গ্রেটা থুনবের্গ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(গ্রিতা থানবার্গ থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
গ্রেটা থুনবের্গ
Greta Thunberg at the Parliament (46705842745) (cropped).jpg
২০১৯-এর এপ্রিলে গ্রেটা থুনবের্গ
জন্ম (2003-01-03) ৩ জানুয়ারি ২০০৩ (বয়স ১৬)
সুইডেন
পেশাশিক্ষার্থী ও জলবায়ু কর্মী
আন্দোলনজলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় প্রতিবাদ
পিতা-মাতাস্ভান্তে থুনবের্গ
মালেনা এরম্যান
আত্মীয়ওলফ থুনবের্গ (দাদা)

গ্রেটা থুনবের্গ (জন্ম ২ জানুয়ারি ২০০৩) হলেন সুইডেনের একজন স্কুল শিক্ষার্থী যিনি ১৫ বছর বয়সে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় অবিলম্বে কার্যকর প্রদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সুইডেন সংসদরে বাইরে প্রতিবাদ শুরু করেন। তখন থেকে তিনি জলবায়ু কর্মী হিসেবে পরিচিতি পান।[১][২][৩][৪] ২০১৮ সালের নভেম্বরে তিনি জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় স্কুলে অবরোধের ডাক দে ন এবং একই বছর ডিসেম্বরে জাতিসংঘের জলবায়ু সম্মেলনের পর এই আন্দোলন আরও বেগবান হয়।[৫] ২০১৮ সালের আগস্টে তিনি ব্যক্তিগতভাবে এই প্রতিবাদ শুরু করেন এবং সেটি সে সময় মিডিয়াতে প্রচুর সাড়া ফেলে। ২০১৯ সালের ১৫ মার্চ ১১২টি দেশের আনুমানিক ১.৪ মিলিয়ন শিক্ষার্থী তার ডাপকে সাড়া দিয়ে জলবায়ু প্রতিবাদ কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করে।[৬]

থুনবের্গ তার এই কার্যক্রমের জন্য অনেক পুরস্কার ও সম্মাননা পেয়েছেন। ২০১৯ সালের মার্চে নরওয়ের তিন জন সংসদ সদস্য তাকে শান্তিতে নোবেল পুরস্কারের জন্য মনোনীত করে।[৭]

জীবনী[সম্পাদনা]

গ্রেটা থুনবের্গ ২০০৩ সালের ৩ জানুয়ারি জন্মগ্রহণ করেন।[৮] তার মাতা মালেনা এরম্যান হলেন একজন অপেরা শিল্পী এবং তার পিতা হলেন অভিনেতা স্ভান্তে থুনবের্গ। তার দাদা ওলফ থুনবের্গ একজন অভিনেতা ও পরিচালক ছিলেন।[৯]

২০১৮ সালের নভেম্বরে গ্রেটা প্রথম টিইডিএক্স আলোচনায় বলেন যে, তিনি আট বছর বয়সে প্রথম জলবায়ু পরিবর্তনের কথা শুনতে পান কিন্তু তিনি বুঝতে ব্যর্থ হন কেন এ বিষয়ে কোন পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি।[১০] ১১ বছর বয়সে তিনি হতাশ হয়ে পড়েন এবং কথা বলা বন্ধ করে দেন। পরবর্তীতে তাকে বেশ কিছুদিন চিকিৎসা দেওয়া হয়। তিনি তার আলোচনায় বলেন, তারা ডিসঅর্ডার গুলোর মধ্যে অন্যতম ছিল তিনি যখন প্রয়োজন শুধুমাত্র তখন কথা বলতেন।

তিনি বলেন, আমার অনেকটা এমন মনে হচ্ছিল যে, আমি যদি এটা সম্পর্কে প্রতিবাদ না করি তাহলে ভিতরে ভিতরে আমি মারা যাচ্ছিলাম। তার পিতা তারা বিদ্যালয়ে যাওয়া বন্ধ করাকে মেনে নিতে পারেননি কিন্তু তিনি বলেছিলেন, আমরা মেয়ে ঘরে বসে থাকতে পারে অখুশিভাবে অথবা সে বাইরে যেয়ে প্রতিবাদ করতে পারে যা সে চেয়েছিল।[১১] গ্রেটা কার্বনের প্রভাব কমাতে তার পরিবারের সব সদস্যকে ভেগানে পরিণত করেন ও বিমানে চরে ভ্রমণ বাদ দিতে বলেন। তিনি নিজেও এগুলো করেন না।[১২][১৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Proulx, Natalie (২০১৯-০২-২১)। "Learning With: 'Becoming Greta: "Invisible Girl" to Global Climate Activist, With Bumps Along the Way'"The New York Times (ইংরেজি ভাষায়)। আইএসএসএন 0362-4331। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-০১ 
  2. Watts, Jonathan (১১ মার্চ ২০১৯)। "Greta Thunberg, schoolgirl climate change warrior: 'Some people can let things go. I can't'"The Guardian। সংগ্রহের তারিখ ১১ মার্চ ২০১৯ 
  3. Cohen, Ilana; Heberle, Jacob (১৯ মার্চ ২০১৯)। "Youth Demand Climate Action in Global School Strike"Harvard Political Review। সংগ্রহের তারিখ ২২ মার্চ ২০১৯ 
  4. Lindgren, Emma (২ এপ্রিল ২০১৯)। "Greta Thunberg Wins German Award"Inside Scandinavian Business। সংগ্রহের তারিখ ৯ এপ্রিল ২০১৯ 
  5. Olsson, David (২৩ আগস্ট ২০১৮)। "This 15-year-old Girl Breaks Swedish Law for the Climate"Medium। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মার্চ ২০১৯ 
  6. Shabeer, Muhammed (১৬ মার্চ ২০১৯)। "Over 1 million students across the world join Global Climate Strike"Peoples Dispatch। সংগ্রহের তারিখ ২২ মার্চ ২০১৯ 
  7. Vaglanos, Alanna (১৪ মার্চ ২০১৯)। "16-Year-Old Climate Activist Greta Thunberg Nominated For Nobel Peace Prize"Huffington Post। সংগ্রহের তারিখ ২২ মার্চ ২০১৯ 
  8. Lobbe, Anne-Marie (১৩ ডিসেম্বর ২০১৮)। "À 15 ans, elle remet les dirigeants mondiaux à leur place!" (ফরাসি ভাষায়)। Sympatico। সংগ্রহের তারিখ ৩ জানুয়ারি ২০১৯ 
  9. Santiago, Ellyn (১৪ ডিসেম্বর ২০১৮)। "Greta Thunberg: 5 Fast Facts You Need to Know"Heavy.com। সংগ্রহের তারিখ ৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  10. Thunberg, Greta (১২ ডিসেম্বর ২০১৮)। School strike for climate – save the world by changing the rulesTEDxStockholm। Stockholm: TED। event occurs at 1:46। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জানুয়ারি ২০১৯I was diagnosed with Asperger's syndrom, OCD, and selective mutism. That basically means I only speak when I think it's necessary. Now is one of those moments… I think that in many ways, we autistic are the normal ones, and the rest of the people are pretty strange, especially when it comes to the sustainability crisis, where everyone keeps saying that climate change is an existential threat and the most important issue of all and yet they just carry on like before. 
  11. "The Swedish 15-year-old who's cutting class to fight the climate crisis"The Guardian। ১ সেপ্টেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২৯ এপ্রিল ২০১৯ 
  12. "Climate crusading schoolgirl Greta Thunberg pleads next generation's case"The Straits Times। ৫ ডিসেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২২ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  13. "Greta Thunberg, la paladina del clima: "Mamma non vuole ma salverò il pianeta""Repubblica.it (ইতালীয় ভাষায়)। ১১ মার্চ ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ১৯ এপ্রিল ২০১৯Ho smesso di usare l'aereo, ho smesso di mangiare carne e latticini