জারণ অবস্থা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

জারণ অবস্থা বা জারণ সংখ্যা হলো একটি রাসায়নিক যৌগের মধ্যে থাকা কোনো পরমাণুর জারিত অথবা বিজারিত অবস্থা নির্দেশকারী সংখ্যা। সাধারণ বা মুক্ত অবস্থায় কোনো পরমাণুর জারণ সংখ্যা শূন্য থাকে। তত্ত্বগতভাবে, কোনো পরমাণু যদি পুরোপুরি আয়নীয় যৌগ তৈরি করে, তবে সেই পরমানুতে মোট যে পরিমাণ আধানের পরিবর্তণ হবে সেটাই ওই যৌগে উক্ত পরমানুটির জারণ সংখ্যা।

যৌগের ওপর নির্ভর করে জারণ সংখ্যা ধনাত্বক, শূন্য অথবা ঋণাত্বক হতে পারে।

ব্যুত্পত্তি[সম্পাদনা]

"জারণ" শব্দটি বিজ্ঞানী ল্যাভয়সিয়ের অক্সিজেনের সাথে যুক্ত হওয়া বোঝাতে সর্বপ্রথম ব্যবহার করেন। পরবর্তীকালে, যে কোনো মৌল বা যৌগ থেকে ইলেকট্রন বেরিয়ে গেলে সেই প্রক্রিয়াকে জারণ বলে ধরা হয়।

মান[সম্পাদনা]

জারণ সংখ্যা সাধারণত পূর্ণ সংখ্যা হলেও, বিশেষ ক্ষেত্রে জারণ সংখ্যা ভগ্নাংশও হতে পারে; যেমনঃ ম্যাগনেটাইট (Fe3O4) যৌগে লৌহের জারণ সংখ্যা ৮/৩।

বিক্রিয়ার নামকরণ[সম্পাদনা]

কোনো রাসায়নিক বিক্রিয়ায় মৌলিক পদার্থের জারণ সংখ্যা বেড়ে গেলে সেই বিক্রিয়াকে জারণ বিক্রিয়া বলা হয়; অপরদিকে, জারণ সংখ্যা কমলে সেই বিক্রিয়াকে বিজারণ বলা হয়। যে কোনো রাসায়নিক প্রক্রিয়ায় জারণ - বিজারণ একই সাথে ঘটে থাকে। একটি মৌল জারিত হলে অন্য কোনো মৌল বিজারিত হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]