দিগংশ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
পর্যবেক্ষকের থেকে নির্দিষ্ট দূরত্বে অবস্থিত কোনও বস্তুর (ছবিতে একটি নক্ষত্র) সাথে পর্যবেক্ষকের সংযোজক সরলরেখাকে সুবিন্দুর উল্লম্ব তলে (ছবিতে সবুজ) অভিক্ষেপ করলে অভিক্ষিপ্ত সরলরেখাটি ঐ একই তলে কোনও প্রামাণ্য অভিমুখের (এক্ষেত্রে উত্তর) সাথে যে কোণ উৎপন্ন করে, সেই কোণকে দিগংশ বলে।

দিগংশ হল গোলীয় স্থানাঙ্ক পদ্ধতিতে ব্যবহৃত এক রকম কৌণিক পরিমাপ। পর্যবেক্ষকের অবস্থানবিন্দু (মূলবিন্দু) থেকে অপর একটি বিন্দু পর্যন্ত বিস্তৃত ভেক্টর রেখাংশকে একটি প্রামাণ্য সমতলে অভিক্ষেপ করা হয়। অভিক্ষিপ্ত ভেক্টর ও প্রামাণ্য সমতলের প্রামাণ্য ভেক্টরের মধ্যে উৎপন্ন কোণকে বলে দিগংশ।

উদাহরণ হিসেবে আকাশে অবস্থিত কোনও তারার কথা ধরা যেতে পারে। তারাটি হল পূর্বোল্লিখিত অপর বিন্দু, প্রামাণ্য সমতল হল দিগন্ত নির্ধারিত সমতল বা সমুদ্রপৃষ্ঠ, এবং প্রামাণ্য ভেক্টরের অভিমুখ হল উত্তর দিক। এই অবস্থায় দিগংশ হবে উত্তরাভিমুখী ভেক্টর ও তারাটির দিগন্তে অভিক্ষিপ্ত অবস্থানের অন্তর্বর্তী কোণ।[১]

দিগংশের পরিমাপ করা হয় ডিগ্রী (°) এককে। ধারণাটি দিক নির্ণয়, প্রকৌশল, গোলন্দাজি, জ্যোতির্মিতিমানচিত্রাঙ্কনে ব্যবহৃত হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. (ইংরেজি)"Azimuth"Dictionary.com