আবেদীন জ্বালামুখ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
আবেদীন জ্বালামুখ
Abedin.png
গ্রহ Mercury
স্থানাঙ্ক ৬১°৪২′ উত্তর ১০°১২′ পশ্চিম / ৬১.৭° উত্তর ১০.২° পশ্চিম / 61.7; -10.2স্থানাঙ্ক: ৬১°৪২′ উত্তর ১০°১২′ পশ্চিম / ৬১.৭° উত্তর ১০.২° পশ্চিম / 61.7; -10.2
ব্যাস ১১০ কি.মি.
পরিচয়জ্ঞাপক জয়নুল আবেদীন

আবেদীন জ্বালামুখ সৌরজগতের প্রথম এবং ক্ষুদ্রতম গ্রহ বুধের অন্যতম জ্বালামুখ। ইন্টারন্যাশনাল অ্যাস্ট্রোনমিক্যাল ইউনিয়ন কর্তৃক ৯ জুলাই, ২০০৯ তারিখে বিখ্যাত বাঙালী চিত্রশিল্পী জয়নুল আবেদীনের মানবসভ্যতার মানবিক মূল্যবোধ ও উপলদ্ধিকে গভীরতর করার প্রেক্ষিতে এ জ্বালামুখের নামকরণ হয়েছে।[১] বুধ গ্রহের অধিকাংশ বিষয়াবলীই বিশ্বের মহান চিত্রশিল্পীদের নামানুসারে রাখা হয়েছে।

গঠন প্রক্রিয়া[সম্পাদনা]

মেসেঞ্জার মহাকাশযান থেকে প্রাপ্ত চিত্রে এ জ্বালামুখটির আয়তন ৬৮ মাইল প্রস্থের।[২] খুব সম্ভবতঃ প্রারম্ভিক প্রভাব থেকে নিক্ষিপ্ত ধ্বংসাবশেষ থেকে ছোট ছোট জ্বালামুখের সারি এর চতুপার্শ্বে ছড়িয়ে পড়ে ও কেন্দ্রমূখী উঁচু শিখরের জন্ম দেয়। মসৃণ মেঝে, দেয়ালাকৃতির সোপান ও কেন্দ্রস্থলের উচ্চতায় জটিল জ্বালামুখের অবকাঠামো এতে প্রদর্শিত হচ্ছে। আবেদীনের চারপাশে ছোট ছোট জটিল জ্বালামুখের সম্পর্কতা প্রাথমিক প্রভাব থেকে মুক্ত রেখে মাধ্যমিক মানের জ্বালামুখে পরিণত করেছে। আবেদীনের উত্তর-পশ্চিম অংশের শূন্যতার মাধ্যমে জ্বালামুখের প্রান্তে অবস্থিত বাদ-বাকী উপাদানের তুলনায় নিম্নমূখী প্রতিফলন ঘটছে বলে মনে হয়। এ ছাঁচের মাধ্যমে কৃষ্ণবর্ণাকৃতির উপাদানগুলো প্রাক-সংঘর্ষকালীন সৃষ্ট মূল এলাকার উত্তর-পশ্চিম অংশের কিছু গভীরতম তলদেশে অবস্থান করছে। জ্বালামুখ গঠনকালে এর খননকার্য ও পুণঃস্থাপন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়।[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Gazetteer of Planetary Nomenclature"প্লানেটারিনেমস (ইংরেজি ভাষায়)। United States Geological Survey। ৭ মার্চ ২০১১। সংগৃহীত ১৮ জানুয়ারি ২০১৬ 
  2. "All About Abedin" [আবেদন জালামুখ সম্পর্কে]লাইটসইনদ্যডার্ক.কম (ইংরেজি ভাষায়)। সংগৃহীত ৩০ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  3. "Archived copy"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। আসল থেকে ২০১৬-০২-০৪-এ আর্কাইভ করা। সংগৃহীত ২০০৯-০৮-১৭ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]