যাগের স্থানও ছিল।

গ্রিসের 'গেট টু দ্য ওয়েস্ট' হিসাবে খেতাব প্রাপ্ত, পাত্রা হল একটি বাণিজ্যিক কেন্দ্র, যখন এর ব্যস্ত বন্দরটি ইতালি ও বাকি পশ্চিম ইউরোপের সাথে বাণিজ্য ও যোগাযোগের জন্য একটি প্রধান সংযোগ বিন্দু। শহরটিতে তিনটি সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে, যেখানে একটি বৃহৎ শিক্ষার্থী জনসংখ্যা রয়েছে এবং পাত্রাকে প্রযুক্তিগত শিক্ষার ক্ষেত্রে শ্রেষ্ঠত্বের একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈজ্ঞানিক কেন্দ্র হিসেবে উপস্থাপন করে। রিও-অ্যান্তিরিও সেতুটি পাত্রার পূর্বতম শহরতলি রিওকে অ্যান্টিরিও নগরের সঙ্গে সংযুক্ত করে, পেলোপনিস উপদ্বীপকে গ্রিসের মূল ভূখণ্ডের সাথে সংযুক্ত করে।

প্রতি বছর, ফেব্রুয়ারি মাসে, শহরটি ইউরোপের অন্যতম বৃহত্তম কার্নিভালের আয়োজন করে। পাত্রা কার্নিভালের উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্যগুলির মধ্যে এর বিশাল ব্যঙ্গাত্মক ফ্লোট ও বল এবং প্যারেড রয়েছে, যা ভূমধ্যসাগরীয় জলবায়ুতে কয়েক হাজার দর্শক উপভোগ করেন। পাত্রা প্রধানত পারফর্মিং আর্ট ও আধুনিক শহুরে সাহিত্যে সক্রিয় একটি দেশীয় সাংস্কৃতিক দৃশ্যকে সমর্থন করার জন্যও বিখ্যাত। এটি ২০০৬ সালে ইউরোপীয় সংস্কৃতির রাজধানী ছিল।[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Eurostat – Data Explorer"appsso.eurostat.ec.europa.eu 
  2. Population on 1 January by age groups and sex - functional urban areas, Eurostat, accessed 7 July 2020.
  3. Mansfield, Paul (২৯ জানুয়ারি ২০০৬)। "Party town gets a culture kick"The Guardian। সংগ্রহের তারিখ ৮ ডিসেম্বর ২০২১