আর্থার অ্যালবিস্টন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
আর্থার অ্যালবিস্টন
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম আর্থার রিচার্ড অ্যালবিস্টন
জন্ম (১৯৫৭-০৭-১৪) ১৪ জুলাই ১৯৫৭ (বয়স ৬০)
জন্ম স্থান এডিনবরা, স্কটল্যান্ড
মাঠে অবস্থান লেফট ব্যাক
বলিষ্ঠ কর্মজীবন*
বছর দল উপস্থিতি
(গোল)
১৯৭৪–১৯৮৮
১৯৮৮–১৯৮৯
১৯৮৯–১৯৯০
১৯৯০–১৯৯১
১৯৯১–১৯৯৩
১৯৯৩
১৯৯৩–১৯৯৪
ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড
ওয়েস্ট ব্রমউইচ অ্যালবিওন
ডান্ডি
চেস্টারফিল্ড
চেস্টার সিটি
মোল্ডে এফ.কে.
আয়র ইউনাইটেড
৩৭৯ 0(৬)
0৪৩ 0(২)
0১০ 0(০)
000(১)
0৬৮ 0(০)
0১৫ 0(৩)
000(০)
জাতীয় দল
১৯৮২–১৯৮৬ স্কটল্যান্ড 0১৪ 0(০)
* পেশাদারী ক্লাবের উপস্থিতি ও গোলসংখ্যা শুধুমাত্র ঘরোয়া লিগের জন্য গণনা করা হয়েছে।
† উপস্থিতি(গোল সংখ্যা)।

আর্থার রিচার্ড অ্যালবিস্টন (জন্ম জুলাই ১৪, ১৯৫৭ এডিনবরা) একজন স্কটিশ সাবেক ফুটবল খেলোয়াড়।

অ্যালবিস্টন ১৯৭২ সালের জুলাই মাসে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ক্লাবে শিক্ষানবিশ হিসেবে যোগ দেন এবং ১৯৭৪ সালে পেশাদার খেলোয়াড় হিসেবে নাম লেখান।[১] ১৯৭৪ সালে স্থানীয় প্রতিপক্ষ ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে লীগ কাপের তৃতীয় রাউন্ডে তার অভিষেক হয়। তিনি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে তার ১৪ বছরের খেলোয়াড়ী জীবনে ৩৭৯ টি খেলায় অংশ নিয়েছেন এবং ৬ টি গোল করেছেন। ১৯৭৭, ১৯৮৩, ও ১৯৮৫ সালের এফএ কাপ বিজয়ে তিনি দলের সাথে ছিলেন। ১৯৮৮ সালের আগস্ট মাসে অ্যালবিস্টন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ছেড়ে ওয়েস্ট ব্রমউইচ অ্যালবিওন ক্লাবে যোগ দেন, যার ম্যানেজার ছিলেন সাবেক রেড ডেভিল ম্যানেজার রন অ্যাটকিনসন। ১৯৮৮ সালের আগস্টে লিচেস্টার সিটির বিপক্ষে অ্যালবিওনের হয়ে তার অভিষেক ঘটে। তিনি এই ক্লাবে ৪৭ খেলায় ২টি গোল করেছেন। একমৌসুম পরেই তিনি ডান্ডি ক্লাবে যোগ দেন। পরবর্তীতে তিনি চেস্টারফিল্ড, চেস্টার সিটি, নরওয়ের ক্লাব মোল্ডেআয়র ইউনাইটেড ক্লাবে খেলেছেন। তার পেশাদারী জীবনে তিনি ৪৬৪ খেলায় অংশ নিয়ে ৭ গোল করেছেন। এছাড়া তিনি ফুটবল লীগের বাইরের দলেও খেলেছেন।

স্কটল্যান্ড দলের পক্ষে তিনি ১৪ টি আন্তর্জাতিক ম্যাচে অংশ নিয়েছেন। ১৯৮১ সালের ১৪ অক্টোবর নর্দার্ন আয়ারল্যান্ড দলের বিপক্ষে তার অভিষেক হয়। তিনি মাত্র ১টি ফিফা বিশ্বকাপ খেলায় অংশ নিয়েছেন। ১৯৮৬ সালের ১৩ জুন উরুগুয়ের বিপক্ষে গ্রুপ ই'র খেলায় তিনি অংশ নেন এবং তার দল ০-০ গোলে ড্র করে।

খেলা থেকে অবসর নিয়ে অ্যালবিস্টন ১৯৯৬-৯৭ সালে ড্রয়লসডেন ক্লাবে ম্যানেজার হিসেবে যোগ দেন। ২০০০-০৪ সাল পর্যন্ত তিনি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ক্লাবের জুনিয়র কোচ ছিলেন। এছাড়া ম্যানচেস্টার ইন্ডিপেন্ডেন্টের রেডিও ভাষ্যকার হিসেবেও তিনি কাজ করেছেন।[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Matthews, Tony (২০০৫)। The Who's Who of West Bromwich Albion। Breedon Books। পৃ: p. 13। আইএসবিএন 1-85983-474-4 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]