উইকি লাভস মনুমেন্টস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
উইকি লাভস মনুমেন্টস
LUSITANA WLM 2011 d.svg
উইকি লাভস মনুমেন্টের অফিশিয়াল লোগো
Participating Countries WLM 2016.svg
উইকি লাভস মনুমেন্টস ২০১৬-এ অংশগ্রহণকারী দেশসমূহ
ধরণআলোকচিত্র
আরম্ভ১ সেপ্টেম্বর[১]
সমাপ্তি৩০ সেপ্টেম্বর[১]
অবস্থান (সমূহ)বিশ্বব্যাপী
কার্যকাল
প্রবর্তিত২০১০
অতি সাম্প্রতিক২০১৫
অংশগ্রহণকারীআলোকচিত্রশিল্পী
আয়োজন বরেছেউইকিপিডিয়া সম্প্রদায়ের সসদস্যগণ
ওয়েবসাইট
wikilovesmonuments.org

উইকি লাভস মনুমেন্টস বা উইকি ভালোবাসে স্মৃতিস্তম্ভ (ইংরেজি: Wiki Loves Monuments; সংক্ষেপে WLM) হল সেপ্টেম্বর মাসে অণুষ্ঠিত সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যবাহী স্মৃতিস্তম্ভের জন্য একটি বার্ষিক আন্তর্জাতিক আলোকচিত্র প্রতিযোগিতা। এটি উইকিমিডিয়া অধ্যায়, উইকিপিডিয়া সম্প্রদায়ের সদস্য ও স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকদের দ্বারা বিশ্বব্যাপী আয়োজন করা হয়। অংশগ্রহণকারীরা নিজ-নিজ অঞ্চলের স্থানীয় ঐতিহাসিক স্থাপনা এবং ঐতিহ্যবাহী স্থানসমূহের ছবি তুলে, এবং পরে তা উইকিমিডিয়া কমন্সে আপলোড করে। এই ইভেন্টের লক্ষ্য হল অংশগ্রহণকারী দেশের ঐতিহ্যবাহী স্থানসমূহ তুলে ধরা ও সেই সাথে এই সকল স্থাপনার ছবি তুলতে উৎসাহিত করা, এবং তাদের মুক্ত লাইসেন্স অধীনে প্রকাশ করা যা শুধু উইকিপিডিয়ায় নয়, পরবর্তীতে যে কোন স্থানে যে কারো দ্বারা পুনরায় ব্যবহার করা যাবে।

প্রথম উইকি লাভস মনুমেন্টস প্রতিযোগিতা পাইলট প্রকল্প হিসেবে নেদারল্যান্ডে ২০১০ সালে অনুষ্ঠিত হয়। পরবর্তী বছর এটি ইউরোপের অন্যান্য দেশে ছড়িয়ে পড়ে এবং গিনেজ রেকর্ডের বই অনুযায়ী, এই প্রতিযোগিতার ২০১১ সালের সংস্করণটি সবচেয়ে বড় আলোকচিত্র প্রতিযোগিতার বিশ্ব রেকর্ড ভাঙে।[২] ২০১২ সালে, প্রতিযোগিতায় ৩৫টি দেশ অংশগ্রহণ করে যা ইউরোপের বাইরেও ছড়িয়ে পড়ে।[৩] উইকি লাভস মনুমেন্টস ২০১২'র সময়, ১৫,০০০ জন অংশগ্রহণকারী কর্তৃক ৩,৫০,০০০ টির অধিক ঐতিহাসিক স্থাপনার আলোকচিত্র আপলোড করা হয়। ২০১৩ সালে, উইকি লাভস মনুমেন্টস প্রতিযোগিতা এন্টার্কটিকাসহ ছয়টি মহাদেশে অনুষ্ঠিত হয় এবং বিশ্বজুড়ে পঞ্চাশটিরও বেশি দেশ এতে অংশগ্রহণ করে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ইনফোগ্রাফির মাধ্যমে প্রকৃত চিত্রগ্রহনের কর্মপ্রবাহ দেখানো হচ্ছে।

উইকি লাভস মনুমেন্টস হল উইকি লাভস আর্ট প্রতিযোগিতার উত্তরসূরী, যা ২০০৯ সালে নেদারল্যান্ডে প্রথম অণুষ্ঠিত হয়। মূল উইকি লাভস মনুমেন্টস প্রতিযোগিতা Rijksmonument (ওলন্দাজ "জাতীয় স্মৃতিস্তম্ভ") আলোকচিত্রীদের ওলন্দাজের জাতীয় ঐতিহ্যবাহী স্থানসমূহ অন্বেষণে উৎসাহী করে তোলে।

এই সাফল্যে অন্যান্য ইউরোপীয় দেশ উৎসাহী হয়, এবং ইউরোপীয় হেরিটেজ দিবসের সাথে একটি সহযোগিতার মাধ্যমে, স্থানীয় উইকিমিডিয়া অধ্যায়ের সাহায্যে ১৮টি দেশ ২০১১ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে, যার উপসংহার হিসেবে প্রায় ১,৭০,০০টি ছবি আপলোড করা হয়। গিনেজ রেকর্ডের বই উইকি লাভস মনুমেন্টসকে সবচেয়ে বড় আলোকচিত্র প্রতিযোগিতার বিশ্ব রেকর্ড হিসেবে স্বীকৃতি দেয় যেখানে ৫,০০০ জন অংশগ্রহণকারী উইকিমিডিয়া কমন্সে ১,৬৮,২০৪টির ছবি আপলোড করে। সব মিলিয়ে, ১,৭১,০০০টি আলোকচিত্র ইউরোপের ১৮টি অংশগ্রহণকারী দেশ থেকে আপলোড করা হয়। জার্মানি, ফ্রান্স এবং স্পেন সর্বোচ্চ সংখ্যক আলোকচিত্র অবদান রাখে। প্রতিযোগিতার ২০১১ সালের সংস্করণে রোমানিয়া থেকে ছবি প্রথম আন্তর্জাতিক পুরস্কার জিতে, অন্যদিকে এস্তোনিয়া দ্বিতীয় এবং জার্মানি তৃতীয় স্থান দখল করে।

২০১২ সালে, উইকি লাভস মনুমেন্টস প্রতিযোগিতায় ত্রিশটির অধিক দেশ এবং সারা বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলের অফিসিয়াল অংশগ্রহণ ছিল: যার মধ্যে রয়েছে কাতালোনিয়ায়, আর্জেন্টিনা, অস্ট্রিয়া, বেলারুস, বেলজিয়াম, কানাডা, চিলি, কলম্বিয়া, চেক প্রজাতন্ত্র, ডেনমার্ক, এস্তোনিয়া, ফ্রান্স, জার্মানি, ঘানা, ভারত, ইস্রায়েল, ইতালি, কেনিয়া, লুক্সেমবার্গ, মেক্সিকো, নেদারল্যান্ড, নরওয়ে, পানামা, এ্যান্ডোরা , ফিলিপাইন, পোল্যান্ড, রোমানিয়া, রাশিয়া, সার্বিয়া, স্লোভাকিয়া, স্পেন, দক্ষিণ আফ্রিকা, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড, ইউক্রেন, এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এতে ৩৫টি অংশগ্রহণকারী দেশ থেকে সর্বমোট ৩,৬৩,০০০টি ছবি আপলোড করা হয়। জার্মানি, স্পেন এবং পোল্যান্ড সর্বোচ্চ সংখ্যাক আলোকচিত্র আপলোড করার দ্বারা অবদান রাখে। ভারতের দিল্লি থেকে সাফদারজুংয়ের সমাধি একটি ছবি প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হয় যা ৩,৫০,০০০ জনের বেশি অবদানকারী দেখেছিল। বার্ষিক উইকি লাভস মনুমেন্টস ছবির প্রতিযোগিতার ২০১২ সালের সংস্করণে স্পেন দ্বিতীয় এবং ফিলিপাইন তৃতীয় স্থান দখল করে।

২০১৩ সালে, উইকি লাভস মনুমেন্টস প্রতিযোগিতায় এন্টার্কটিকা সহ ছয়টি মহাদেশ থেকে বেশি পঞ্চাশটির বেশী অফিসিয়াল অংশগ্রহণ ছিল। নতুন অংশগ্রহণকারী দেশগুলি হল আলজেরিয়া, চীন, আজারবাইজান, হংকং, জর্ডান, ভেনেজুয়েলা, থাইল্যান্ড, তাইওয়ান, নেপাল, তিউনিসিয়া, মিসর, যুক্তরাজ্য, যুদ্ধ-বিধ্স্ত সিরিয়া এবং আরো অনেক। এতে মোট ৫২টির বেশী অংশগ্রহণকারী দেশ থেকে প্রায় ৩,৭০,০০০টি ছবি আপলোড করা হয়। বার্ষিক উইকি লাভস মনুমেন্টস ছবির প্রতিযোগিতার ২০১৩ সালের সংস্করণে সুইজারল্যান্ড প্রথম আন্তর্জাতিক পুরস্কার জিতে অন্যদিকে তাইওয়ান দ্বিতীয় এবং হাঙ্গেরি তৃতীয় স্থান দখল করে।

প্রতিযোগিতার ২০১৪ সালের সংস্করণে বিশ্বের ৪১টি দেশ থেকে ৮,৭৫০ জনের বেশী প্রতিযোগী অংশ নেয়, যারা ৩,০৮,০০০টির বেশী আলোকচিত্র জমা দেয়। পাকিস্তান, ম্যাসাডোনিয়া, আয়ারল্যান্ড, কসোভো, আলবেনিয়া, ফিলিস্তিন, লেবানন প্রজাতন্ত্র, এবং ইরাক ২০১৪ সালের এই সংস্করণে তাদের আত্মপ্রকাশ ঘটায়। পাকিস্তান থেকে, ৭০০'র অধিক প্রতিযোগী সারা দেশ থেকে ১২,০০০-এর বেশী ছবি জমা দেয়।

২০১৫ সালে, ৩৩টি দেশ প্রতিযোগিতায় নিবন্ধন করে। প্রধান অংশগ্রহণকারী দেশ ছিল ব্রাজিল, বুলগেরিয়া, লাটভিয়া, ইরান ও মালয়েশিয়া।

প্রতিযোগিতার নিয়ম[সম্পাদনা]

উইকি লাভস মনুমেন্টসে অংশগ্রহণের জন্য মৌলিক নিয়মগুলি আয়োজিত দেশের কমিটি ও আলোকচিত্রী উভয়ের জন্য বেশ সহজ। অংশগ্রহণকারী দেশের কমিটিকে তাঁদের স্থাপনার তালিকা জমা দিতে হয়, যাতে প্রতিটি স্থাপনার একটি অনন্য শনাক্তকারী থাকে যাতে তাঁদের প্রতিযোগিতার সময়ে অণুসরণ করা যায় এবং অংশগ্রহণকারী আলোকচিত্রী ১ সেপ্টেম্বর থেকে ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে অনন্য শনাক্তকারীসহ তাদের ছবি আপলোড করতে হয়। অংশগ্রহণকারীদের অবশ্যই উইকিমিডিয়া কমন্সে তাঁদের ছবি সরাসরি আপলোড করতে হয়, যার অর্থ যদি তাঁদের একটি অ্যাকাউন্ট এখনো না থেকে থাকে, তাহলে তাঁদের প্রথমে অবশ্যই একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে কারণ নামহীন জমা পুরস্কার লাভ করতে পারবে না। ছবি যে কোন সময় আপলোড করা যাবে, কিন্তু তা প্রতিযোগিতার জন্য গণ্য হতে হলে, তাঁদের সেপ্টেম্বর মাসে কমন্সে আপলোড করতে হবে, এবং অবশ্যই তা সিসি-বাই-এস ৩.০ (অথবা অন্যা সামঞ্জস্যপূর্ণ লাইসেন্সের আওতায় লাইসেন্সকৃত করা আবশ্যক যেমন সিসি-বাই বা সিসি-০) উন্মুক্ত লাইসেন্সে অধীনে প্রকাশ করতে হবে।

তালিকা[সম্পাদনা]

প্রতিযোগিতার অংশ হতে, ছবিকে "বিশ্বকোষীয়" হিসেবে বিবেচনা করা প্রয়োজন, তাই স্থানীয় সরকারের তালিকাভুক্ত স্থাপনা বা জায়গা হতে হবে। এটি প্রতি দেশ অণুযায়ী জমা দেয়া তালিকা দ্বারা করা হয়। আপলোড করা চিত্রে অবশ্যই একটি শনাক্তকারী এবং ভৌগোলিক স্থানাঙ্ক থাকতে হবে, যদিও যারা উইকি লাভস মনুমেন্টসের ওয়েবসাইট বা মোবাইল ফোনের অ্যাপ দ্বারা আপলোড করছেন তাঁরা এ ব্যাপারে সচেতন নন। সরকারি তালিকা যা প্রতি বছর হালনাগাদ করা হয় ও তথ্য পরিবর্তনের সাথে সাথে তা সমন্বয় করা হয়। অংশগ্রহণকারী দেশগুলোর বর্তমান নির্বাচন কেবল সেই দেশগুলিতেই যেখানে স্বেচ্ছাসেবকরা এই জাতীয় জমা দেয়া তালিকা তৈরি করতে সময় ব্যয় করে। তবে এখানে কিন্তু আছে, এছাড়াও কিছু দেশে কেখানে আইনগত সীমাবদ্ধতার কারণে এই জাতীয় তালিকা পাওয়াকে প্রতিরোধ করে বা যেখানের ঐতিহ্য উইকিপিডিয়ার জন্য যোগ্য নাও হতে পারে। বিচারব্যবস্থা অনুযায়ী সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের উপর আইন ব্যাপকভাবে পরিবর্তিত হয়।

বিজয়ী[সম্পাদনা]

উইকি লাভস মনুমেন্টসের আন্তর্জাতিক প্রথম পুরস্কার বিজয়ীদের একটি তালিকা নিচে দেওয়া হয়েছে।

ছবি বছর আলোকচিত্রী দেশ বর্ণনা
Amsterdam - Vijzelstraat 27-35 (halsgevel).JPG ২০১০ Rudolphous নেদারল্যান্ডস নেদারল্যান্ডস আমস্টারডামে ভাইজাল্সট্রাট ৩১
Mănăstirea Chiajna - Giulești.jpg ২০১১ মিহাই পেত্রে রোমানিয়া রুমানিয়া হিয়াজনা মঠের শীতকালীন দৃশ্য। আশ্রমটি বুখারেস্ট উপকণ্ঠে অবস্থিত।
Tomb of Safdarjung, New Delhi.jpg ২০১২ প্রনব সিং ভারত ভারত সফদারজাংয়ের সমাধি, নয়া দিল্লি, ভারত
RhB Ge 4-4 II Wiesener Viadukt.jpg ২০১৩ David Gubler সুইজারল্যান্ড সুইজারল্যান্ড ভিসেন দীর্ঘ রেলসেতু পারাপারের সময় একটি পুশ-পুল আরএইচবি জি ৪/৪ ২ ট্রেন, ফাইলাসার, সুইজারল্যান্ড।
Svjatogorsk, Lavra 3.jpg ২০১৪ কনস্টানটিন ইউক্রেন ইউক্রেন পবিত্র পর্বতমালা মঠ, Sviatohirsk, ইউক্রেন।
Leuchtturm in Westerheversand.jpg ২০১৫ মার্কো লেইকার জার্মানি জার্মানি Westerheversand Lighthouse

অণুষঙ্গ হিসাবে[সম্পাদনা]

উইকি লাভস মনুমেন্টসের উপর ভিত্তি করে কিছু আনুসাঙ্গিক উইকিমিডিয়া আন্দোলনের মাধ্যমে স্থানীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে আয়োজিত হয়। তাঁরা সাধারণত উইকি লাভস মনুমেন্টসের মোইলিক নিয়ম অণুসরণ করে এবং এবং কিছু নিয়ম পরিবর্তন করে।

  • ২০১৩ সালের বসন্তে, ইউক্রেনে উইকি লাভস আর্থ নামে একটি আলোকচিত্রের প্রতিযোগীতা আয়োজন করা হয়, যার মূল আলোকপাত ছিল ইউক্রেনের প্রাকৃতিক ঐতিহ্যের ছবি তোলা এবং পরবর্তীকালে উইকিমিডিয়া কমন্সে আপলোড করা।
  • কয়েক মাস পরে, উইকিমিডিয়া সুইডেন এবং ইউরোপিয়ানা উইকি লাভস পাবলিক আর্ট নাম দিয়ে একটি আলোকচিত্র প্রতিযোগিতার সূচনা যার উদ্দেশ্য ছিল প্রকাশ্য শিল্পকর্মগুলো থেকে আলোকচিত্র তুলে সংখ্যা বৃদ্ধি করা। প্রকল্পটি পাঁচটি দেশে আয়োজন করা হয় এবং ফলাফল হিসেবে এর মাধ্যমে ৯,২৫০টির বেশী আলোকচিত্র আপলোড করা হয়।
  • ২০১৩ সালের শরৎে, ম্যাসেডোনিয়ায় উইকি লাভস কালচারাল হেরিটেজ আয়োজন করা হয়।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. সর্বাধিক সাধারণ শুরুর তারিখ
  2. "Largest photography competition" [বৃহত্তম আলোকচিত্র প্রতিযোগিতা]। www.guinnessworldrecords.com (ইংরেজি ভাষায়)। গিনেস বিশ্ব রেকর্ড। ২০১২। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ১, ২০১৬ 
  3. Eglash, Ruth (২৮ আগস্ট ২০১২)। "Hundreds of cultural sites to be visually documented during "Wiki Loves Monuments event."" (ইংরেজি ভাষায়)। জেরুজালেম পোস্ট। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১২ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]