ইখশিদি রাজবংশ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
ঐতিহাসিক আরব রাজ্য এবং রাজবংশ

ইখশিদি রাজবংশ ৯৩৫ থেকে ৯৬৯ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত মিশর শাসন করে। আব্বাসীয় খলিফা কর্তৃক মুহাম্মদ ইবনে তুগজ আল ইখশিদ নামে একজন তুর্কি দাস সৈনিক গভর্নর নিযুক্ত হয়েছিলেন।[১][২][৩][৪] রাজবংশ আরবি পদবি “ওয়ালি” ব্যবহার করত যার মাধ্যমে আব্বাসীয়দের পক্ষের শাসক নির্দেশ করা হত। ৯৬৯ সালে ফাতেমীয় সেনাবাহিনী ফুসতাত দখল করে নিলে ইখশিদিদের পতন ঘটে।[৫]

মিশর ও সিরিয়ায় ইখশিদি বংশীয় ওয়ালি[সম্পাদনা]

উপাধি ব্যক্তিগত নাম শাসনকাল
আব্বাসীয় খিলাফতের পক্ষে মিশরসিরিয়ার স্বাধীন গভর্নর
ওয়ালি
ولی
মুহাম্মদ ইবনে তুগজ আল ইখশিদ
محمد بن طغج الإخشيد
৯৩৫ - ৯৪৬
ওয়ালি
ولی
আবুল কাসিম উনুজুর ইবনে আল ইখশিদ
أبو القاسم أنوجور بن الإخشيد
৯৪৬ - ৯৬১
ওয়ালি
ولی
আবুল হাসান আলি ইবনে আল ইখশিদ
أبو الحسن علي بن الإخشيد
৯৬১ - ৯৬৬
ওয়ালি
ولی
আবুল মিসক কাফুর
أبو المسك كافور
৯৬৬ - ৯৬৮
ওয়ালি
ولی
আবুল ফাওয়ারিস আহমেদ ইবনে আলি আল ইখশিদ
أبو الفوارس أحمد بن علي بن الإخشيد
তার চাচা আল হাসান ইবনে উবাইদুল্লাহর অভিভাকত্বে
৯৬৮ - ৯৬৯
ফাতেমীয় সেনাপতি জাওহার আল সিকিলি মিশর জয় করেন। আল হাসান ইবনে উবাইদুল্লাহ ৯৭০ সাল পর্যন্ত সিরিয়ার নিয়ন্ত্রণ ধরে রাখেন।


মুদ্রা[সম্পাদনা]

সর্বো‌চ্চ বিস্তৃতিতে ইখশিদি রাজবংশের অঞ্চল

স্বর্ণমুদ্রা সাধারণত ব্যবহার হত। তামার মুদ্রা বিরল ছিল। মিশর (ফুসতাত) ও ফিলিস্তিনে (আল রামলা) দিনার এবং ফিলিস্তিনে দিরহাম তৈরি করা হত। এছাড়া কখনো কখনো তাবারিয়া, দামেস্ক ও হিমসেও মুদ্রা তৈরি হত।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Abulafia, David (২০১১)। The Mediterranean in History। পৃষ্ঠা 170। 
  2. Haag, Michael (২০১২)। The Tragedy of the Templars: The Rise and Fall of the Crusader States 
  3. Bacharach, Jere L. (২০০৬)। Medieval Islamic Civilization: A-K, index। পৃষ্ঠা 382। 
  4. C.E. Bosworth, The New Islamic Dynasties, (Columbia University Press, 1996), 62.
  5. The Fatimid Revolution (861-973) and its aftermath in North Africa, Michael Brett, The Cambridge History of Africa, Vol. 2 ed. J. D. Fage, Roland Anthony Oliver, (Cambridge University Press, 2002), 622.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]