উজ্জ্বল দিন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
পূর্ণিমার চাঁদ, নরওয়েতে

আইয়ামুল বিজ বা উজ্জ্বল দিন প্রতিটি মাসের নির্দিষ্ট কয়েকটি দিন।এই দিনগুলোর মাহাত্ম্যে নবি মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম থেকে কিছু হাদিস বর্ণিত আছে। এই দিনগুলি হিজরী বছরের প্রতিটি মাসের তেরো, চৌদ্দ এবং পনেরো তারিখ। এই তারিখের রাতগুলো চন্দ্রের আলোয় বেশি উজ্জ্বল থাকে; তাই এই নামে নামকরণ। কেননা এই রাতগুলোতে চাঁদ পরিপুর্ণ পূর্ণিমা পায়। ফলে এই রাতগুলোতে চাঁদকে দেখা যায় খালি চোখে, প্রচ্ছন্ন অবয়বে। এই দিনগুলোকে আইয়ামুল গুর (আলোকিত দিন)ও বলা হয়। [১]

আইয়ামে বিজের রোজার ফজিলত[সম্পাদনা]

প্রতি চন্দ্র মাসে তিনটি রোজা রাখা মুস্তাহাব। এর জন্য উত্তম হলো আইয়ামে বিজ তথা প্রতি মাসের তের, চৌদ্দ ও পনেরোতম দিন নির্বাচন করা।এই দিবসগুলোর রাত পূর্ণ চাঁদে উদভাসিত থাকে এবং রাতগুলো হয় আলোময়; তাই এই নামে নামকরণ। এই রোজার সওয়াব হচ্ছে পূর্ণ বছর অর্থাৎ বছরের প্রতিটি দিন রোজা রাখার সওয়াব। কেননা “একটি আমলে দশগুণ পূণ্য” এই নীতির ভিত্তিতে প্রতি মাসে তিন দিন রোজা রাখার দ্বারা পূর্ণ মাস রোজা রাখার সওয়াব লাভ হচ্ছে এবং এই পূর্ণ মাসের রোজায় ভাঙা বা বিনষ্ট হওয়ার প্রতিবন্ধকতাও নেই। এর প্রমাণ আবু যার রা. এর হাদিস। তিনি বর্ণনা করেন: হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তাকে বলেছেন: “তুমি যদি মাসে তিনটি রোজা রাখতে চাও, তাহলে তারিখের তেরোতম, চৌদ্দতম এবং পনেরোতম দিনে রোজা রাখবে। [২] এই রোজার পুরষ্কারে নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম থেকে বর্ণিত, তিনি বলেছেন: মাসে তিন দিন রোজা রাখ। প্রতিটি নেক আমলে দশগুণ সওয়াব; ফলে পূর্ণ বছর রোজার সওয়াব পাবে।[৩] এটাও বর্ণিত যে, নবিজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম প্রতি মাসে তিনদিন রোজা রাখতেন। [৪]

নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম থেকে আরো হাদিস রয়েছে। যেগুলি দ্বারা আইয়ামে বিজে রোজা রাখার ফজিলত নিশ্চিত হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "www.amrkhalid.com عمرو خالد:فضل صيام الأيام البيض-إطلع عليه بتاريخ 5 أبريل 2019-"। ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ এপ্রিল ২০২০ 
  2. رواه الترمذي وحسنه، والنسائي وابن حبان في صحيحه، وأحمد (نيل الأوطار: 252/4 وما بعدها، سبل السلام: 168/2).
  3. متفق عليه - رواه البخاري ومسلم في صحيحيهما
  4. رواه أصحاب السنن وصححه ابن خزيمة من حديث ابن مسعود، وأخرج مسلم من حديث عائشة «كان رسول الله صلّى الله عليه وسلم يصوم من كل شهر ثلاثة أيام، ما يبالي في أي الشهر صام» (سبل السلام: 168/2).
  5. wwww.library.islamweb.com-سنن النسائي الصغرى/كتاب الصيام ( رقم الحديث: 2394)-إطلع عليه بتاريخ 5 أبريل 2019 ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২০১৭-০৩-০৮ তারিখে
  6. wwww.library.islamweb.com-سنن النسائي الصغرى/كتاب الصيام ( رقم الحديث: 2394)-إطلع عليه بتاريخ 5 أبريل 2019 ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২০১৭-০৩-০৮ তারিখে
  7. "صيــام الأيـــام البــيـــض كصيام الدهر كله - البوابة الدينية"। ২৩ জুলাই ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ এপ্রিল ২০২০ 
  8. "www.islam.library.com_سنن النسائي الصغرى/كتاب الصيام (رقم الحديث:2391)_إطلع عليه بتاريخ 5 أبريل 2019"। ৮ মার্চ ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ এপ্রিল ২০২০