গ্লুকোমা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
গ্লুকোমা
বিশেষত্বচক্ষুচিকিৎসাবিজ্ঞান উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন

গ্লুকোমা (ইংরেজি: Glaucoma) হলো চোখের একপ্রকার রোগ যাতে অপটিক স্নায়ু ক্ষতিগ্রস্ত হয় ও চোখ অন্ধ হয়ে যায়।[১] গ্লুকোমা অনেক প্রকারের হয় যেমন ওপেন অ্যাঙ্গেল গ্লুকোমা, ক্লোজড অ্যাঙ্গেল গ্লুকোমা, নরমাল টেনশন গ্লুকোমা অন্যতম । ওপেন অ্যাঙ্গেল গ্লুকোমা ধীরে ধীরে হয় ফলে চোখে ব্যথা অনুভূত হয় না। চিকিৎসা না করালে প্রথমে পার্শ্বীয় দৃষ্টি, তারপর কেন্দ্রীয় দৃষ্টি নষ্ট হয়ে অন্ধত্ব বরণ করতে হয়।[১] ক্লোজড অ্যাঙ্গেল গ্লুকোমা ধীরে ধীরে বা হঠাৎ করে হতে পারে। [২] এর লক্ষণগুলো হলো চোখে তীব্র ব্যথা, চোখ লাল হয়ে যাওয়া, ঝাপসা দৃষ্টি, চোখের মণি বা তারারন্ধ্র বড়ো হয়ে যাওয়া, বমিভাব। [১][২] গ্লুকোমার কারণে দৃষ্টিশক্তি কমে গেলে তা স্থায়ীভাবে কমে।[১]

এই রোগের ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে চোখের অভ্যন্তরীণ চাপ (intraocular pressure) বেড়ে যাওয়া, পরিবারের অন্য সদস্যের এই রোগ থাকা, উচ্চ রক্তচাপ, অতিস্থুলতা ইত্যাদি।[১][৩] ইন্ট্রাওকুলার প্রেসার ২১ মি.মি. পারদ চাপের বেশি থাকলে গ্লুকোমার আশঙ্কা বেশি। তবে চোখের চাপ স্বাভাবিক থাকলেও গ্লুকোমা হতে পারে যেমন নরমাল-টেনশন গ্লুকোমা। [৪]

রোগের প্রাথমিক অবস্থায় চিকিৎসা শুরু করলে দৃষ্টিশক্তি অটুট রাখা সম্ভব।[১] ওষুধের মাধ্যমে চোখের চাপ স্বাভাবিক রাখা হয়।গ্লুকোমা চিকিৎসায় অনেক রকম ওষুধ রয়েছে। এছাড়া কিছুক্ষেত্রে লেজারের মাধ্যমে চিকিৎসা দেয়া যায়। ওষুধে ভালো না হলে বিভিন্ন সার্জিক্যাল পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়।[২] ক্লোজড অ্যাঙ্গেল গ্লুকোমার চিকিৎসা জরুরি ভিত্তিতে করতে হবে।[১]

সারাবিশ্বে প্রায় ৬৭ মিলিয়ন লোক গ্লুকোমায় আক্রান্ত। [২][৫] সাধারণত বয়স্ক লোকের বেশি হয়। ক্লোজড অ্যাঙ্গেল গ্লুকোমা মহিলাদের বেশি হয়।[৬] সারাবিশ্বে ছানির পরে গ্লুকোমা অন্ধত্বের দ্বিতীয় কারণ।[২][৭] গ্লুকোমা (glaucoma) শব্দটি প্রাচীন গ্রিক glaukos থেকে এসেছে যার অর্থ নীল, সবুজ বা ধূসর। [৮] ইংরেজিতে শব্দটির ব্যবহার শুরু হয় ১৫৮৭ সাল থেকে তবে ১৮৫০ সাল থেকে অফথালমোস্কোপের ব্যবহার শুরু হলে এই শব্দটির ব্যবহার ব্যাপকতা লাভ করে।[৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Facts About Glaucoma"National Eye Institute। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মার্চ ২০১৬ 
  2. Mantravadi, AV; Vadhar, N (সেপ্টেম্বর ২০১৫)। "Glaucoma."। Primary care42 (3): 437–49। ডিওআই:10.1016/j.pop.2015.05.008পিএমআইডি 26319348 
  3. Rhee, Douglas J. (২০১২)। Glaucoma (2 সংস্করণ)। Philadelphia: Wolters Kluwer Health/Lippincott Williams & Wilkins। পৃষ্ঠা 180। আইএসবিএন 9781609133375 
  4. Mi, Xue-Song; Yuan, Ti-Fei; So, Kwok-Fai (১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৪)। "The current research status of normal tension glaucoma"। Clinical Interventions in Aging9: 1563–71। ডিওআই:10.2147/CIA.S67263পিএমআইডি 25258525 উন্মুক্ত প্রবেশাধিকারযুক্ত প্রকাশনা - বিনামূল্যে পড়া যাবে
  5. Global Burden of Disease Study 2013, Collaborators (২২ আগস্ট ২০১৫)। "Global, regional, and national incidence, prevalence, and years lived with disability for 301 acute and chronic diseases and injuries in 188 countries, 1990-2013: a systematic analysis for the Global Burden of Disease Study 2013."Lancet (London, England)386 (9995): 743–800। ডিওআই:10.1016/S0140-6736(15)60692-4পিএমআইডি 26063472পিএমসি 4561509অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  6. "Glaucoma: The 'silent thief' begins to tell its secrets" (সংবাদ বিজ্ঞপ্তি)। National Eye Institute। ২১ জানুয়ারি ২০১৪। 
  7. Resnikoff, Serge; Pascolini, Donatella; Etya'Ale, Daniel; Kocur, Ivo; Pararajasegaram, Ramachandra; Pokharel, Gopal P.; Mariotti, Silvio P. (২০০৪)। "Global data on visual impairment in the year 2002"Bulletin of the World Health Organization82 (11): 844–51। ডিওআই:10.1590/S0042-96862004001100009পিএমআইডি 15640920পিএমসি 2623053অবাধে প্রবেশযোগ্য  অজানা প্যারামিটার |doi_brokendate= উপেক্ষা করা হয়েছে (সাহায্য)
  8. Leffler, CT; Schwartz, SG; Giliberti, FM; Young, MT; Bermudez, D (২০১৫)। "What was Glaucoma Called Before the 20th Century?"Ophthalmology and eye diseases7: 21–33। ডিওআই:10.4137/OED.S32004পিএমআইডি 26483611পিএমসি 4601337অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  9. Leffler CT, Schwartz SG, Stackhouse R, Davenport B, Spetzler K (২০১৩)। "Evolution and impact of eye and vision terms in written English"। JAMA Ophthalmol131 (12): 1625–31। ডিওআই:10.1001/jamaophthalmol.2013.917পিএমআইডি 24337558 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]