আতঙ্কের উপত্যকা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আতঙ্কের উপত্যকা
Valley of fear.jpg
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রকাশিত প্রথম সংস্করণের প্রচ্ছদ
লেখকআর্থার কোনান ডয়েল
মূল শিরোনামThe Valley of Fear
অঙ্কনশিল্পীআর্থার আই কেলার
দেশযুক্তরাজ্য
ভাষাইংরেজি
ধারাবাহিকশার্লক হোমস
ধরনগোয়েন্দা কল্পকাহিনী
প্রকাশকজর্জ এইচ ডোরান কোম্পানি
প্রকাশনার তারিখ
১৯১৫
পূর্ববর্তী বইদ্য রিটার্ন অব শার্লক হোমস 
পরবর্তী বইহিজ লাস্ট বাও 
মূল পাঠ্য
ইংরেজি উইকিসংকলনে The Valley of Fear

আতঙ্কের উপত্যকা (মূল নাম: দ্য ভ্যালি অব ফিয়ার; ইংরেজি: The Valley of Fear) আর্থার কোনান ডয়েল রচিত শার্লক হোমসের চতুর্থ এবং সর্বশেষ উপন্যাস। এটা আংশিকভাবে মোলি ম্যাগুইরস এবং পিঙ্কার্টনের প্রতিনিধি জেমস ম্যাকপারল্যান্ডের ওপর ভিত্তি করে নির্মিত। উপন্যাসটি ১৯১৪ সালের সেপ্টেম্বর মাস হতে ১৯১৫ সালের মে মাসের মাঝামাঝি সময়ে দ্য স্ট্র্যান্ড ম্যাগাজিনে প্রথম প্রকাশিত হয়। ১৯১৪ সালে প্রথম বই সংস্করণটি কপিরাইট করা হয় এবং এটি নিউ ইয়র্ক ভিত্তিক জর্জ এইচ ডোরান কোম্পানি দ্বারা প্রথম প্রকাশিত হয়; বইয়ের প্রচ্ছদটি তৈরি করেছিলেন আর্থার আই কেলার[১]

পটভূমি[সম্পাদনা]

এই উপন্যাসে বার্লস্টোন ম্যানর চরিত্রটি কেন্টের টানব্রিজ কুয়ার নিকটস্থ গ্রুমব্রিজ প্লেসের ওপর ভিত্তি করে নির্মিত।[২] অন্যদিকে, দ্য ভ্যালি অব ফিয়ারের নেপথ্য কাহিনী আংশিকভাবে মোলি ম্যাগুইরসের ওপর ভিত্তি করে নির্মিত।[৩]

প্রকাশ[সম্পাদনা]

দ্য ভ্যালি অব ফিয়ার ১৯১৪ সালের সেপ্টেম্বর মাস হতে ১৯১৫ সালের মে মাস পর্যন্ত দ্য স্ট্র্যান্ড ম্যাগাজিনে ধারাবাহিকভাবে প্রথমবারের মতো প্রকাশিত হয়।[৪] স্ট্র্যান্ড ম্যাগাজিনে, এই উপন্যাসটি ফ্র্যাঙ্ক উইলস দ্বারা অঙ্কিত ৩১টি চিত্র সহকারে প্রকাশ করা হয়েছিল। ১৯১৫ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি নিউ ইয়র্কের জর্জ এইচ ডোরান কোম্পানি স্ট্র্যান্ড ম্যাগাজিনে ধারাবাহিকভাবে প্রকাশ সমাপ্তির পূর্বে বই আকারে প্রথমবারের মতো প্রকাশ করে। ১৯১৫ সালের ৩রা জুন স্মিথ, এল্ডার অ্যান্ড কোম্পানি প্রথমবারের মতো উপন্যাসটির ব্রিটিশ বই সংস্করণ প্রকাশ করা। শার্লক হোমসের প্রথম উপন্যাস আ স্টাডি ইন স্কারলেটের মতো, দ্য ভ্যালি অব ফিয়ারেরও দুটি খণ্ড রয়েছে। প্রথম খণ্ডের শিরোনাম "দ্য ট্রাজেডি অব বার্লস্টোন" এবং দ্বিতীয়টির শিরোনাম "দ্য স্কাউরেস"।[৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Doyle, Arthur Conan (অক্টোবর ১৯৭৯)। John Murray, সম্পাদক। The Sherlock Holmes Omnibus (2nd Illustrated সংস্করণ)। আইএসবিএন 978-0719536915 
  2. Infosite ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ তারিখে, sherlockholmes-fan.com; accessed 13 December 2016.
  3. Klinger, Leslie (ed.). The New Annotated Sherlock Holmes, Volume III (New York: W. W. Norton, 2006). p. 631. আইএসবিএন ৯৭৮-০৩৯৩০৫৮০০০
  4. Smith, Daniel (২০১৪) [2009]। The Sherlock Holmes Companion: An Elementary Guide (Updated সংস্করণ)। Aurum Press। পৃষ্ঠা 158। আইএসবিএন 978-1-78131-404-3 
  5. Cawthorne, Nigel (২০১১)। A Brief History of Sherlock Holmes। Running Press। পৃষ্ঠা 101, 107। আইএসবিএন 978-0762444083 

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]