ইস্পাহানী পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ, চট্টগ্রাম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ইস্পাহানী পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ, চট্টগ্রাম
নীতিবাক্যশিক্ষা ব্রতে এসো, সেবার তরে যাও
ধরনবেসরকারি
স্থাপিত১৯৭৯
প্রতিষ্ঠাতামির্জা আহমেদ ইস্পাহানী
অধ্যক্ষব্রিগে:জেনারেল(অব:) মোঃ মোসলেহ্ উদ্দিন ভূঁঞা
অ্যাকাডেমিক কর্মকর্তা
৫০; ৩২(স্কুল), ১৮(কলেজ)
অবস্থানচট্টগ্রাম, বাংলাদেশ
রঙসমূহনেভি ব্লু এবং সাদা         
ওয়েবসাইটhttp://www.ipscctg.edu.bd

ইস্পাহানী পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ, চট্টগ্রাম (সংক্ষেপেঃ IPSC নামে পরিচিত) হলো চট্টগ্রামের জাকির হোসেন রোডে অবস্থিত একটি বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এটি এমইএস কলেজের সম্মুখে অবস্থিত। চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের অধীন এই প্রতিষ্ঠানে প্রাথমিক, নিম্ন মাধ্যমিক, মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা কার্যক্রম চালু রয়েছে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

চট্টগ্রামে কোনো আবাসিক স্কুল না থাকায় শিক্ষানুরাগী ও দানবীর মির্জা আহমেদ ইস্পাহানী[১] কুমিল্লা সেনানিবাসে প্রতিষ্ঠিত ইস্পাহানী পাবলিক স্কুল ও কলেজের অনরূপ একটি আবাসিক বিদ্যালয় হিসাবে ১৯৭৯ সালে ইস্পাহানী পাবলিক স্কুল প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯৮১ সালে একটি ত্রিতল ভবনে কেজি প্রথম শ্রেণী থেকে অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র-ছাত্রী নিয়ে এর শিক্ষা কার্যক্রম শুরু। ১৯৮৯-৯০ শিক্ষাবর্ষ থেকে এখানে উচ্চ মাধ্যমিক শাখা চালু হয়েছে। ১৯৮৫ সালে এই এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীরা প্রথমবারের মতো এসএসসি এবং ১৯৯১ সালে প্রথমবারের মতো এইচএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে।

ভর্তি[সম্পাদনা]

স্কুল[সম্পাদনা]

স্কুল শাখায় তৃতীয় শ্রেণীতে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়।[২]

কলেজ[সম্পাদনা]

কলেজ শাখায় বিজ্ঞান, মানবিক এবং ব্যবসায় শিক্ষায় শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়।

অডিটোরিয়াম[সম্পাদনা]

লাইব্রেরি[সম্পাদনা]

এই প্রতিষ্ঠানের লাইব্রেরিতে প্রায় ২০০০ বই রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে তৃতীয় থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত সকল শ্রেণীর পাঠ্যবই, অভিধান, সাধারণ জ্ঞান, ম্যাগাজিন, উপন্যাস প্রভৃতি।

পরীক্ষাগার[সম্পাদনা]

এই প্রতিষ্ঠানে একটি করে পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, জীববিজ্ঞান, মনোবিজ্ঞান ও কম্পিউটার ল্যাব রয়েছে।[৩][৪][৫][৬]

সহ-শিক্ষা কার্যক্রম[সম্পাদনা]

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান[সম্পাদনা]

প্রতি বছর ফেব্রুয়ারি মাসে প্রতিষ্ঠান তার প্লে গ্রাউন্ডে সপ্তাহব্যাপী বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা এবং পুরস্কার প্রদান ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করে।

বার্ষিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে দলীয় আবৃত্তি

খেলাধুলা[সম্পাদনা]

ব্যাডমিন্টন এই প্রতিষ্ঠানে জনপ্রিয় খেলা। এখানে রয়েছে ইনডোর গেমের ব্যবস্থা। প্রতিবছর প্রতিষ্ঠানে ক্রিকেট, ফুটবল ও ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হয়।

প্রকাশনা[সম্পাদনা]

এই প্রতিষ্ঠান প্রয়াস নামে একটি ম্যাগাজিন প্রকাশ করে থাকে।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]