এম আবদুস সোবহান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
এম আব্দুস সোবহান
প্রফেসর ড. আব্দুস সোবাহান.jpg
জন্ম
পেশাঅধ্যাপক, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়
নিয়োগকারীরাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়
পরিচিতির কারণরাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসি ও বিশিষ্ট ফলিত পদার্থবিজ্ঞানী
উপাধিরাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য
মেয়াদ৭ই মে, ২০১৭ - ৬ই মে, ২০২১

প্রফেসর ড. এম আব্দুস সোবহান রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৩ তম উপাচার্য। তিনি ফলিত পদার্থবিজ্ঞান ও ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষক। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথমবারের মত দুইবার উপাচার্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন।[১]

জন্ম[সম্পাদনা]

এম আব্দুস সোবহান ১৯৫৩ সালে বাংলাদেশের নাটোর জেলায় জন্মগ্রহণ করেন।[২]

শিক্ষাজীবন[সম্পাদনা]

এম আব্দুস সোবহান রাজশাহী বোর্ডের অধীনে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত পদার্থবিজ্ঞান (বর্তমানে বিভাগের নাম ইলেক্ট্রিকাল ও ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং [৩]) বিভাগে ভর্তি হন। ১৯৭৪ সালে উক্ত বিভাগ থেকে বিএসসি অনার্স পাশ করেন এবং ১৯৭৫ সালে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত পদার্থবিজ্ঞান ও ইলেক্ট্রনিক (নাম পরিবর্তন হওয়ার পর) বিভাগ থেকে এমএসসি পাশ করেন।

উচ্চশিক্ষা[সম্পাদনা]

উচ্চশিক্ষা অর্জনের জন্য এম আব্দুস সোবহান অস্ট্রেলিয়ায় গমন করেন। তিনি অস্ট্রেলিয়ার নিউ-ক্যাসেল বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকোত্তর পর্যায়ে গবেষণার জন্য বৃত্তিপ্রাপ্ত হয়েছিলেন। ১৯৯২ সালে উক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রী লাভ করেন। তার পিএইচডির বিষয় ছিলো Surface Physics

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

১৯৭৯ সালে তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত পদার্থবিজ্ঞান ও ইলেক্ট্রনিক বিভাগের ( তৎকালীন নাম) প্রভাষক পদে যোগদান করেন। ১৯৯৭ সালে তার অধ্যাপক পদে পদন্নোতি হয়। তিনি উক্ত বিভাগে ২০০১ সাল থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত বিভাগীয় প্রধান হিসেবে দায়িত্বপালন করেছেন। এছাড়াও তিনি উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন প্রশাসনিক পদে দায়িত্বপালন করেছেন। যেমন: হাউজ টিউটর, সিনেট সদস্য, সিন্ডিকেট সদস্য, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ইত্যাদি।[৪]

উপাচার্য পদে নিয়োগ[সম্পাদনা]

এম আব্দুস সোবহান ২০১৭ সালের ৭ই মে তিনি দ্বিতীয় বারের মত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পেয়েছিলেন। ২০২১ সালের ৬ মে তিনি অবসরে যান।[৫] এর আগে ২০০৯ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ২০১৩ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত প্রথম মেয়াদে ভিসি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

গবেষণা[সম্পাদনা]

এম আব্দুস সোবহান সারফেস ফিজিক্স, সৌরশক্তি, থিন ফিল্ম ইত্যাদি বিষয়ে গবেষণা করেন। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সাময়িকীতে তার লিখিত গবেষণামূলক নিবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে।

সমালোচনা[সম্পাদনা]

আবদুস সোবহান ভিসি থাকাকালীন ২ মেয়াদেই তার বিরুদ্ধে অবৈধ জনবল নিয়োগে, অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগ উঠে।[৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "দ্বিতীয় মেয়াদে রাবি'র ভিসি আব্দুস সোবহান"Bangla Tribune (Bangla ভাষায়)। Bangladesh। ২০১৭-০৫-০৭। ২০১৭-০৫-১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৫-০৭ 
  2. "Profiles"। Golden Jubilee and Reunion 2016 (Text): 24। ২০১৬-১২-২৫। 
  3. রাবির ফলিত পদার্থ ও ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগকে একীভূতকরণ[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  4. "অনিয়মের প্রতিবাদী আবদুস সোবহান উপাচার্য হয়ে যেভাবে অনিয়মে জড়ালেন"। ২০২১-০৫-১০। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৫-১০ 
  5. "পুলিশ প্রটোকলে ক্যাম্পাস ছাড়লেন রাবি ভিসি" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৫-০৮ 
  6. "উপাচার্যের শেষ দিনের নিয়োগ অবৈধ: মন্ত্রণালয়"। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৫-০৮