ওসাকা প্রশাসনিক অঞ্চল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
ওসাকা প্রশাসনিক অঞ্চল
大阪府
প্রশাসনিক অঞ্চল
জাপানি প্রতিলিপি
 • জাপানি 大阪府
 • রোমাজি Ōsaka-fu
ওসাকা প্রশাসনিক অঞ্চল পতাকা
পতাকা
ওসাকা প্রশাসনিক অঞ্চল অফিসিয়াল লোগো
ওসাকা প্রশাসনিক অঞ্চলের প্রতীক
ওসাকা প্রশাসনিক অঞ্চল অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ৩৪°৪১′১১″ উত্তর ১৩৫°৩১′১২″ পূর্ব / ৩৪.৬৮৬৩৯° উত্তর ১৩৫.৫২০০০° পূর্ব / 34.68639; 135.52000স্থানাঙ্ক: ৩৪°৪১′১১″ উত্তর ১৩৫°৩১′১২″ পূর্ব / ৩৪.৬৮৬৩৯° উত্তর ১৩৫.৫২০০০° পূর্ব / 34.68639; 135.52000
দেশ জাপান
অঞ্চল কান্‌সাই
দ্বীপ হোনশু
রাজধানী ওসাকা
আয়তন
 • মোট ১৮৯৯.২৮ কিমি (৭৩৩.৩২ বর্গমাইল)
এলাকার ক্রম ৪৬তম
জনসংখ্যা (১লা জানুয়ারি ২০১২)
 • মোট ৮৮,৬৪,২২৮
 • ক্রম ৩য়
 • ঘনত্ব ৪৭০০/কিমি (১২০০০/বর্গমাইল)
আইএসও ৩১৬৬ কোড JP-27
জেলা
পৌরসভা ৪৩
ফুল জাপানি অ্যাপ্রিকট (প্রুনাস মুমে)
প্রিম্‌রোজ (প্রিমুলা সিয়েবোল্ডিয়াই)
গাছ গিংকো গাছ (গিংকো বাইলোবা)
পাখি ষাঁড়মুখো শ্রাইক (লানিয়াস বুসিফ্যালাস)
ওয়েবসাইট www.pref.osaka.jp/en/index.html

ওসাকা প্রশাসনিক অঞ্চল (大阪府? ওসাকা ফু) হল জাপানের মূল দ্বীপ হোনশুর কান্‌সাই অঞ্চলের অন্তর্গত একটি প্রশাসনিক অঞ্চল[১] এর রাজধানী ওসাকা নগর ওসাকা-কোবে-কিয়োতো মহানগর অঞ্চলের কেন্দ্র।[২] ওসাকা জাপানের দুটি নগর প্রশাসনিক অঞ্চলের অন্যতর।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

মেইজি পুনর্গঠনের আগে পর্যন্ত ওসাকা প্রশাসনিক অঞ্চলটি কাওয়াচি, ইযুমি[৩][৪] ও সেৎৎসু প্রদেশে বিভক্ত ছিল।[৫]

সাকাই সিটি হল।

মেইজি যুগের একেবারে আরম্ভে ১৮৬৮ খ্রিঃ ২১শে জুন ওসাকা প্রশাসনিক অঞ্চল গঠিত হয়।[৬] ফুহাংকেন সাঞ্চিসেই প্রশাসনে এর নামে নগরসূচক ফু অনুসর্গটি যুক্ত হয়।

১৯৫৬ খ্রিঃ ১লা সেপ্টেম্বর ওসাকা নগর সরকারী অধ্যাদেশের দ্বারা মনোনীত নগরের মর্যাদা পায় ও ২৪ টি ওয়ার্ডে বিভক্ত হয়।

২০০০ খ্রিঃ পূর্বতন গভর্নর নক য়োকোয়্যামা যৌন নিগ্রহ কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত হয়ে পদত্যাগ করলে তাঁর স্থানে আসেন ফুসায়ে ওতা, জাপানের প্রথম মহিলা গভর্নর।[৭]

২০০৬ এর ১লা এপ্রিল সাকাই নগর সরকারী অধ্যাদেশের দ্বারা মনোনীত নগরের মর্যাদা পায় ও ৭ টি ওয়ার্ডে বিভক্ত হয়।

২০০৮ এ টেলিভিশন উপদেষ্টা তোওরু হাশিমোতো ৩৮ বছর বয়সে জাপানের কনিষ্ঠতম গভর্নর হিসেবে স্থলাভিষিক্ত হন।

সংস্কার[সম্পাদনা]

২০১০ এ গভর্নর তোওরু হাশিমোতো ওসাকা প্রশাসনিক অঞ্চলকে ওসাকা মহানগর অঞ্চলে উন্নীত করার জন্য ওসাকা পুনর্গঠন সমিতি নির্মাণ করেন। এর উদ্দেশ্য ছিল ওসাকা প্রশাসনিক অঞ্চল ও ওসাকা নগরের আলাদা আলাদা অধিগৃহীত প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা কমানো। ২০১১ তে এই সমিতি স্থানীয় নির্বাচনে ওসাকার অধিকাংশ আসন জয় করে। কিন্তু ২০১৫ গণভোটে এদের প্রস্তাবটি সূক্ষ্ম ব্যবধানে পরাস্ত হয় (৪৯.৬২% হ্যাঁ, ৫০.৩৮% না)।

ভূগোল[সম্পাদনা]

আকাশ থেকে দৃষ্ট কান্‌সাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর।

ওসাকা প্রশাসনিক অঞ্চলের উত্তরে রয়েছে হিয়োগোকিয়োতো প্রশাসনিক অঞ্চল, পূর্বে নারা ও দক্ষিণে ওয়াকায়ামা প্রশাসনিক অঞ্চল। পশ্চিম দিক ওসাকা উপসাগরের উপকূলবর্তী। য়োদো ও য়ামাতো নদী ওসাকার মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হয়।

কান্‌সাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর নির্মাণের আগে পর্যন্ত ওসাকা ছিল জাপানের ক্ষুদ্রতম প্রশাসনিক অঞ্চল। এই বিমানবন্দরটি যে কৃত্রিম দ্বীপের উপর নির্মিত তার সংযোজনে ওসাকা, কাগাওয়া প্রশাসনিক অঞ্চলের চেয়ে একটু বড় আয়তন লাভ করেছে।[৮][৯]

২০১২ এর এপ্রিল মাসের হিসেব অনুযায়ী ওসাকা প্রশাসনিক অঞ্চলের ১১ শতাংশ এলাকা সংরক্ষিত বনাঞ্চল। এর মধ্যে আছে কোঙ্গোও-ইকোমা-কিসেন ও মেইজি নো মোরি মিনোও উপ-জাতীয় উদ্যান এবং হোকুসেৎসু ও হান্নান-মিসাকি প্রশাসনিক আঞ্চলিক উদ্যান।[১০]

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

প্যানাসোনিক সেন্টার, ওসাকা।

২০০৪ অর্থবর্ষে ওসাকা প্রশাসনিক অঞ্চলের মোট উৎপাদনের পরিমাণ ছিল ৩৮.৭ ট্রিলিয়ন ইয়েন, কেবলমাত্র টোকিওর পরেই। এই পরিমাণ পূর্ববর্তী অর্থবর্ষের তুলনায় ০.৯% বৃদ্ধিসূচক এবং সমগ্র কান্‌সাই অঞ্চলের প্রায় ৪৮%। মাথাপিছু আয় ছিল ৩০ লক্ষ ইয়েন, যা দেশের মধ্যে সপ্তম।[১১]

প্যানাসোনিক, শার্প প্রভৃতি অতিবৃহৎ আন্তর্জাতিক বৈদ্যুতীন কোম্পানির পাশে ওসাকার অর্থনীতির অপর দিকটিকে চেনা যায় ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোগ বা এসএমই-এর কার্যকলাপের মধ্যে। ২০০৬ তে ওসাকায় অধিষ্ঠিত এসএমই-র মোট সংখ্যা ছিল ৩,৩০,৭৩৭ টি, যা সমগ্র প্রশাসনিক অঞ্চলের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের ৯৯.৬%।[১২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Nussbaum, Louis-Frédéric. (2005). "Osaka-fu" in গুগল বইয়ে Japan Encyclopedia, p. 759, পৃ. 759,; "Kansai" in গুগল বইয়ে p. 477, পৃ. 477,
  2. Nussbaum, "Osaka" in গুগল বইয়ে p. 759, পৃ. 759,
  3. 大阪府教育委員会 (২০০২-০৩-২৯)। "岸和田城跡"Comprehensive Database of Archaeological Site Reports in Japan। সংগৃহীত ২০১৬-০৯-০২ 
  4. 泉南市教育委員会 (১৯৮৭-০৯-২১)। "海会寺"Comprehensive Database of Archaeological Site Reports in Japan। সংগৃহীত ২০১৬-০৯-০২ 
  5. Nussbaum, "Provinces and prefectures" in গুগল বইয়ে p. 780, পৃ. 780,
  6. "大阪のあゆみ (History of Osaka)" (Japanese ভাষায়)। সংগৃহীত ২০০৭-০৩-১২ The creation of Osaka prefecture took place slight earlier than many other prefectures, that had to wait for abolition of the han system in 1871.
  7. Tolbert, Kathryn. "Election of First Female Governor Boosts Japan's Ruling Party", The Washington Post, February 8, 2000.
  8. "平成10年全国都道府県市区町村の面積の公表について(Official announcement on the national territory and area of 1998, by prefectures, cities, districts, towns and villages)", Geographical Survey Institute, Government of Japan, January 29, 1999.
  9. "コラム Vol.017 全国都道府県市区町村面積調 (Column: "National Area Investigation" vol.017)", Alps Mapping K.K., March 8, 2001.
  10. "General overview of area figures for Natural Parks by prefecture"Ministry of the Environment। সংগৃহীত ৯ আগস্ট ২০১২ 
  11. "平成16年度の県民経済計算について (Prefectural Economy for the fiscal year 2004 based on 93SNA) Cabinet Office, Government of Japan" (Japanese ভাষায়)। আসল থেকে ২০০৭-০৬-১৪-এ আর্কাইভ করা। সংগৃহীত ২০০৭-০৩-১৩ 
  12. "2006 White Paper on Small and Medium Enterprises in Japan, Japan Small Business Research Institute (Japan)"। সংগৃহীত ২০০৭-০৩-১৩