দেশি ডিমখোর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

দেশি ডিমখোর
Indian egg eater snake Elachistodon westermanni by Krishna Khan Amravati.jpg
অমরাবতীতে দেশি ডিমখোর সাপ।
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
গণ: Elachistodon
প্রজাতি: westermanni
Elachistodon westermanni distribution.png
প্রতিশব্দ[২]
  • Elachistodon westermanni
    Reinhardt, 1863
  • Boiga westermanni
    Mohan et al., 2018
  • Elachistodon westermanni
    Patel & Vyas, 2019

দেশি ডিমখোর সাপ বা ভারতীয় ডিম-খাদক সাপ (Elachistodon westermanni) কলুব্রিডি পরিবারের ডিম-খাদক সাপের একটি বিরল প্রজাতি। প্রজাতিটি ভারতীয় উপমহাদেশের স্থানীয়। একে ওয়েস্টারম্যান সাপও বলা হয়, যা এর বৈজ্ঞানিক নামকে প্রতিবিম্বিত করে।[১] সাপটি একজাতীয় Elachistodon গণের অন্তর্গত।[২]

ব্যুৎপত্তি[সম্পাদনা]

এটির বৈজ্ঞানিক নামের দ্বিতীয় পদটি ডাচ প্রাণিবিদ্যাবিদ জেরাল্ডাস ফ্রেডেরিক ওয়েস্টারম্যান (১৮০৭-১৮৯০) এর সম্মানে westermanni রাখা হয়েছে।[৩]

ভৌগোলিক বিস্তৃতি[সম্পাদনা]

দেশি ডিমখোর সাপ

দেশি ডিমখোর সাপটি বাংলাদেশ, ভারত এবং নেপালে পাওয়া যায়। প্রজাতিটির সাম্প্রতিক আবিষ্কারগুলি মহারাষ্ট্র, গুজরাত, পাঞ্জাব, মধ্য প্রদেশ, তেলেঙ্গানা এবং কর্ণাটক থেকে প্রাপ্ত।[৪][৫][৬][৭][৮]

আবাসস্থল[সম্পাদনা]

দেশি ডিমখোর সাপ পছন্দের প্রাকৃতিক বাসস্থান হল সমুদ্রপৃষ্ঠ হতে ৪০–১,০০০ মি (১৩০–৩,২৮০ ফু) উচ্চতায় অবস্থিত বন এবং ঝোপঝাড়।[১]

বিবরণ[সম্পাদনা]

দেশি ডিমখোর সাপ চকচকে বাদামি থেকে কালো হয়ে থাকে, পিছনের দিকে নীলাভ সাদা ফুটফুট চিহ্ন এবং ঘাড় থেকে লেজের ডগা পর্যন্ত মধ্য পৃষ্ঠীয় ক্রিম রঙের ডোরাগুলো থাকে। এদের বাদামি রঙয়ের মাথায় একটি কালো তীর চিহ্ন থাকে। সাদা অঙ্কীয় পৃষ্ঠের সাথে বাদামী বিন্দু থাকে। ১১ সেমি (৪¼ ইঞ্চি) দীর্ঘ লেজসহ প্রাপ্তবয়স্কদের মোট দৈর্ঘ্য ৭৮ সেমি (৩১ ইঞ্চি) হতে পারে।[৯]

আচরণ[সম্পাদনা]

দেশি ডিমখোর সাপ হ'ল একটি ঐকাহিক[১] বা নিশাচর, স্থলজ প্রজাতি; যা গাছপালা আরোহণে উল্লেখযোগ্য দক্ষতা দেখিয়ে থাকে। প্ররোচিত করা হলে, এটি একটি রক্ষণাত্মক কৌশল হিসাবে 'এস' আকৃতির কুণ্ডলী গঠন করার মাধ্যমে দেহের সামনের দিকের অংশকে উত্থাপন করে।[৮]

খাদ্য[সম্পাদনা]

দেশি ডিমখোর সাপ কেবলমাত্র পাখির ডিম খায়, যেগুলোর ভ্রূণের বৃদ্ধির অভাব থাকে। এর বিশেষ অভিযোজন রয়েছে; যেমন: কশেরুকাণ্ডের হাইপোপোফেসিস, গ্রীবাসংবন্ধীয় মেরুদণ্ডের অভিক্ষেপণ, খাদ্যনালীতে যে জট থাকে তা এনামেল-বেষ্টিত থাকে এবং ডিম ফাটাতে সহায়তা করে।[৯] এই ডিম খাওয়ার অভিযোজনগুলি কেবলমাত্র আফ্রিকার ড্যাসিপেল্টিস গণের অন্যান্য সাপের মধ্যে রয়েছে।[১০]

প্রজনন[সম্পাদনা]

দেশি ডিমখোর সাপ অণ্ডপ্রসূ।[২]

সংরক্ষণ[সম্পাদনা]

বাংলাদেশের বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইন, ২০১২ এর আওতায় সাপের এই প্রজাতিটি সংরক্ষিত।[১১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Srinivasulu C, Srinivasulu B, Vyas R, Thakur S, Mohapatra P, Giri V (২০১৩)। "Elachistodon westermanni "বিপদগ্রস্ত প্রজাতির আইইউসিএন লাল তালিকা (ইংরেজি ভাষায়)। আইইউসিএন2013: e.T7091A3136878। ডিওআই:10.2305/IUCN.UK.2013-1.RLTS.T7091A3136878.enঅবাধে প্রবেশযোগ্য 
  2. Boiga westermanni at the TIGR Reptile Database. সংগ্রহের তারিখ 13 April 2017
  3. Beolens, Bo; Watkins, Michael; Grayson, Michael (2011).
  4. Mahesh Bilaskar, Santhanankrishnan Babu, Honnavali N. Kumara & Harif Parengal (2018).
  5. Captain A, Tillack F, Gumprecht A, Dandge P (২০০৫)। "First record of Elachistodon westermanni Reinhardt 1863 (Serpentes, Colubridae, Colubrinae) from Maharashtra State, India": 156–158। 
  6. Nande R, Deshmukh S (২০০৭)। "Snakes of Amravati district including Melghat, Maharashtra, with important records of the Indian egg-eater, montane trinket snake and Indian Smooth Snake" (PDF): 2920–2924। ডিওআই:10.11609/jott.zpj.1653.2920-4। ৩ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুন ২০২১ 
  7. Sharma V (২০১৪)। "On the distribution of Elachistodon westermanni Reinhardt, 1863 (Serpentes, Colubridae)": 161–165। 
  8. Visvanathan A (২০১৫)। "Natural history notes on Elachistodon westermanni Reinhardt, 1863": 132–136। 
  9. Boulenger GA (1896).
  10. Gans, Carl; Oshima, Masamitsu (১৯৫২)। "Adaptations for egg eating in the snake Elaphe climacophora (Boie)": 1–16। 
  11. বাংলাদেশ গেজেট, অতিরিক্ত সংখ্যা, ১০ জুলাই ২০১২ঢাকা: মুদ্রণ ও প্রকাশনা অধিদপ্তর। ২০১২। পৃষ্ঠা ১১৮৪৪৫। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

  • বোলেঞ্জার জিএ (১৮৯০)। ব্রিটিশ ভারতের প্রাণিকুলা, সিলন এবং বার্মা সহ। রেপটিলিয়া এবং বাত্রাচিয়া। লন্ডন: কাউন্সিলে ভারতের সেক্রেটারি অফ স্টেট। (টেলর এবং ফ্রান্সিস, প্রিন্টার) xviii + 541 পিপি। (জেনাস Elachistodon, পৃষ্ঠা:৩৬২–৩৬৩; Elachistodon westermanni, পৃষ্ঠা:৩৬৩)।
  • গুন্থার এসিএলজি (1864)। ব্রিটিশ ভারতের সরীসৃপ । লন্ডন: দ্য রে সোসাইটি। (টেলর এবং ফ্রান্সিস, প্রিন্টার) xxvii + 452 পিপি। + প্লেট I-XXVI। ( ইলাচিস্টোডন ওয়েস্টারম্যানি, পরিশিষ্ট [পি। 444])।
  • রেইনহার্ট [জেটি] (1863)। " এন এন স্ল্যাগট আফ স্লানজেনফামিলিয়েন রচিওডনটিডি "। ওভারসিট ওট ডি কেজেলিগে ডানসকে ভিডেনস্ক্যাবার্নস সেলসকাবস ফোরহ্যান্ডলিংগার 1863 : 198-2210। ( ইলাচিস্টোডন, নতুন জেনাস, পি। 206; ই ওয়েস্টারম্যানি, নতুন প্রজাতি, পিপি। 206–210 + চিত্রগুলি 1–7)। (ডেনিশ এবং লাতিন ভাষায়)।
  • শর্মা আরসি (2003)। হ্যান্ডবুক: ভারতীয় সাপ কলকাতা: ভারতের প্রাণিবিজ্ঞান জরিপ। 292 পিপি।আইএসবিএন ৯৭৮-৮১৮১৭১১৬৯৪আইএসবিএন 978-8181711694
  • স্মিথ এমএ (1943)। ব্রিটিশ ভারতের প্রাণিকোত্তর, সিলোন এবং বার্মা, পুরো ভারত-চীন উপ-অঞ্চল সহ। রেপটিলিয়া এবং আম্ফিবিয়া। ভলিউম III। Erসার্পেটস। লন্ডন: ভারতের সেক্রেটারি অফ স্টেট। (টেলর এবং ফ্রান্সিস, প্রিন্টার) xii + 583 পিপি। (জেনাস এলাকিস্টডন, পি। 404; ই ওয়েস্টারম্যানি, পিপি। 404–405, চিত্র 132)।
  • ওয়াল এফ (1913)। "জলপাইগুড়ি জেলা থেকে একটি বিরল স্নেক এলচিস্টডন ওয়েস্টারমানি"। বোম্বে ন্যাচারাল হিস্ট্রি সোসাইটির জার্নাল ২২ : 400-401।
  • হুইটেকার আর, ক্যাপ্টেন এ (২০০৮)। ভারতের সাপ: মাঠ গাইড । চেন্নাই: ড্রাকো বুকস। 495 পিপি।আইএসবিএন ৯৭৮-৮১৯০১৮৭৩০৫আইএসবিএন 978-8190187305