কাজী আব্দুল কাদের

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কাজী আব্দুল কাদের
পূর্ব পাকিস্তানের
খাদ্য ও কৃষি মন্ত্রী
জাতীয় সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
ফেব্রুয়ারি ১৯৭৯ – মার্চ ১৯৮২
পূর্বসূরীজনাব আলী উকিল[১]
উত্তরসূরীশফিকুল গনি স্বপন
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম১৯১৪
Rangpur, Bengal Presidency, British India
মৃত্যু০২ অক্টোবর ২০০২ (বয়স ৮৮)
Dhaka, Bangladesh
নাগরিকত্ব ব্রিটিশ ভারত (১৯৪৭ সাল পর্যন্ত)
 পাকিস্তান (১৯৭১ সালের পূর্বে)
 বাংলাদেশ
জাতীয়তাব্রিটিশ ভারতীয় (1914–1947)
পাকিস্তানী (1947–1971)
বাংলাদেশী (1971-2002)
রাজনৈতিক দলকনভেনশন মুসলিম লীগ
দাম্পত্য সঙ্গীনওয়াবজাদী কানিজ ফাতেমা
সন্তানকাজী ফারুক কাদের
পেশারাজনীতিবিদ

কাজী আব্দুল কাদের (১৯১৪-২০০২) ছিলেন পাকিস্তানী পরে বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ। তিনি পূর্ব পাকিস্তান আইন পরিষদ ও বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ উভেয়ের সদস্য ছিলেন। ১৯৭১ সালের বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে সময় নীলফামারীর কালীগঞ্জ গণহত্যার পেছনে তার হাত ছিল।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

কাদের ১৯১৪ সালে ব্রিটিশ ভারতের রংপুরে জন্মগ্রহণ করেন।

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে[সম্পাদনা]

কাজী কাদের প্রকাশ্যে পাকিস্তান সেনাবাহিনীকে সমর্থন ও সহায়তা করেন। নীলফামারী জেলার জলঢাকা উপজেলার কালীগঞ্জ নামক স্থানে ১৯৭১ সালে যে গণহত্যা হয় তার পেছনে তিনি সরাসরি জরিত ছিলেন বলে অনেকে মনে করে, যা পাকিস্তান সেনাবাহিনী কর্তৃক ১৭ এপ্রিল ১৯৭১ সালে সংঘটিত হয় এবং এতে প্রায় ৩০০ নিরীহ বাঙালীকে হত্যা করা হয়েছিলো।[২]

রাজনৈতিক জীবন[সম্পাদনা]

কাজী আব্দুল কাদের পূর্ব পাকিস্তান সরকারের কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। তিনি কনভেনশন মুসলিম লীগের নেতা হিসেবে পূর্ব পাকিস্তান সরকারের খাদ্য ও কৃষি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

কাদের ১৯৭৯ সালে বাংলাদেশের ২য় জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মুসলিম লীগের মনোনয়নে অংশগ্রহণ করেন। তিনি রংপুর-৩ আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেন এবং বিজয়ী হন।[৩] তিনি ১৯৯১ সালের ৫ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পুনরায় মুসলিম লীগের মনোনয়নে অংশগ্রহণ করেন। তিনি নীলফামারী-৩ (সাবেক রংপুর-৪ আসন) আসনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেন এবং ৪,৮৩৪ ভোট (মোট ভোটের ৪.৩৪%) পেয়ে পঞ্চম স্থান অর্জন করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "List of 1st Parliament Members"www.parliament.gov.bd। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০২-০৩ 
  2. "'No vote' campaign against anti-liberation elements"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ৮ ডিসেম্বর ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মার্চ ২০১৮ 
  3. "List of 2nd Parliament Members"www.parliament.gov.bd। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০২-০৩