টুরা নদী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
টুরা
Rika Tura.jpg
ভেরখোতুরিয়ে শহরের নিকটে টুরা নদীর দৃশ্য
Tura watershed 2 layers en.svg
টুরা নদীতন্ত্র
স্থানীয় নামТура́
অন্য নামডোলগায় (রুশ: Долгая)
দেশরাশিয়া
শহরভেরখানায়ায় টুরা, নিজনায়ায় টুরা, ভেরখোতুরিয়ে, টুরিনস্ক, টিউমেন
অববাহিকার বৈশিষ্ট্য
মোহনাটবল
টিউমেন অব্লাস্টের টবলস্ক শহরের দক্ষিণ-পশ্চিমে
৫৭°১২′২০″ উত্তর ৬৬°৫৭′১০″ পূর্ব / ৫৭.২০৫৫° উত্তর ৬৬.৯৫২৯° পূর্ব / 57.2055; 66.9529স্থানাঙ্ক: ৫৭°১২′২০″ উত্তর ৬৬°৫৭′১০″ পূর্ব / ৫৭.২০৫৫° উত্তর ৬৬.৯৫২৯° পূর্ব / 57.2055; 66.9529
ক্রমবৃদ্ধিটেমপ্লেট:RTobol
অববাহিকার আকার৮০,৪০০ কিমি (৩১,০০০ মা)
শাখা-নদী
প্রাকৃতিক বৈশিষ্ট্য
দৈর্ঘ্য১,০৩০ কিমি (৬৪০ মা)

টুরা (রুশ: Тура́), যা ডোলগায় (রুশ: Долгая, দীর্ঘ নদী) নামেও পরিচিত, হলো ঐতিহাসিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ সাইবেরীয় অঞ্চলের একটি নদী, যা বৃহত্তর ওব নদী অববাহিকার অংশ হিসেবে কেন্দ্রীয় ইউরাল পর্বতমালা থেকে উৎপন্ন হয়ে পূর্বে প্রবাহিত হয় এবং শেষ পর্যন্ত টবল নদীতে পতিত হয়। টুরা নদীর তীরে অবস্থিত অন্যতম প্রধান শহর হলো টিউমেন

বর্ণনা[সম্পাদনা]

খ্রিষ্টীয় ১৬০০ থেকে ১৭৫০ সালের দিকে টুরা নদী সাইবেরিয়ায় প্রবেশের অন্যতম প্রধান বাণিজ্য পথ ছিল। এই পথের বাণিজ্য ও মানব পরিবহন ভেরখোতুরিয়ে শহরের কাস্টম হাউসের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রিত হতো। টুরা নদীর উচ্চ অববাহিকায় উল্লেখযোগ্য সংখ্যায় খনিকেন্দ্রিক শহর গড়ে উঠে।

ভূগোল[সম্পাদনা]

টুরা নদী রাশিয়ার সভেদলভস্ক ওব্লাস্ট এবং টিউমেন ওব্লাস্টের মধ্যে প্রবাহিত হয়। এর দৈর্ঘ্য ১,০৩০ কিলোমিটার বা ৬৪০ মাইল এবং অববাহিকার আয়তন ৮০,৪০০ বর্গকিলোমিটার বা ৩১,০০০ বর্গ মাইল।[১] টুরা নদীর মুখে ৭৫৩ কিলোমিটার বা ৪৬৮ মাইল অংশ কেবল জাহাজ চলাচলের উপযোগী। শীত মৌসুমে প্রতি বছর অক্টোবর থেকে নভেম্বর মাসের মধ্যে টুরা নদীর পানি বরফে জমে যায় এবং এপ্রিল থেকে মে মাসের প্রথমার্ধ পর্যন্ত এই নদীতে বরফ উপস্থিতি থাকে।

টুরা নদীর অববাহিকার পশ্চিমে ইউরাল পর্বতমালা ও পার্ম শহর, উত্তরে তাভদা নদী অববাহিকা, পূর্বে টবল অববাহিকা ও টবলস্ক শহর এবং দক্ষিণে ইসেট নদী অববাহিকা ও ইকাতেরিনবার্গ শহর অবস্থিত।

টুরা ভেরখনায়ায় টুরানিজনায়ায় টুরা শহরের মধ্য দিয়ে উত্তর দিকে প্রবাহিত হয়। এরপর খনি কেন্দ্রিক শহর কাচকানারের নিকট পূর্বমুখী প্রবাহ লাভ করে এবং পূর্ব দিকে ভেরখোতুরিয়ে শহরের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হয়। এরপর পূর্ব-দক্ষিণ পূর্ব দিকে বাঁক নেওয়ার পর পশ্চিম দিক থেকে টাগিল নদী এসে পতিত হয় এবং মিলিতভাবে টুরিনস্ক শহর অতিক্রম করে। পূর্ব দিকে প্রবাহিত নিৎসা নদীর প্রবাহ এসে টুরায় মিলিত হওয়ার পর একত্রে টিউমেন শহর অতিক্রম করে এবং সোজা পূর্বদিকে বাঁক নেয়। এরপর পূর্বদিকে প্রবাহমান পিশমা নদী এসে দক্ষিণ দিক থেকে মিলিত হয় এবং শেষ পর্যন্ত টুরা নদী টবলস্কের দক্ষিণ-পশ্চিমে টবল নদীর সাথে মিলিত হয়। টুরা ও টবলের মিলিত ধারা ইরতিশওব নদী হয়ে উত্তরে আর্কটিক মহাসাগরের কারা সাগরে পতিত হয়।

টুরা অববাহিকা অনেকটা পাখার আকৃতির, যার উত্তরে টুরা এবং দক্ষিণে পিশমা নদী প্রবাহমান।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Река Тура (Долгая), রাষ্ট্রীয় পানি রেজিস্টার, রাশিয়া (রুশ ভাষায়)