কার্মেন আমায়া

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
কার্মেন আমায়া
জন্ম ২রা নভেম্বর, ১৯১৮
বার্সেলোনা
মৃত্যু ১৯শে নভেম্বর, ১৯৬৩
পেশা ফ্লামেঙ্গো নৃত্যশিল্পী
কার্যকাল ১৯২৩-১৯৫৩

কার্মেন আমায়া (২রা নভেম্বর, ১৯১৮[১] – ১৯শে নভেম্বর, ১৯৬৩) একজন রোমানি বংশোদ্ভূত ফ্লামেঙ্গো নৃত্যশিল্পী এবং গায়িকা। তিনি স্পেনের বার্সেলোনার সমোরোস্ট্রো বস্তিতে জন্মগ্রহণ করেন। উক্ত স্থানটি এখন অলিম্পিয়া গ্রাম

তাঁকে "তাঁর প্রজন্মের শ্রেষ্ঠ স্প্যানিশ জিপসি নর্তক"[২] এবং "ফ্লামেঙ্গো নাচে সর্বকালের শ্রেষ্ঠ ব্যক্তিত্ব" বলা হয়।[৩]

জীবন[সম্পাদনা]

তিনি গ্রানাডা, স্পেনের একটি গুহায় সর্বপ্রথম নাচেন।[৪]

তিনি পাঁচ বছর বয়স থেকেই নাচতেন। তাঁর পিতার গীটারের সাথে তিনি বার্সেলোনার বারে নাচতেন। সাবিকাস (অগাস্টিন ক্যাসেলোন ক্যাম্পোস) নামের একজন তরুণ তাঁকে নাচতে দেখে যিনি পরবর্তীতে বলেন, "আমি তাঁকে নাচতে দেখেছি এবং এটি আমার কাছে অতিপ্রাকৃতিক লেগেছিল... আমি কখনই কাউকে তাঁর মত নাচতে দেখিনি। আমি জানিনা কিভাবে সে এটা করেছিল, আমি সত্যিই জানি না!" সাবিকাস একজন বিখ্যাত গীটার বাদক হয়ে ওঠেন এবং বহু বছর আমায়ার সাথে ছিলেন।[৫] সে আমায়ার সাথে জিপসির রাণী (Queen of the Gypsies) [১৯৫৯] এবং ফ্লামেঙ্গো ধারণ করেন।

১৯২৯ সালে সে প্যারিসে বিখ্যাত স্প্যানিশ নর্তক র‍্যাকুয়েল মিলার-এর সাথে উষ্ণ অভ্যর্থনা এবং তাঁর নাচের দক্ষতার প্রশংসার সাথে কাজ শুরু করেন। এরপর তিনি ফোলিস বার্জারেতে কাজ করেন। তিনি বুয়েনস আয়ারসের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন যতদিন না সে মাদ্রিদ থেকে ডাক পাচ্ছিল। এরপর সে বুয়েনস আয়ারসের প্রস্তাবে রাজি হয় এবং তাঁর আঙ্কেল সেবস্টিয়ান, তাঁর পরিপার্শ্বের ১৬ জনের একজনের নিষেধ সত্ত্বেও সেখানে অনুষ্ঠান করে। আর্জেন্টিনার মানুষ এতটাই মুগ্ধ হত যে তাঁরা আমায়ার নামানুসারে একটি থিয়েটার নির্মাণ করে। এরপর সে দক্ষিণ আমেরিকা এরপর মেক্সিকোর দিকে দৃষ্টিপাত করে। সে এস. হুরক-এর সাথে চুক্তি করে, যিনি তাঁকে নিউ ইয়র্কে নিয়ে আসেন।[৬] এরপর ১৯৩৬ সালে তিনি আমেরিকা যান, সেখানে নানা চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন যেমনঃ রোমিও এবং জুলিয়েট, লস তারান্তোস এবং স্বল্পদৈর্ঘ্যের চলচ্চিত্র দাঞ্জাস গিতানাস (জিপসি নাচ)।

১৯৪৪ সালে ফ্রাঙ্কলিন রোসেভাল্ট তাঁকে হোয়াইট হাউসে অনুষ্ঠান করার আমন্ত্রণ জানান এবং হ্যারি এস. ট্রুম্যানও ১৯৫৩ সালে তাঁকে আমন্ত্রণ জানান।

তাঁর মৃত্যুর পর তাঁকে সিরিয়েগোর কবরখানায় দাফন করা হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Montse Madridejos, David Pérez Merinero (২০১৩)। Carmen Amaya। Barcelona: Edicions Bellaterra। আইএসবিএন 978-84-7290-636-5 
  2. Clarke, Mary & Crisp, Clement 1981. The history of dance. Orbis, London. p60
  3. Clarke, Mary & Vaughan, David 1977. The encyclopedia of dance & ballet. Pitman, London. p316
  4. Herbert Kadison. "Flamenco Firebrand." Greenwich Village Chatter II:11 (October, 1946), 5-7.
  5. Sevilla, Paco 1999. Queen of the gypsies: the life and legend of Carmen Amaya. Sevilla Press. Excerpt by Flamenco-world.com: [১]
  6. (Kadison, 6)

গ্রন্থবিবরণী[সম্পাদনা]

  • Madridejos Mora, Montserrat y David Pérez Merinero (২০১৩), Carmen Amaya। বার্সেলোনা: Edicions Bellaterra.
  • Madridejos Mora, Montserrat (২০১২). El flamenco en la Barcelona de la Exposición Internacional (১৯২৯-১৯৩০). বার্সেলোনা: Edicions Bellaterra।
  • Hidalgo Gómez, ফ্রান্সিসকো (২০১০). Carmen Amaya. La biografía. বার্সেলোনা: Ediciones Carena.
  • Pujol Baulenas, Jordi y Carlos García de Olalla (২০০৩). Carmen Amaya. El mar me enseñó a bailar। বার্সেলোনা: Almendra Music.
  • Sevilla, Paco (১৯৯৯). Queen of the gypsies. The Life and legend of Carmen Amaya। স্যান ডিয়েগো, EE.UU: Sevilla Press.
  • Bois, Mario (১৯৯৪). Carmen Amaya o la danza del fuego. মাদ্রিদ: Espasa Calpe.
  • Montañés, Salvador (১৯৬৩). Carmen Amaya. La bailaora genial. বার্সেলোনা: Ediciones G.P.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]