কে. এস. নবী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কে. এস. নবী
সাবেক অ্যার্টনি জেনারেল কে এস নবী.jpg
বাংলাদেশের অ্যাটর্নি জেনারেল
কাজের মেয়াদ
১৯৯৬ – ১৯৯৮
উত্তরসূরীমাহমুদুল ইসলাম
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম১৯৪১/১৯৪২
জাতীয়তাবাংলাদেশী
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশ আওয়ামী লীগ

কাজী শহীদুন নবী (কেএস নবী নামে পরিচিত) একজন বাংলাদেশী আইনজীবী যিনি ১৯৯৬ সাল থেকে ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশের অ্যাটর্নি জেনারেল হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন।[১]

জন্ম ও প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

কাজী শহীদুন নবীর জন্ম তার গ্রামের বাড়ি মুন্সীগঞ্জ জেলার শ্রীনগর থানার ষোলঘর এলাকার কাজী বাড়িতে।[১]

পেশা[সম্পাদনা]

কে. এস. নবীকে ১৯৬১ সালে লন্ডনের লিংকন ইন বারে থেকে ডেকে আনা হয়েছিল। [২] তিনি ঢাকা সেন্ট্রাল ল' কলেজের অনুষদ হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। ১৯৬৫ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সদস্যপদ গ্রহণ করেন। ১৯৮৬ সালে তিনি বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টে যোগ দেন।[৩]

১৯৯৬ সালে সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি মুন্সীগঞ্জ -১ আসনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী ছিলেন এবং একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর কাছে হেরেছিলেন। ১৯৯৬-১৯৯৮ সালে তিনি বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। [৪][৫]

১৯৯৯ সালে তিনি চলচ্চিত্র অভিনেতা সোহেল চৌধুরী হত্যার সাথে জড়িত, বিদেশে সরকারী গোপনতথ্য এবং দলিল সরবরাহ ও নারী পাচারের অভিযোগে বাংলাদেশী ব্যবসায়ী আজিজ মোহাম্মদ ভাই পুলিশ স্পেশাল ব্রাঞ্চ কর্তৃক গ্রেপ্তারের পরে তার আইনজীবী হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন।[৬]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

কে. এস. নবী বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের প্রাক্তন স্পিকার হুমায়ুন রশিদ চৌধুরীর কাজিনের ছেলে। [৭] তার বড় ছেলে কাজী রেহান নবী।[৮]

মৃত্যু[সম্পাদনা]

৮ জুলাই ২০১৮ সালে তিনি মারা যান। এরপর বনানী কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর। তিনি দুই ছেলে ও এক মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।[৮]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল কে এস নবীর ইন্তেকাল"jagonews24.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৮-১৮ 
  2. "Year of Call 1961"। Barristers' Association of Bangladesh। ২২ জুন ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  3. "সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল কে এস নবীর ইন্তেকাল"Jugantor। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৮-১৮ 
  4. "List Of Chairmen Of The Bangladesh Bar Council"। barcouncil.gov.bd। সংগ্রহের তারিখ ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  5. "কে এস নবী"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৮-১৮ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  6. "Police to probe movie moghul"The Daily Star। ৮ জানুয়ারি ১৯৯৯। সংগ্রহের তারিখ ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  7. Chowhdury, Zaglul (১৬ জুলাই ১৯৯৭)। "Kaiser Rasheed: A Tribute"The Daily Star (opinion)। সংগ্রহের তারিখ ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  8. BanglaNews24.com। "সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল কে এস নবীর ইন্তেকাল"banglanews24.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৮-১৮