ঈশানচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ঈশানচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়
ঈশানচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়
ঈশানচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়
জন্ম(১৮৫৬-০৩-১৫)১৫ মার্চ ১৮৫৬
গুলিটা হুগলি, ব্রিটিশ ভারত (অধুনা পশ্চিমবঙ্গ)
মৃত্যু১২ জুন ১৮৯৭(1897-06-12) (বয়স ৪১)
কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ, ভারত
পেশাকবি
ভাষাবাংলা
জাতীয়তাভারতীয়
নাগরিকত্বব্রিটিশ ভারতীয়
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়

ঈশানচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায় (১৫ মার্চ ১৮৫৬ - ১২ জুন ১৮৯৭) ঊনবিংশ শতাব্দীর বাঙালি কবিদের মধ্যে ছিলেন অন্যতম। [১]

সংক্ষিপ্ত জীবনী[সম্পাদনা]

ঈশানচন্দ্রের জন্ম বৃটিশ ভারতের অধুনা পশ্চিমবঙ্গের হুগলি জেলার গুলিটা'র এক দরিদ্র পরিবারে। পিতা কৈলাসচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়। তাদের পৈতৃক নিবাস ছিল হুগলি জেলারই উত্তরপাড়ায়। তিনি দেশপ্রেমিক যশস্বী কবি হেমচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুজ। কলেজের শিক্ষা শেষ করে তিনি সরকারি কাজে যোগ দেন। অগ্রজের ন্যায় তার সাহিত্য চর্চায় আগ্রহ ছিল। হুগলি জেলা থেকে প্রচারিত মাসিক পত্রিকা "পূর্ণিমা" র প্রকাশকাল থেকে আমৃত্যু যুক্ত ছিলেন। তার রচিত কাব্যগ্রন্থ গুলি হল-

  • চিত্তমুকুর (১৮৭৮)
  • বাসন্তী (১৮৮০)
  • যোগেশ (১৮৮১)

'যোগেশ' কাব্যগ্রন্থটি সমকালীন বাঙালি তরুণের দ্বিধাদ্বন্দ্ব কাব্যরূপ [২] এবং এটি অমিত্রাক্ষর ছন্দে রচিত। তিনি "সুধাময়ী" নামে একটি উপন্যাস রচনা করেছেন।

জীবনাবসান[সম্পাদনা]

কবি ঈশানচন্দ্র অত্যন্ত ভাবপ্রবণ ছিলেন। ১৮৯৭ খ্রিস্টাব্দের ১২ ই জুন মাত্র ৪২ বৎসর বয়সে বিষ পান করে আত্মহত্যা করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. সুবোধ সেনগুপ্ত ও অঞ্জলি বসু সম্পাদিত, সংসদ বাঙালি চরিতাভিধান, প্রথম খণ্ড, সাহিত্য সংসদ, কলকাতা, আগস্ট ২০১৬, পৃষ্ঠা ৯১, আইএসবিএন ৯৭৮-৮১-৭৯৫৫-১৩৫-৬
  2. শিশিরকুমার দাশ (২০১৯)। সংসদ বাংলা সাহিত্যসঙ্গী। সাহিত্য সংসদ, কলকাতা। পৃষ্ঠা ৩৩। আইএসবিএন 978-81-7955-007-9 |আইএসবিএন= এর মান পরীক্ষা করুন: checksum (সাহায্য)