চীনের শহুরে রেল পরিবহন ব্যবস্থা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
দ্রুতগামী গণপরিবহন ব্যবস্থা, কম্যুটার রেল এবং হালকা রেল ব্যবস্থাগুলির সাথে চীনের মূলভূখন্ডের ও এসএআর -এর শহরগুলির মানচিত্র। বামে দুটি উচ্চ-রেজোলিউশনের মানচিত্র ছাং চিয়াং নদী বদ্বীপ (ওয়াইআরডি) এবং পার্ল নদী বদ্বীপ (পিআরডি) অঞ্চলকে প্রদর্শন করছে।
  পরিচালনাগত ব্যবস্থা
   নির্মাণাধীন ব্যবস্থা

গণপ্রজাতন্ত্রী চীনের শহুরে রেল পরিবহনে পাতাল রেল, লাইট রেল, ট্রাম এবং ম্যাগলেভসহ শহর ও শহরতলির দ্রুতগামী বৈদ্যুতিক যাত্রী রেল পরিবহন ব্যবস্থাগুলোর বিস্তৃত পরিসর অন্তর্ভুক্ত।[১] কিছু ক্ষেত্রে দ্রুতগামী বাস পরিবহন ব্যবস্থাকেও অন্তর্ভুক্ত করা হয়। ২০১৬ সালের শেষ নাগাদ চীনের মূল ভূখন্ডে ৩০টি মেট্রো ব্যবস্থা চালু ছিল এবং এর মোট দৈর্ঘ্য ছিল ৩,৫৮৬ কিলোমিটার (২,২২৮ মাইল)।[২][৩] আজ চীনে বিশ্বের দীর্ঘতম, দ্বিতীয় এবং চতুর্থ দীর্ঘতম মেট্রো ব্যবস্থা রয়েছে।[৪][৫][৬] ১৯৯৩ সালে সাংহাই মেট্রো পরিষেবা শুরু করে এবং এটি বর্তমানে পৃথিবীর দীর্ঘতম পাতাল রেল ব্যবস্থায় সম্প্রসারিত হয়েছে।[৪][৫][৭] বিশ্বের শীর্ষ দশটি ব্যস্ততম মেট্রো ব্যবস্থার অর্ধেক চীনে রয়েছে।[৮] ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে জাতীয় উন্নয়ন ও সংস্কার কমিশনের মতে, ৩৯টি শহর মেট্রো ব্যবস্থা নির্মাণের অনুমোদন পেয়েছে। ২০১৬ সালের পরের তিন বছরের মধ্যে পরিবহন অবকাঠামোর উপর চীন ৪.৭ ট্রিলিয়ন ইউয়ান (৭০৬ বিলিয়ন ডলার) ব্যয় করার পরিকল্পনা করেছে।[৯] ২০১৭ সালের প্রথম দিকে চীনে গণপরিবহনের জন্য নির্মাণাধীন ছিল ৫,৬৩৬.৫ কিলোমিটার (৩,৫০২.৪ মাইল) রেলপথ।[৩]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

২০ শতকের গোড়ার দিকে কয়েকটি চীনা শহরে শহুরে বৈদ্যুতিক ট্রাম চালু ছিল, যা ১৯৫০-এর থেকে ১৯৭০-এর দশকে ধ্বংস হয়ে যায়। ১৯০৭ সাল থেকে ১৯৫৮ সাল পর্যন্ত নানজিংয়ের একটি শহুরে রেলওয়ে ব্যবস্থা ছিল। চীনে প্রথম পাতাল রেল ১৯৬৯ সালে বেইজিংয়ে নির্মিত হয়েছিল। ১৯৮৪ সালে থিয়েনচিন মেট্রো ব্যবস্থাটি চালু হয়। হংকং তখনও ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক শাসনের অধীনে ১৯৭৯ সালে পাতাল রেলের প্রথম বিভাগটি সম্পন্ন করেছিল। আজ, হংকংয়ের এমটিআর কর্পোরেশনে মূল ভূখণ্ডের বেশ কয়েকটি চীনা শহরের দ্রুত গণপরিবহন ব্যবস্থার বিনিয়োগ, পরামর্শ ও ব্যবস্থাপনায় রয়েছে।

১৯৮০-এর দশকের পর থেকে চীনা অর্থনীতির দ্রুত বৃদ্ধির ফলে শহুরে পরিবহণের চাহিদা বেড়েছে। এটি চীন জুড়ে শহরগুলিকে পাতাল রেল ব্যবস্থা নির্মাণের জন্য খসড়া প্রস্তাবগুলোকে উৎসাহ দিতে অনুপ্রাণিত করে। সাংহাই এবং কুয়াংচৌতে ৯০-এর দশকে পাতাল রেলের প্রথম বিভাগ চালু হয়, যা চীনের অন্য শহরগুলিকে পাতাল রেল ব্যবস্থা গঠন করার জন্য আরো অনুপ্রেরণা দেয়। ১৯৯৫ সালে কেন্দ্রীয় সরকার এই উচ্চাভিলাষী পাতাল রেল পরিকল্পনাগুলোর জন্য উচ্চমূল্য এবং আর্থিক ঋণ দ্বারা উদ্বিগ্ন হয়ে বেইজিং, থিয়েনচিন, কুয়াংচৌ এবং সাংহাই ব্যতীত অন্য নতুন কোন "শহুরে ভূগর্ভস্থ দ্রুত রেল পরিবহন প্রকল্পের অনুমোদনের স্থগিতাদেশের বিজ্ঞপ্তি" প্রদান করে।[১০]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. 中国城市轨道交通 [China Urban Mass Transit]। ৪ এপ্রিল ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  2. "Across China: More metro lines in smaller Chinese cities - Xinhua | English.news.cn"news.xinhuanet.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৯-০৯ 
  3. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি" 城市轨道交通2016年度统计分析报告完整出炉www.suilengea.com। ২০১৭-০৮-০৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৭-১৬ 
  4. "Chinese metro boom shows no sign of abating"। International Rail Journal.। ১৯ নভেম্বর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১২ নভেম্বর ২০১৮ 
  5. https://www.youtube.com/watch?v=dNCaK4d0GA0
  6. "Statistics Brief World Metro Figures" (pdf)। Union Internationale des Transports Publics (UITP) (International Association of Public Transport)। অক্টোবর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-১২-১৩ 
  7. "Shanghai now the world's longest metro"Railway Gazette। ৪ মে ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ৯ এপ্রিল ২০১৪ 
  8. http://sh.eastday.com/m/20160106/u1ai9170020.html
  9. https://www.reuters.com/article/us-china-transport-investment-idUSKCN0Y70I1
  10. 深圳地铁"十年怀胎"终圆梦---深圳特区报sztqb.sznews.com। ৬ জানুয়ারি ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০১৭ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]