আর্মি ইনস্টিটিউট অব বিজনেস এডমিনিস্ট্রেশন, সিলেট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আর্মি ইনস্টিটিউট অব বিজনেস এডমিনিস্ট্রেশন, সিলেট
সেনা ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউট
নীতিবাক্যজ্ঞানই শক্তি
ধরনবাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস-এর অধীনে একটি সায়ত্বশাসিত সরকারি প্রতিষ্ঠান
স্থাপিত১৫ জানুয়ারি, ২০১৫
পরিচালকব্রিগ্রেডিয়ার জেনারেল মোঃ জহিরুল ইসলাম, এনডিসি,পিএসসি, জি (অবসরপ্রাপ্ত)
অবস্থান,
অধিভুক্তিবাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস
ওয়েবসাইটhttp://aibasylhet.edu.bd

আর্মি ইনস্টিটিউট অব বিজনেস এডমিনিস্ট্রেশন বা সেনা ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউট, সিলেট হচ্ছে জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্টে অবস্থিত একটি ব্যবসায় কলেজ। এটি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মালিকানাধীন এবং তাদের দ্বারা পরিচালিত। এই কলেজটি বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস-এর অধিভুক্ত।[১] শিক্ষাগত পাঠ্যক্রমটি বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের একাডেমিক কাউন্সিল এবং সিন্ডিকেট কর্তৃক অনুমোদিত এবং নিয়ন্ত্রিত হয়। ইনস্টিটিউটটি অপারেশন পরিচালনা, বিপণন, অর্থ, অ্যাকাউন্টিং, মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা এবং সরবরাহ চেইন পরিচালনাসহ বিভিন্ন বিশেষীকরণ ক্ষেত্রগুলিতে ব্যাচেলর অফ বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (বিবিএ) এবং মাস্টার অব বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এমবিএ) প্রদান করে। বিশ্ববিদ্যালয়টি উত্তর আমেরিকার পাঠ্যক্রম অনুসরণ করে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

আর্মি ইনস্টিটিউট অব বিজনেস এডমিনিস্ট্রেশন ১৫ জানুয়ারি, ২০১৫ সালে সিলেট জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্টে প্রতিষ্ঠা করা হয়। এটি বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস-এর অধিভুক্ত একটি প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর দ্বারা পরিচালিত হয়। ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এম জহিরুল ইসলাম, এনডিসি, পিএসসি, জি (অব।) ইনস্টিটিউটের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ছিলেন। এটি বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস-এর শিক্ষাক্রম অনুসরণ করে থাকে। এই প্রতিষ্ঠানের অস্থায়ী ক্যাম্পাস জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ, সিলেটে প্রতিষ্ঠা করা হয়।[১][২]

অবস্থান[সম্পাদনা]

ইনস্টিটিউটটি সিলেট থেকে আট কিলোমিটার উত্তর পশ্চিমে, সিলেট-তামাবিল মহাসড়কের পাশে জালালাবাদ সেনানিবাসে অবস্থিত।

পরিচালনা[সম্পাদনা]

ইনস্টিটিউটটি সিলেট আঞ্চলিক সদরের মাধ্যমে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী দ্বারা পরিচালিত হয়। সিলেট এলাকার এরিয়া কমান্ডার হলেন ইনস্টিটিউটের প্রধান। সেনাবাহিনী, অনুষদ সদস্য, প্রশাসনিক কর্মী, শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকদের প্রতিনিধি সমন্বয়ে গঠিত আঠারো সদস্যের পরিচালনা পর্ষদ দ্বারা ইনস্টিটিউটটি পরিচালিত হয়। একাডেমিক পাঠ্যক্রমটি বাংলাদেশ মঞ্জুরি কমিশনের বিধি মোতাবেক বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অফ প্রফেশনালস দ্বারা পরিচালিত হয়।

পাঠ্যক্রম[সম্পাদনা]

ইনস্টিটিউটের বর্তমান পাঠ্যক্রমে ব্যাচেলর অব বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (বিবিএ) এবং বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এমবিএ) প্রোগ্রাম রয়েছে। বিশেষায়িত প্রধান ক্ষেত্রগুলির মধ্যে অন্তর্ভুক্ত রয়েছে অপারেশন পরিচালনা, অ্যাকাউন্টিং, আর্থিক, বিপণন, মানবসম্পদ পরিচালনা এবং সরবরাহ চেইন পরিচালনা।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Army Institute of Business Administration"www.aibasylhet.edu.bd। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৪-০৩ 
  2. Independent, The। "Delivering education by the army"Delivering education by the army | theindependentbd.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৪-০৩