টাসকিজি, অ্যালাবামা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

টাসকিজি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যালাবামা অঙ্গরাজ্যের মেকন কাউন্টির একটি শহর। ক্রিক যুদ্ধে অ্যান্ড্রু জ্যাকসনের নেতৃত্বে অংশগ্রহণকারী থমাস সিম্পসন উডওয়ার্ড ১৮৩৩ সালে টাসকিজি শহর প্রতিষ্ঠা করেন। ১৮৪৩ সালে শহরটিকে স্থানীয় শাসনের আওতাভুক্ত করা হয়।[১] এটি মেকন কাউন্টির একটি শহর। ২০০০ সালে এর জনসংখ্যা ছিল ১১,৮৪৬। ২০১০ সালে টাসকিজির জনসংখ্যা কমে দাঁড়ায় ৯,৮৬৫।

টাসকিজি আফ্রিকান-আমেরিকান ইতিহাসের এক অনন্য অংশ। আমেরিকান গৃহযুদ্ধের পূর্বে এখানে প্রচুর পরিমাণে তুলা উৎপাদিত হত। ১৮৮১ সালে লুইস অ্যাডামস এখানে টাসকিজি নর্মাল স্কুল (বর্তমানে টাসকিজি বিশ্ববিদ্যালয়) প্রতিষ্ঠা করেন। বুকার টি ওয়াশিংটন এর প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ ছিলেন।

প্রথম বিশ্বযুদ্ধে অংশগ্রহণকারী দক্ষিণাঞ্চলের আফ্রো-আমেরিকান সৈন্যদের কল্যাণার্থে ১৯২৩ সালে টাসকিজি ভেটেরানস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন মেডিকেল সেন্টার এ শহরে প্রতিষ্ঠা করা হয়। ৪৬৪ একর ক্যাম্পাসে ২৭টি ভবন নির্মিত হয়। [২]

শব্দের উৎপত্তি[সম্পাদনা]

মাস্কোগীয় টাসকেকে থেকে স্পেনীয় টাসকিকি শব্দের উৎপত্তি। আবার স্পেনীয় টাসকিকি থেকে টাসকিজি শব্দের উৎপত্তি, যার অর্থ "যোদ্ধা।"

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৮৩০ এর দশকে মিসিসিপি নদীর পশ্চিমে ক্রিক আদিবাসীদের বিতাড়িত করার পর শ্বেতাঙ্গরা এখানে বসবাস করতে শুরু করে। বসতি স্থাপনকারীরা আফ্রিকান-আমেরিকানদের ক্রয় করে চাষাবাদে নিয়োজিত করে। কৃষ্ণাঙ্গ দাসদের শ্রমে ও ঘামে টাসকিজি শহরের তুলাশিল্প উত্তরোত্তর সমৃদ্ধ হয়ে ওঠে।

১৮৮১ সালে কৃষ্ণাঙ্গ শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দেওয়ার লক্ষ্যে টাসকিজি নর্মাল স্কুল প্রতিষ্ঠিত হলে বুকার টি ওয়াশিংটন এর অধ্যক্ষ হন। শিক্ষকদের এমনভাবে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়, যাতে তারা সদ্যমুক্ত দাস ও তাদের বংশধরদের স্বনির্ভর করতে সাহায্য প্রদান করতে পারেন। শিক্ষার্থীদের ব্যবহারিক শিক্ষা প্রদানই ছিল এর মূল উদ্দেশ্য।[৩] ওয়াশিংটন মনে করতেন শিক্ষাই বর্ণবাদ দূরীকরণের প্রধান হাতিয়ার।[৪]

ওয়াশিংটন টাসকিজি বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য জর্জ ইস্টম্যানসহ অনেক শ্বেতাঙ্গ শিল্পপতির কাছ থেকে বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনার অর্থ জোগাড় করেন। তিনি গোপনে "জাতীয় অ-শ্বেতাঙ্গ বিকাশ সমিতি"-তে অর্থসাহায্য প্রদান করতেন।[৫]

১৯৩২ সালে টাসকিজি বিশ্ববিদ্যালয়ে সিফিলিস রোগীদের উপর গবেষণা শুরু হয়, যা ১৯৭২ সাল পর্যন্ত অব্যাহত থাকে। নানা রকম অনিয়মের জন্য এটি কুখ্যাতি লাভ করে।

জর্জ ওয়াশিংটন কার্ভার টাসকিজি বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন প্রথিতযশা শিক্ষক ছিলেন। তিনি দক্ষিণাঞ্চলের কৃষিতে বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনয়ন করেন।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় টাসকিজি শহরে আফ্রিকান আমেরিকান বিমানচালকদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়।

১৯২৩ সালে টাসকিজি ভেটেরানস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন মেডিকেল সেন্টার প্রতিষ্ঠিত হলে শীর্ষস্থানীয় আফ্রো-আমেরিকান ডাক্তাররা এখানে চিকিৎসা করতে আসেন। এদের মধ্যে রয়েছেন হার্ভার্ড মেডিকেল স্কুলের কৃষ্ণাঙ্গ গ্রাজুয়েট ড.টুস্যান্ট টুর্জে টিলডন। [৬]

১৯৩০ এর দশকে টাসকিজি পুরুষ ক্লাবের কৃষ্ণাঙ্গ সদস্যরা এলাকার কৃষ্ণাঙ্গ ভোটারদের সংখ্যা বৃদ্ধিতে উদ্যোগ গ্রহণ করেন। ১৯৪১ এর দশকে ভোটাধিকার সুরক্ষায় তারা টাসকিজি সিভিক অ্যাসোসিয়েশন প্রতিষ্ঠা করেন।

১৯৫৭ সালে নাগরিক অধিকার আইন কংগ্রেসে পাস হলে কৃষ্ণাঙ্গদের ভোটার নিবন্ধনের গতি বৃদ্ধি পায়। ১৯৫৭ সালে শহরে ৪০০ জন কৃষ্ণাঙ্গ ভোটার নিবন্ধিত হন। তাই ডেমোক্রেটিক পার্টি নিয়ন্ত্রিত অ্যালাবামা বিধানসভা টাসকিজি শহরের সীমানা এমনভাবে পুনঃনির্ধারণ করে, যাতে কৃষ্ণাঙ্গরা ভোটাধিকার হারান। [৭]

৩০০০ আফ্রো-আমেরিকান টাসকিজির একটি চার্চ প্রাঙ্গণে প্রতিবাদ সমাবেশ আয়োজন করেন। কৃষ্ণাঙ্গরা শ্বেতাঙ্গ মালিকানাধীন ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান বয়কট করা শুরুরু করে। এর ফলে ২৬টি ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যায়।

জাতীয় অ-শ্বেতাঙ্গ বিকাশ সমিতি এর বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে মামলা করে। ১৯৬০ সালে গমিলিয়ন বনাম লাইটফুট মামলায় সুপ্রিম কোর্ট একে অসাংবিধানিক ঘোষণা করেন। বেকার বনাম কার (১৯৬৪) মামলায় টেনেসির বর্ণবাদী সীমানা পুনঃনির্ধারণ প্রকল্প এর আলোকেই বাতিল হয়।

জনি ফোর্ড ১৯৭২ সালে টাসকিজির প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ মেয়র নির্বাচিত হন। ২০০০ সালে লুসেনিয়া উইলিয়ামস ডান শহরের প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ মহিলা মেয়র নির্বাচিত হন।

প্রশাসন[সম্পাদনা]

টাসকিজির শাসনপদ্ধতি ব্যবস্থাপক-কাউন্সিল ধরনের। এর সিটি কাউন্সিল চার সদস্যবিশিষ্ট। মেয়র সাধারণত অনানুষ্ঠানিক দায়িত্ব পালন করেন।

ভূগোল[সম্পাদনা]

টাসকিজি শহরের আয়তন ১৫.৭ বর্গমাইল। এর ১৫.৫ বর্গমাইল স্থল ও ০.২ বর্গমাইল জল।

জনমিতি[সম্পাদনা]

২০১০ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী শহরের বাসিন্দা ছিল ৯,৮৬৫ জন ও পরিবারসংখ্যা ছিল ১,৯৫৬। শহরের জনসংখ্যার ঘনত্ব প্রতি বর্গমাইলে ৬৩৬.৫ জন। শহরের বাসিন্দাদের ৯৫.৮% কৃষ্ণাঙ্গ, ১.৯% শ্বেতাঙ্গ, ০.১% আদিবাসী আমেরিকান ও ০.৫% এশীয়। ১.৩% বাসিন্দা হিস্পানিক অথবা লাতিনো।

শহরের পরিবারগুলোর গড় আয় ৪৩,৪৭২ ডলার। পুরুষদের গড় আয় ৪০,৬৫৩ ডলার ও নারীদের গড় আয় ২৬,৬৩১ ডলার। বাসিন্দাদের মাথাপিছু আয় ১৫,৪৭১ ডলার। ২২.২% পরিবার ও ৩১.৬% বাসিন্দা দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাস করে। এদের মধ্যে ৪০% এর বয়স ১৮ এর নিচে ও ১০.২% এর বয়স ৬৫ এর উপরে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Tuskegee"Encyclopedia of Alabama। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  2. CAVHCS। "Tuskegee Celebration - Central Alabama Veterans Health Care System (CAVHCS)"www.centralalabama.va.gov। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  3. "African American Odyssey: The Booker T. Washington Era (Part 1)"lcweb2.loc.gov। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  4. Sobol, Richard B. (২৫ সেপ্টেম্বর ১৯৬২)। "Review of Gomillion versus Lightfoot: The Tuskegee Gerrymander Case"Columbia Law Review62 (4): 748–751। ডিওআই:10.2307/1120089। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ – JSTOR-এর মাধ্যমে। 
  5. Pildes, Richard H. (১৩ জুলাই ২০০০)। "Democracy, Anti-Democracy, and the Canon"। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ – papers.ssrn.com-এর মাধ্যমে। 
  6. "Tildon, Toussaint Tourgee (1893-1964), physician and psychiatrist"American National Biography। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  7. Stokely Carmichael (২৫ সেপ্টেম্বর ১৯৯২)। "Black power"। Vintage Books। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ – Internet Archive-এর মাধ্যমে। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

স্থানাঙ্ক: ৩২°২৫′৫৩″ উত্তর ৮৫°৪২′২৪″ পশ্চিম / ৩২.৪৩১৫০৬° উত্তর ৮৫.৭০৬৭৮১° পশ্চিম / 32.431506; -85.706781