নোবেল পুরস্কার ২০১৮

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search

নোবেল পুরস্কার প্রতিবছর অক্টোবর মাসের প্রথম সপ্তাহ হতে ঘোষণা করার ঐতিহ্যকে মেনে ২০১৮ সালে বিভিন্ন বিষয়ের জন্য নোবেল বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয় যথাক্রমে ১ অক্টোবর তারিখে চিকিৎসাবিজ্ঞানে, ২ অক্টোবর তারিখে পদার্থবিজ্ঞানে, ৩ অক্টোবর তারিখে রসায়নে, ৫ অক্টোবর তারিখে শান্তিতে। এছাড়াও ৮ অক্টোবর তারিখে অর্থনীতিতে পুরস্কার প্রাপকের নাম ঘোষণা করা হবে; তবে সুইডিশ একাডেমির সদস্যদের যৌন কেলেঙ্কারি ও আর্থিক অনিয়মের অভিযোগ পাওয়ার কারণে এবছর সাহিত্যে কাউকে পুরস্কার দেয়া হয়নি।[১] এখন পর্যন্ত মোট ১০ জন ব্যক্তি এবছরের নোবেল পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন; যাদের মধ্য রয়েছে জাপানী (১ জন), ফরাসী (১ জন), কানাডীয় (১ জন), মার্কিন (৪ জন), ইংরেজ (১ জন), কঙ্গোর (১ জন), ইরাকী (১ জন)।

চিকিৎসাবিজ্ঞান[সম্পাদনা]

২০১৮ সালের জন্য চিকিৎসাবিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার ঘোষিত হয় ১ অক্টোবর তারিখে। ক্যান্সার চিকিৎসায় কীভাবে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে কাজে লাগানো যায় তার পদ্ধতি আবিস্কার করে চিকিৎসাবিজ্ঞানে ২০১৮ সালের নোবেল পুরস্কার জিতে নেন দুই বিজ্ঞানী; তারা হলেন যুক্তরাষ্ট্রের জেমস পি. এলিসন এবং জাপানের তাসুকু হনজো[১] ক্যান্সারের কোষগুলিকে মানুষের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দ্বারাই আক্রমণ করে প্রতিহত করার পদ্ধতি আবিস্কার করা এই দুই বিজ্ঞানী পুরস্কারের ৯০ লাখ সুইডিশ ক্রোনার ভাগাভাগি করে নেবেন।

পদার্থবিজ্ঞান[সম্পাদনা]

লেজার গবেষণায় অবদানের জন্য তিনজন বিজ্ঞানীকে ২০১৮ সালে পদার্থ বিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার প্রদাণ করা হয়। রয়্যাল সুইডিশ অ্যাকাডেমি অব সায়েন্সেস ২০১৮ সালের ২ অক্টোবর এই পুরস্কারের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের আর্থার অ্যাশকিন, ফরাসী জেরার মুরু এবং কানাডার ডোনা স্ট্রিকল্যান্ডের নাম ঘোষণা করে।[২] চোখের চিকিৎসার ক্ষেত্রে ছোট ছোট কণা, পরমাণু, ভাইরাস ও অন্যান্য জীবন্ত কোষ ধরার অপটিক্যাল টুইজারস আবিষ্কারের জন্য আশকিন পাবেন পুরস্কারের অর্ধাংশ। অন্যদিকে, লেজার রশ্মিকে প্রসারিত ও বিবর্ধিত করে পুনরায় সংকুচিত করার মাধ্যমে সবচেয়ে তীব্রতা সম্পন্ন ও শক্তিশালী লেজার পালস সৃষ্টি করায় মৌর এবং ডোনা মোট পুরস্কারের অবশিষ্ট অর্ধেক অর্থ ভাগাভাগি করে নেবেন।

রসায়ন[সম্পাদনা]

৩ অক্টোবর রসায়নে নোবেল অর্জন করেন

  1. এইচ আর্নল্ড
  2. জর্জ পি. স্মিথ
  3. স্যার গ্রেগরি পি.উইন্টার

শান্তি[সম্পাদনা]

৫ অক্টোবর তারিখে শান্তিতে যৌন সহিংসতা, যুদ্ধ এবং সশস্ত্র সংঘাত বন্ধের প্রচেষ্টা করার জন্য দুইজনকে নোবেল দেওয়া হয়। তারা হলেন

  1. জেনিস মুখেজ
  2. নাদিয়া মুরাদ

সাহিত্য[সম্পাদনা]

সুইডিশ একাডেমির সদস্যদের যৌন কেলেঙ্কারি ও আর্থিক অনিয়মের অভিযোগ পাওয়ার কারণে এবছর সাহিত্যে কাউকে পুরস্কার দেয়া হয়নি।


তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "চিকিৎসায় নোবেল পেলেন দুই ক্যানসার গবেষক"দি ডেইলি স্টার। ১ অক্টোবর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ৫ অক্টোবর ২০১৫ 
  2. "লেজার গবেষণায় ৩ বিজ্ঞানীর নোবেল জয়"দি ডেইলি স্টার। ২ অক্টোবর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ৫ অক্টোবর ২০১৫