বিষয়বস্তুতে চলুন

জাফনা নির্বাচনী জেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

জাফনা নির্বাচনী জেলা হল শ্রীলঙ্কার ২২টি বহু-সদস্যের নির্বাচনী জেলার মধ্যে একটি যেটি ১৯৭৮ সালের শ্রীলঙ্কার সংবিধান দ্বারা তৈরি হয়েছিল। উত্তর প্রদেশের জাফনা এবং কিলিনোচ্চির প্রশাসনিক জেলাগুলি এই জেলার অন্তর্গত। বর্তমানে এই জেলা শ্রীলঙ্কার সংসদের ২২৫জন সদস্যের মধ্যে ৯ জনকে নির্বাচিত করে এবং ২০১৪ সালে এই জেলাতে ৫,২৯, ২৩৯ জন নিবন্ধিত ভোটার ছিল।

নির্বাচনের ফলাফল[সম্পাদনা]

রাষ্ট্রপতি নির্বাচন[সম্পাদনা]

১৯৮২ সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচন[সম্পাদনা]

১৯৮২ সালের, ২০শে অক্টোবর প্রথম রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ফলাফল অনুষ্ঠিত হয়:

১৯৮৮ সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচন[সম্পাদনা]

১৯৮৮ সালের, ১৯শে ডিসেম্বর দ্বিতীয় রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ফলাফল অনুষ্ঠিত হয়:

প্রার্থী পার্টি পোলিং বিভাগের প্রতি ভোট মোট ভোট %
চাভাকাচ্ছেরি জাফনা কঙ্কেশানথুরাই কায়টস কিলিনোচ্চি কোপে মানিপায়ে নাল্লুর পয়েন্ট
পেড্রো
উদুপিড্ডি ভাদুকোদ্দাই
সিরিমাভো বন্দরনায়েকে এসএলএফপি ৩,৭০৪ ৩,৫৪৬ ৩,১১৭ ৩,২৬৪ ৪,০৬৪ ৫,৮৩৩ ৩,৪৯১ ৩,৩৬২ ৩,৯২১ ৩,৪০০ ৬,৪৯৫ ৪৪,১৯৭ ৩৬.৮২%
ওসি আবেগুনাশেকেরা এসএলপিপি ৪,০২৩ ৩,৬১৬ ৩,৮৪০ ৪,৫০৩ ২,৫৯৬ ৪,৩২৫ ৫,০৮৯ ২,৯২৪ ২,৯১০ ৩,১২০ ৫,২৫২ ৪২,১৯৮ ৩৫.১৫%
রণসিংহে প্রেমাদাসা ইউএনপি ২,৩০০ ৩,৪৭৫ ২,৩৬৪ ৪,৬২৮ ৩,৭৯৩ ২,৪৯৩ ৪,০০৬ ২,০০০ ২,৬২০ ১,৬৬২ ৪,৩০৯ ৩৩,৬৫০ ২৮.০৩%
বৈধ ভোট ১০,০২৭ ১০,৬৩৭ ৯,৩২১ ১২,৩৯৫ ১০,৪৫৩ ১২,৬৫১ ১২,৫৮৬ ৮,২৮৬ ৯,৪৫১ ৮,১৮২ ১৬,০৫৬ ১২০,০৪৫ ১০০.০০%
প্রত্যাখ্যাত ভোট ১,০৩৫ ৪৭৯ ৪৫১ ৫৯৬ ৩৭৮ ৭৩৩ ৮৯১ ৪৮২ ৭৭২ ৩০৩ ২,৩৯৭ ৮,৫১৭
মোট জরিপ ১১,০৬২ ১১,১১৬ ৯,৭৭২ ১২,৯৯১ ১০,৮৩১ ১৩,৩৮৪ ১৩,৪৭৭ ৮,৭৬৮ ১০,২২৩ ৮,৪৮৫ ১৮,৪৫৩ ১২৮,৫৬২
নিবন্ধিত ভোটার ৫১,৫৯৫ ৪৯,২২৯ ৬০,৩৮৬ ৪৯,৪৮১ ৫৩,৬০৪ ৫৬,৪৫০ ৫৮,৩২০ ৬১,৯৩৬ ৪০,১৭৫ ৫২,০৮৪ ৫৮,৫২২ ৫৯১,৭৮২
ভোটগ্রহণ (%) ২১.৪৪% ২২.৫৮% ১৬.১৮% ২৬.২৫% ২০.২১% ২৩.৭১% ২৩.১১% ১৪.১৬% ২৫.৪৫% ১৬.২৯% ৩১.৫৩% ২১.৭২%

১৯৯৪ সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচন[সম্পাদনা]

১৯৯৪ সালের, ৯ই নভেম্বর তৃতীয় রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ফলাফল অনুষ্ঠিত হয়:

১৯৯৯ সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচন[সম্পাদনা]

১৯৯৯ সালের, ২১শে ডিসেম্বরস অনুষ্ঠিত চতুর্থ রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ফলাফল অনুষ্ঠিত হয়:

২০০৫ সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচন[সম্পাদনা]

২০০৫ সালের, ১৭ই নভেম্বর পঞ্চম রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ফলাফল অনুষ্ঠিত হয়:

২০১০ সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচন[সম্পাদনা]

২০১০ সালের, ২৬শে জানুয়ারি ষষ্ট রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ফলাফল নুষ্ঠিত: হয়

২০১৫ রাষ্ট্রপতি নির্বাচন[সম্পাদনা]

২০১৫ সালের ৮ই জানুয়ারি সপ্তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ফলাফল অনুষ্ঠিত হয়:

সংসদীয় সাধারণ নির্বাচন[সম্পাদনা]

১৯৮৯ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচন[সম্পাদনা]

১৯৮৯ সালের ১৫ই ফেব্রুয়ারি নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ফলাফল অনুষ্ঠিত হয়:

নিম্নলিখিত প্রার্থীরা নির্বাচিত হয়েছিল: এলিয়থাম্বি রত্নসাবাপথি (ইআরওএস), ৪০,৯৪৭ প্রেফারেন্স ভোট (পিভি); এলিয়থাম্বি প্যারারাসিংগাম (ইআরওএস), ৩৬,৩৪০ পিভি; এস. শিবমহারাজাহ (ইআরওএস), ২২,৬২২ পিভি; কে. নবরত্নম (ইপিআরএলএফ), ২২,২৫৫ পিভি; অরুনাসালাম পোনিয়া সেলিয়াহ (ইআরওএস), ২০,৭৪৭ পিভি; সুরেশ প্রেমাচন্দ্রন (ইপিআরএলএফ), ২০,৭৩৮ পিভি; জি. যোগাসাঙ্গারি (ইপিআরএলএফ), ২০,২২৩ পিভি; থামবু লোগানাথাপিল্লাই (ইআরওএস), ১৭,৬১৬ পিভি; সেবাস্তিয়ামপিল্লাই এডওয়ার্ড (ইআরওএস), ১৭,৪২৯ পিভি; কানাপাথি সেলভানায়গাম (ইআরওএস), ১৪,৪৪০ পিভি; এবং জোসেফ জর্জ রাজেনথিরাম (ইআরওএস), ১৩,৯২৮ পিভি।

১৯৯০ সালের, ১৯শে জুন জি. যোগাসাঙ্গারি (ইপিআরএলএফ) নিহত হন।

১৯৯৪ সালের সংসদ নির্বাচন[সম্পাদনা]

১৯৯৪ সালের, ১৬ই আগস্ট দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ফলাফল অনুষ্ঠিত হয়:

নিম্নলিখিত প্রার্থীরা নির্বাচিত হয়েছিল: ডগলাস দেবানন্দ (ইপিডিপি), ২,০৯১ প্রেফারেন্স ভোট (পিভি); আইথুরাস এম. ইলিয়াস (এসএলএমসি), ১,৫৭৫ পিভি; আলাগাইয়াহ রাসামানিকাম (ইপিডিপি), ১,১১০ পিভি; উমাপাথিসিভম বাস্করান (ইপিডিপি), ১,০৫৬ পিভি; রাজেন্দ্রন রামমূর্তি (ইপিডিপি), ১,০৫০ পিভি; নাদারাজাহ "রমেশ" আটপুথারাজাহ (ইপিডিপি), ৯৬৮ পিভি; মুরুগেসু চন্দ্রকুমার (ইপিডিপি), ৭৯৮ পিভি; সাঙ্গারাপিল্লাই শিবাথাসন (ইপিডিপি), ৪৫৬ পিভি; সিন্নিয়া থাঙ্গাভেল (ইপিডিপি) ৩৯৮ পিভি; এবং এম.এ. গফুর জাফরুল্লাহ (ইপিডিপি), ৩৫১ পিভি।

১৯৯৯ সালের ২রা নভেম্বর নাদারাজাহ "রমেশ" আটপুথারাজাহ (ইপিডিপি) নিহত হন।

২০০০ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচন[সম্পাদনা]

২০০০ সালের ১০ই অক্টোবর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ফলাফল অনুষ্ঠিত হয়:

নিম্নলিখিত প্রার্থীরা নির্বাচিত হয়েছিল: ভি. আনন্দসাঙ্গারী (টিইউএলএফ), ১২,৮৮৮ পিভি; মাভাই সেনাথিরাজাহ (টিইউএলএফ), ১০,৯৬৫ পিভি; ডগলাস দেবানন্দ (ইপিডিপি), ৭,৬৫৮ পিভি; এস. শিবমহারাজাহ (টিইউএলএফ), ১,১৮৭ পিভি; টি. মহেশ্বরন (ইউএনপি), ৪,৮০৭ পিভি; নাদারাসাহ মাথানারাজাহ (ইপিডিপি), ৪,৬৭৩ পিভি; কার্থিগেসু ভেলুমিলাম কুগেন্দ্রান (ইপিডিপি), ৪,২৪৪ পিভি; এ. বিনয়গামূর্তি (এসিটিসি), ৩,৮২৫ পিভি; এবং কান্দিয়াহ সাঙ্গারান (ইপিডিপি), ২,৯০২ পিভি।

২০০১ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচন[সম্পাদনা]

২০০১ সালের ৫ই ডিসেম্বর দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ফলাফল অনুষ্ঠিত হয়:

নিম্নলিখিত প্রার্থীরা নির্বাচিত হয়েছিল: ভি. আনন্দসাঙ্গারী (টিএনএ - টিইউএলএফ), ৩৬,২১৭ প্রেফারেন্স ভোট (পিভি); মাভাই সেনাথিরাজাহ (টিএনএ - টিইউএলএফ), ৩৩,৮৩১ পিভি; গজেন্দ্রকুমার পোন্নাম্বালাম (টিএনএ - এসিটিসি), ২৯,৬৪১ পিভি; এ. বিনয়গামূর্তি (টিএনএ - এসিটিসি), ১৯,৪৭২ পিভি; নাদারাজাহ রবিরাজ (টিএনএ - টিইউএলএফ), ১৯,২৬৩ পিভি; এম. কে. শিবাজিলিঙ্গম (টিএনএ - টিইএলও), ১৭,৮৫৯ পিভি; টি. মহেশ্বরন (ইউএনএফ), ১১,৫৯৮ পিভি; ডগলাস দেবানন্দ (ইপিডিপি), ৯,৭৪৪ পিভি; এবং নাদারাসাহ মাথানারাজাহ (ইপিডিপি), ৭,৩৫০ পিভি।

২০০৪ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচন[সম্পাদনা]

২০০৪ সালের ২রা এপ্রিল ১৩তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ফলাফল অনুষ্ঠিত হয়:

নিম্নলিখিত প্রার্থীরা নির্বাচিত হয়েছিল: সেলভারাজাহ কাজেন্দ্রেন (টিএনএ), ১১২,০৭৭ প্রেফারেন্স ভোট (পিভি); পথমিনি সিথাম্পারনাথন (টিএনএ), ৬৮,২৪০ পিভি; গজেন্দ্রকুমার পোন্নাম্বালাম (টিএনএ - এসিটিসি), ৬০,৭৭০ পিভি; সুরেশ প্রেমাচন্দ্রন (টিএনএ - ইপিআরএলএফ), ৪৫,৭৮৬ পিভি; কে. সিভানেসান (টিএনএ), ৪৩,৭৩০ পিভি; নাদারাজাহ রবিরাজ (টিএনএ - আইটিএকে), ৪২,৯৬৫ পিভি; এম. কে. শিবাজিলিঙ্গম (টিএনএ - টিইএলও), ৪২,১৯৩ পিভি; মাভাই সেনাথিরাজাহ (টিএনএ - আইটিএকে), ৩৮,৭৮৩ পিভি; এবং ডগলাস দেবানন্দ (ইপিডিপি), ৯,৪০৫ পিভি।

২০০৬ সালের ১০ই নভেম্বরে নাদারাজাহ রবিরাজ (টিএনএ - আইটিএকে) নিহত হন। ২০০৬ সালের ৩০শে নভেম্বরে তাঁর স্থলাভিষিক্ত নল্লাথাম্বি শ্রীকান্ত (টিএনএ - টিইএলও) শপথ নেন।

২০০৮ সালের ৬ই মার্চে কে. সিভানেসান (টিএনএ) নিহত হন। ২০০৮ সালের ৯ই এপ্রিলে তাঁর স্থলাভিষিক্ত সলোমন সিরিল (টিএনএ) শপথ নেন।

২০১০ সালের সংসদ নির্বাচন[সম্পাদনা]

২০১০ সালের ৮ই এপ্রিল ১৪তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ফলাফল অনুষ্ঠিত হয়:

নিম্নলিখিত প্রার্থীরা নির্বাচিত হয়েছিল: ডগলাস দেবানন্দ (ইউপিএফএ - ইপিডিপি), ২৮,৫৮৫ প্রেফারেন্স ভোট (পিভি); মাভাই সেনাথিরাজাহ (টিএনএ - আইটিএকে), ২০,৫০১ পিভি; সুরেশ প্রেমচন্দ্রন (টিএনএ - ইপিআরএলএফ), ১৬,৪২৫ পিভি; এ. বিনয়গামূর্তি (টিএনএ), ১৫,৩১১ পিভি; ই. সারাবনপবন (টিএনএ), ১৪,৯৬১ পিভি; সিলভেস্ট্রি এলেনটাইন  (ইউপিএফএ - ইপিডিপি), ১৩,১২৮ পিভি; এস. শ্রীধরন (টিএনএ), ১০,০৫৭ পিভি; মুরুগেসু চন্দ্রকুমার (ইউপিএফএ - ইপিডিপি), ৮,১০৫ পিভি; এবং বিজয়কলা মহেশ্বরন (ইউএনএফ - ইউএনপি), ৭,১৬০ পিভি।

প্রাদেশিক পরিষদ নির্বাচন[সম্পাদনা]

১৯৮৮ সালের প্রাদেশিক পরিষদ নির্বাচন[সম্পাদনা]

১৯৮৮ সালের ১৯শে নভেম্বর ১ম উত্তর-পূর্ব প্রাদেশিক পরিষদ নির্বাচনের ফলাফল অনুষ্ঠিত হয়:

জাফনা জেলা - বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ১৯টি আসন জিতেছে ইলম পিপলস রেভল্যুশনারি লিবারেশন ফ্রন্ট।

কিলিনোচ্চি জেলা - বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ৩টি আসন জিতেছে ইলম ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক লিবারেশন ফ্রন্ট।

২০১৩ সালের প্রাদেশিক পরিষদ নির্বাচন[সম্পাদনা]

২০১৩ সালের ২১শে সেপ্টেম্বর ১ম উত্তর প্রাদেশিক পরিষদ নির্বাচনের ফলাফল অনুষ্ঠিত হয়:

জাফনা জেলা

কিলিনোচ্চি জেলা

পার্টি কিলিনোচ্চি ডাক ভোট মোট ভোট % আসন
তামিল ন্যাশনাল অ্যালায়েন্স ( EPRLF (S), ITAK, PLOTE, TELO, TULF ) ৩৬,৩২৩ ৭৫৬ ৩৭,০৭৯ ৮১.৫৭% 3
ইউনাইটেড পিপলস ফ্রিডম অ্যালায়েন্স ( ACMC, EPDP, SLFP et al. ) ৭,৭৩৭ ১৬০ ৭,৮৯৭ ১৭.৩৭%
ইলাভার ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট ( EROS ) ৩০০ ৩০০ ০.৬৬%
গণতান্ত্রিক ঐক্যজোট ৬০ ৬১ ০.১৩%
ইউনাইটেড ন্যাশনাল পার্টি ৫৩ ৫৪ 0.12%
স্বাধীন ২ ২২ ২২ ০.০৫%
জনতা বিমুক্তি পেরামুনা ১৮ ১৮ 0.04%
স্বাধীন ঘ ০.০২% 0
ইউনাইটেড লঙ্কা গ্রেট কাউন্সিল ০.০১%
গণতান্ত্রিক দল ০.০১%
জাতীয় ঐক্য সংগঠন ০.০১%
শ্রীলঙ্কা লেবার পার্টি ০.০১%
জনসেথা পেরামুনা 0.00%
বৈধ ভোট ৪৪,৫৪০ ৯১৯ ৪৫,৪৫৯ ১৭.৯৩%
প্রত্যাখ্যাত ভোট ৪,৭২৫ ১০ ৪,৭৩৫
মোট জরিপ ৪৯,২৬৫ ৯২৯ ৫০,১৯৪
নিবন্ধিত ভোটার ৬৮,৬০০ ৬৮,৬০০
ভোটগ্রহণ ৭১.৮১% ৭৩.১৭%