আহমেদ রশিদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আহমেদ রশিদ
Ahmed Rashid at Chatham House 2014.jpg
২০১৪ সালের জানুয়ারি চাথাম হাউস-এর একটি অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন আহমেদ রশিদ
জন্ম১৯৪৮ (বয়স ৭১–৭২)
পেশাসাংবাদিক, লেখক

আহমেদ রশিদ ( উর্দু : احمد رشید) পাকিস্তানের একজন সাংবাদিক। তিনি আফগানিস্তান, পাকিস্তান এবং মধ্য এশিয়ার বৈদেশিক নীতি সম্পর্কিত বিভিন্ন বইয়ের লেখক হিসেবেও পরিচিত।

প্রাথমিক ও শিক্ষা জীবন[সম্পাদনা]

আহমেদ রশিদ পাকিস্তানের রাওয়ালপিন্ডিতে ১৯৪৮ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৬০-এর দশকের শেষের দিকে ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংল্যান্ডের মালভেন কলেজ, সরকারি কলেজ লাহোর এবং ক্যামব্রিজের ফিৎসুইলিয়াম কলেজে লেখাপড়া করেন।[১]

স্নাতক ডিগ্রি সম্পন্ন করার পর রশিদ বেলুচিস্তানের পাহাড়ী অঞ্চলে অন্তত দশ বছর অতিবাহিত করে পশ্চিম পাকিস্তানের পাকিস্তানি সামরিক একনায়কতন্ত্র আইয়ুব খান এবং ইয়াহিয়া খানের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ সংগঠিত করার চেষ্টা করেন। তার বাহিনী এক গেরিলা যুদ্ধে পরাজয়ের পর হতাশ হলে তিনি নিজের দেশ সম্পর্কে লেখালেখিতে মনোযোগী হন।[১]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

হালিফ্যাক্স ইন্টারন্যাশনাল সিকিউরিটি ফোরামে রশিদ ও পলিন নেভিল-জোন্স

তিনি ২০ বছরেরও বেশি সময় ধরে দ্য ডেইলি টেলিগ্রাফের পাকিস্তান, আফগানিস্তানসেন্ট্রাল এশিয়ার সাংবাদিক এবং ফার ইস্টার্ন ইকোনমিক রিভিউয়ের একজন সংবাদ প্রতিবেদক হিসেবে কাজ করেন। তিনি ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল, দ্য ন্যাশন, ডেইলি টাইমস (পাকিস্তান) এবং একাডেমিক জার্নালগুলোতে লেখালেখি করেন। তিনি আন্তর্জাতিক টিভি চ্যানেলে সিএনএন,এবং বিবিসি ওয়ার্ল্ড এবং অনেক পাকিস্তানী টিভি চ্যানেলের মতো রেডিও নেটওয়ার্কগুলোতে নিয়মিত সংবাদকর্মী হিসেবে কাজ করেন।[২]

আহমেদ রশীদ এখন একজন প্রবীণ রাজনৈতিক হিসেবে ইসলামাবাদ ও কাবুলের কূটনীতিকদের পরামর্শের জন্য এবং ন্যাটোর রাজধানী ও ওয়াশিংটনে নীতিনির্ধারকদের পরামর্শক হিসেবে কাজ করার সুযোগ পান।[১]

তিনি ইরাক যুদ্ধের ব্যাপারে বুশ প্রশাসনের সমালোচক এবং তালিবান বিষয়ক তার কঠোর বক্তব্যের জন্যে তিনি পরিচিত।[১] রশিদের ২০০০ সালে প্রকাশিত -বই, তালিবান: মধ্যযুগীয় ইসলাম, তেল ও মৌলবাদী এশিয়াতে মৌলবাদ ইসলাম,[৩] দ্য নিউইয়র্ক টাইমস সেরা বিক্রেতাদের পাঁচ সপ্তাহের জন্য, ২২টি ভাষায় অনূদিত এবং ১১ সেপ্টেম্বরের হামলার পরে দেড় মিলিয়ন কপি বিক্রি করেছে "একটি একাডেমিক প্রেস জন্য একটি বিস্ময়কর সংখ্যা হিসেবে দাঁড়ায়"। আমেরিকার বিশ্লেষকরা নাইন ইলেভেন হামলার জেরে এই বইটিকে ব্যাপকভাবে প্রচার করে।[৪] রশিদ অভিযোগ করেছেন যে সাবেক রাষ্ট্রপতি জর্জ ডব্লিউ বুশ তার স্মৃতিকথা লেখার কাজে তার কাজ চুরি করেছেন।[৫]

ওয়াশিংটন পোস্টের পোস্ট গ্লোবাল সেগমেন্টে তার মন্তব্য কলামের ব্যাপক উপস্থিত রয়েছে। "জাতীয় ও আন্তর্জাতিক প্রকাশনা নেতৃস্থানীয় এবং এনপিআর-এর (ন্যাশনাল পাবলিক রেডিও) ফ্রেশ এয়ারে নিয়মিত অতিথি হিসেবে রশিদ কলাম লিখেন"।[৬]

"তালেবানের একজন বিশেষজ্ঞের মতে ৯/১১ (নাইন ইলেভেন) পর্যন্ত তিনি প্রায় যেকোনো বাইরের জনগোষ্ঠীর চেয়েও ভাল জানেন - জনাব রশীদ এই অঞ্চলে একজন পথ প্রদর্শক হিসাবে কিছু সময়ের মধ্যে রয়েছেন, যদিও বেশিরভাগ ক্যাসান্দর টাইপ, পুনরাবৃত্তি নীতি নির্মাতা দ্বারা উপেক্ষা করা হয় যে সতর্কতা"।[১]

পরিবার[সম্পাদনা]

আহমেদ রশিদ লাহোর, পাঞ্জাব, পাকিস্তান তার স্ত্রী ও দুই সন্তান নিয়ে বসবাস করছেন।[১][৭]

নির্বাচিত কাজ[সম্পাদনা]

  • মধ্য এশিয়ার পুনরুজ্জীবনঃ ইসলাম বা জাতীয়তাবাদ? সেন্ট মার্টিনস প্রেস (মে ১৯৯৪) আইএসবিএন ১-৮৫৬৪৯-১৩১-৫
  • তালিবান: মধ্য এশিয়াতে মিলিত্যান্ট ইসলাম, তেল ও মৌলবাদ, ইয়েল ইউনিভার্সিটি প্রেস (মার্চ ২০০০) আইএসবিএন ০-৩০০-০৮৩৪০-৮
  • জিহাদ: মধ্য এশিয়ার জঙ্গি ইসলামের উত্থান, ইয়েল ইউনিভার্সিটি প্রেস (২5 জানুয়ারী, ২০০২) আইএসবিএন ০-৩০০-০৯৩৪৫-৪। ( হায়দ্রাবাদ : ওরিয়েন্ট লংম্যান, 2002)
  • ক্যাওস মধ্যে বংশবৃদ্ধি: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং পাকিস্তান, আফগানিস্তান, এবং কেন্দ্রীয় এশিয়া বিল্ডিং ব্যর্থতা, ভাইকিং, 2008, আইএসবিএন ৯৭৮-০-৬৭০-০১৯৭০-০
  • তালিবান: আফগানিস্তান ও বিয়ন্ডে মিলিত্যান্ট ইসলামের শক্তি, দ্বিতীয় সংস্করণ, আইবিটিউরিস (এপ্রিল ২০১০) আইএসবিএন ৯৭৮-১-৮৪৮৮৫-৪৪৬-৮
  • পাকিস্তান দ্য ব্রিং: আমেরিকার ভবিষ্যৎ, পাকিস্তান, এবং আফগানিস্তান, ভাইকিং অ্যাডাল্ট (১৫ মার্চ, ২০১২) আইএসবিএন ৯৭৮-০-৬৭০-০২৩৪৬-২

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Jane Perlez (৫ জুলাই ২০০৮)। "Frontier Years Give Might to Ex-Guerrilla's Words (Ahmed Rashid profile)"। The New York Times। সংগ্রহের তারিখ ২১ জানুয়ারি ২০১৯ 
  2. State of play: In conversation with Ahmed Rashid (an interview) The Express Tribune (newspaper), Published 29 March 2015, Retrieved 21 January 2019
  3. Wide-ranging Radio Netherlands' interview with Ahmed Rashid about Afghanistan
  4. Scott Baldauf (২৩ মে ২০১২)। "With Ambassador Ryan Crocker's exit, a chance for a new approach to Afghanistan"। The Christian Science Monitor (newspaper)। সংগ্রহের তারিখ ২১ জানুয়ারি ২০১৯ 
  5. Lawson, Alastair (১৬ নভেম্বর ২০১০)। "Pakistani journalist upset by George Bush 'plagiarism'"BBC News। সংগ্রহের তারিখ ২১ জানুয়ারি ২০১৯ 
  6. Great Conversations program on Public Broadcasting System (US) - 'Ahmed Rashid, Pakistan on the Brink' Program Aired on 24 June 2012, Retrieved 21 January 2019
  7. Journalist Ahmed Rashid's profile on Carnegie Council for Ethics in International Affairs website Updated 8 November 2018, Retrieved 21 January 2019

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]