জাতীয় গান্ধী জাদুঘর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জাতীয় গান্ধী জাদুঘর
राष्ट्रीय गांधी संग्रहालय
Entrance of National Gandhi Museum, Raj Ghat, New Delhi.jpg
স্থাপিত১৯৬১ (1961)
অবস্থানরাজ ঘাট, নয়া দিল্লি, ভারত
পরিচালকএ. অন্নামলাই
যুগ্ম পরিচালক: উত্তম কুমার সিনহা
ওয়েবসাইটwww.gandhimuseum.org

জাতীয় গান্ধী জাদুঘর বা গান্ধী স্মৃতি জাদুঘর ভারতের নয়া দিল্লিতে অবস্থিত একটি জাদুঘর, যা মোহনদাস করমচাঁদ গান্ধীর স্মৃতি রক্ষার্থে স্থাপন করা হয়েছে। ১৯৪৮ সালে গান্ধী হত্যাকাণ্ডের কিছুদিন পরেই মুম্বাইয়ে জাদুঘরটি প্রতিষ্ঠিত হয়। এরপর বেশ কয়েকবার জাদুঘরটির স্থান পরিবর্তন করা হয় এবং সর্বশেষ ১৯৬১ সালে এটি নয়াদিল্লির রাজঘাটে স্থানান্তরিত হয়।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

জাদুঘরে পুনর্নির্মিত গান্ধীর শয়নকক্ষ

১৯৪৮ সালের ৩০ জানুয়ারি মহাত্মা গান্ধীকে হত্যা করা হয়েছিল। তার মৃত্যুর পর থেকেই সংগ্রহকারীরা গান্ধীর ব্যবহৃত বা তার সাথে সম্পর্কিত বিভিন্ন জিনিসের জন্য ভারত জুড়ে অনুসন্ধান শুরু করেছিলেন। অনুসন্ধানে প্রাপ্ত গান্ধীর ব্যক্তিগত জিনিস এবং তাকে নিয়ে লেখা বই ও সংবাদপত্রগুলো সে বছরই মুম্বাইয়ে নেওয়া হয়। ১৯৫১ সালে এগুলো নয়াদিল্লির কোটা হাউসের নিকটস্থ ভবনে সরিয়ে নেওয়া হয়। এরপর ১৯৫৭ সালে জাদুঘরটি আবারো স্থানান্তর করা হয়।

১৯৫৯ সালে জাদুঘরটি নয়া দিল্লির রাজঘাটে গান্ধীর সমাধির নিকটে স্থানান্তর করা হয়। ১৯৬১ সালে মহাত্মা গান্ধীর ১৩ তম মৃত্যুবার্ষিকীতে জাদুঘরটি আনুষ্ঠানিকভাবে খুলে দেওয়া হয়। ভারতের তৎকালীন রাষ্ট্রপতি রাজেন্দ্র প্রসাদ এর উদ্বোধন করেন।[১]

গ্রন্থাগার[সম্পাদনা]

জাদুঘরটিতে একটি গ্রন্থাগার রয়েছে, যা দুটি অংশে বিভক্ত। এক অংশে রয়েছে গান্ধীর লেখা বা গান্ধীকে নিয়ে রচিত বই আর অপর অংশে রয়েছে অন্যান্য বিষয়ের বই।[২] গ্রন্থাগারটিতে বর্তমানে ৩৫ হাজারেরও অধিক বই ও নথিপত্র আছে।[৩] এছাড়াও সেখানে গান্ধীকে নিয়ে রচিত ইংরেজি ও হিন্দি ভাষার প্রায় ২,০০০ সাময়িকী রয়েছে।[৪]

গ্যালারি[সম্পাদনা]

গান্ধীর রক্তে ভেজা শাল ও ধুতি এবং তার জীবন কেড়ে নেয়া বুলেট

জাতীয় গান্ধী জাদুঘরের গ্যালারিতে মহাত্মা গান্ধীর অনেকগুলো চিত্রকর্ম এবং ব্যক্তিগত জিনিস রয়েছে। সেখানে প্রদর্শিত উল্লেখযোগ্য নিদর্শনগুলো হল গান্ধীর ব্যবহৃত লাঠি, নিহত হওয়ার সময় গান্ধী যে শাল এবং ধুতি পরেছিলেন তা, গান্ধী হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত একটি বুলেট ইত্যাদি।[৫] এছাড়াও সেখানে গান্ধীর কয়েকটি দাঁত এবং টুথপিক প্রদর্শিত হয়।[৬] এর পাশাপাশি জাদুঘরটির আর্ট গ্যালারিতে গান্ধীকে নিয়ে আঁকা ছবি ও স্কেচ এবং ফটো গ্যালারিতে বিভিন্ন ঐতিহাসিক ছবি প্রদর্শন করা হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "History"Gandhi Museum। ১৭ জুন ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০০৯ 
  2. "Classification"Gandhi Museum। ১২ ডিসেম্বর ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ ডিসেম্বর ২০০৯ 
  3. Powell,F: The National Gandhi Museum and Library, World Libraries, 1993, আইএসএসএন 1092-7441
  4. "Periodicals"Gandhi Museum। ১৫ ডিসেম্বর ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ ডিসেম্বর ২০০৯ 
  5. "Gallery"Gandhi Museum। ১৫ ডিসেম্বর ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ অক্টোবর ২০০৯ 
  6. Gentleman, Amelia (২০ সেপ্টেম্বর ২০০৬)। "Does urbanized India have room for Gandhi?"New York Times। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০১০ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

স্থানাঙ্ক: ২৯°০৪′২৮″ উত্তর ৭৭°২৪′৫৮″ পূর্ব / ২৯.০৭৪৪৪° উত্তর ৭৭.৪১৬১১° পূর্ব / 29.07444; 77.41611