কামালউদ্দিন হোসেন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মাননীয় প্রধান বিচারপতি
কামালউদ্দিন হোসেন
বাংলাদেশের প্রধান বিচারপতি
কাজের মেয়াদ
১ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৮ – ১১ এপ্রিল ১৯৮২
পূর্বসূরীবিচারপতি সৈয়দ এ. বি. মাহমুদ হোসেন
উত্তরসূরীবিচারপতি এফ. কে. এম. এ মুনিম
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম৩১ মার্চ ১৯২৩
কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ, ব্রিটিশ রাজ (বর্তমান: ভারত)
মৃত্যু২১ আগস্ট ২০১৩
ঢাকা, বাংলাদেশ
নাগরিকত্ব বাংলাদেশ
জাতীয়তাবাংলাদেশী
সন্তানইজাজ হোসেন[১]
ইশতিয়াক হোসেন[১]
বাসস্থানঢাকা
পেশাআইন
জীবিকাআইনবিদ
ধর্মইসলাম

বিচারপতি কামালউদ্দিন হোসেন (৩১ মার্চ ১৯২৩ - ২১ আগস্ট ২০১৩) বাংলাদেশের একজন প্রখ্যাত আইনবিদ এবং ৩য় প্রধান বিচারপতি। তিনি বাংলাদেশ আইন সংস্কার কমিটির প্রথম চেয়ারম্যান হিসাবেও দায়িত্ব পালন করেন।[২]

জন্ম ও পারিবারিক পরিচিতি[সম্পাদনা]

কামালউদ্দিন হোসেন ১৯২৩ সালের ৩১ মার্চ তারিখে ব্রিটিশ ভারতের কলকাতায় জন্মগ্রহণ করেন।[৩]

শিক্ষাজীবন[সম্পাদনা]

কামালউদ্দিন হোসেন ১৯৪৫ সালে কলকাতা থেকে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন।[৩]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

কামালউদ্দিন হোসেন ১৯৬৮ সালে পূর্ব পাকিস্তান হাইকোর্টে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল হিসাবে এবং ১৯৬৯ সালে হাইকোর্ট বিভাগের বিচারক হিসাবে নিয়োগ পান।[১][৪]

১৯৭৪ সালে বাংলাদেশ আইন সংস্কার কমিটি গঠিত হলে বিচারপতি কামালউদ্দিন হোসেন সেটির প্রথম চেয়ারম্যান হিসাবে নিয়োগ লাভ করেন।[৫]

১৯৭৮ সালের ৩১ জানুয়ারি তারিখে বিচারপতি সৈয়দ এ. বি. মাহমুদ হোসেনের অবসর গ্রহণের প্রেক্ষিতে বাংলাদেশের মহামান্য রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশের ৩য় প্রধান বিচারপতি হিসাবে কামালউদ্দিন হোসেনকে নিয়োগ প্রদান করেন এবং তিনি ১৯৭৮ সালের ১ ফেব্রুয়ারি তারিখে প্রধান বিচারপতি হিসাবে শপথ গ্রহণ করেন[৬]১৯৮২ সালের ১১ এপ্রিল তারিখে তত্কালীন সামরিক সরকার তাকে প্রধান বিচারপতির পদ হতে জোর পূর্বক অপসারণ করে।[৩]

তিনি ১৯৯৮ সালে বাংলাদেশ আইন কমিশনের চেয়ারম্যান হন এবং ২০০১ সালে উক্ত পদ হতে অবসরে গ্রহণ করেন।[৩][৪]

রচনাবলী[সম্পাদনা]

পুরস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

মৃত্যু[সম্পাদনা]

ক্যান্সারে আক্রান্ত[৭] হয়ে বিচারপতি কামালউদ্দিন চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২০১৩ সালের ২১ আগস্ট বুধবার ভোর ৪টা ৫৫ মিনিটে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে ৯০ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন।[৪]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহি:সংযোগ[সম্পাদনা]