অটো ইয়েসপার্সেন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
নরওয়েজীয় কৌতুকাভিনেতা, অটো ইয়েসপার্সেন (কৌতুকাভিনেতা) দেখুন।
অটো ইয়েসপার্সেন
Otto Jespersen.jpg
অটো ইয়েসপার্সেন, ১৯১৫
জন্ম ইয়েন্স অটো হ্যারি ইয়েসপার্সেন
(১৮৬০-০৭-১৬)১৬ জুলাই ১৮৬০
র‍্যান্ডারস
মৃত্যু ৩০ এপ্রিল ১৯৪৩(১৯৪৩-০৪-৩০) (৮২ বছর)
রসকিল্ডে
জাতীয়তা ডেনীয়
পেশা শিক্ষাবিদ
কার্যকাল ১৯৮৭-১৯৪৩
যে জন্য পরিচিত ভাষা বিজ্ঞান

অটো ইয়েসপার্সেন [ʌtˢo ˈjɛsb̥ɐsn̩] (জুলাই ১৬, ১৮৬০ - এপ্রিল ৩০, ১৯৪৩) একজন ডেনীয় ভাষাবিজ্ঞানী এবং ইংরেজি ব্যাকরণ বিশেষজ্ঞ।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

অটো ইয়েসপার্সেন জুটল্যান্ডের র‍্যান্ডারসে জন্মগ্রহণ করেন। শৈশবে তিনি ডেনীয় ভাষাবিজ্ঞানী রাস্‌মুস রাস্কের কাজ দ্বারা অনুপ্রাণিত হন এবং রাস্কের ব্যাকরণ শিক্ষা সাহায্যে আইসল্যান্ডীয়, লাতিন ও স্পেনীয় ভাষায় দক্ষতা অর্জন করেন।[১] ১৭ বছর বয়সে তিনি কোপেনহেগেন বিশ্ববিদ্যালয় এ ভর্তি হন। আইন বিষয়ে পড়াশুনা করলেও তিনি ভাষা শিক্ষার চর্চা চালিয়ে যান। ১৮৮১ সালে তিনি সম্পূর্ণরূপে ভাষা শিক্ষায় মনোনিবেশ করেন[২] এবং ১৮৮৭ সালে দ্বিতীয় ভাষা হিসেবে ইংরেজি ও লাতিনসহ ফরাসি ভাষায় স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন। তিনি নিজের ভরণপোষণের জন্য কিছুদিন আংশিক সময়ের স্কুল শিক্ষক ও ডেনীয় পার্লামেন্টে শর্টহ্যান্ড রিপোর্টার হিসেবে কাজ করেন। ১৮৮৭ থেকে ১৮৮৮ সালে তিনি ইংল্যান্ড, জার্মানি, ও ফ্রান্স ভ্রমণ করেন এবং হেনরি সুইটপল পাসির মত ভাষাবিজ্ঞানীদের সাথে সাক্ষাৎ করেন এবং অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় এ বক্তৃতায় অংশগ্রহণ করেন। তার শিক্ষক ভিলহেল্ম থমসেন এর উপদেশানুসারে তিনি ১৮৮৮ সালের আগস্ট মাসে কোপেনহেগেন ফিরে আসেন এবং ইংলিশ কেস সিস্টেম বিষয়ের উপর তার ডক্টরিয়াল ডিসার্টেশন শুরু করেন। ১৮৯১ সালে তিনি কৃতিত্বের সাথে ডক্টরেট ডিগ্রি লাভ করেন।

গ্রন্থতালিকা[সম্পাদনা]

  • দ্য আর্টিকুলেশন্স অফ স্পীচ সাউন্ডস্‌ রিপ্রেজেন্টেড বাই মিনস্‌ অফ অ্যান অ্যালফাবেটিক সিম্বল (১৮৮৯)
  • প্রোগ্রেস ইন ল্যাঙ্গুয়েজ (১৮৯৪)
  • হাউ টু টিচ অ্যা ফরেন ল্যাঙ্গুয়েজ (১৯০৪)
  • গ্রোথ অ্যান্ড স্ট্রাকচার অফ দ্য ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ (১৯০৫)
  • অ্যা মডার্ন ইংলিশ গ্রামার অন হিস্ট্রিকাল প্রিন্সিপালস্‌ (১৯০৯-১৯৪৯)
  • ল্যাঙ্গুয়েজ: ইটস্‌ ন্যাচার, ডেভেলপমেন্ট, অ্যান্ড অরিজিন (১৯২২)
  • দ্য ফিলোসপি অফ গ্রামার (১৯২৪)
  • ম্যানকাইন্ড, ন্যাশন অ্যান্ড ইন্ডিভিজুয়াল: ফ্রম অ্যা লিঙ্গুয়েস্টিক পয়েন্ট অফ ভিউ (১৯২৫)
  • অ্যান ইন্টারন্যাশনাল ল্যাঙ্গুয়েজ (১৯২৮)
  • নোভিয়াল লেক্সিক (১৯৩০)
  • এসেনশিয়ালস্‌ অফ ইংলিশ গ্রামার (১৯৩৩)
  • অ্যানালিটিক সিনট্যাক্স (১৯৩৭)
  • এন স্প্রোগ্‌মান্ডস্‌ লেভ্‌নেড (১৯৩৮)
  • ইফিশিয়েন্সি ইন লিঙ্গুয়েস্টিক চেঞ্জ (১৯৪১)
  • অ্যা লিটারেরি মিস্‌সিলানি: প্রসেডিংস্‌ অফ দ্য অটো ইয়েসপার্সেন সিম্পোজিয়াম এপ্রিল ২৯-৩০ (১৯৯৩)
  • অ্যা লিঙ্গুয়েস্ট্‌স লাইফ (১৯৯৫)

প্রবন্ধ[সম্পাদনা]

  • হোয়াট ইজ দ্য ইউজ অফ ফোনেটিক্স? (ফেব্রুয়ারি ১৯১০)
  • ন্যাচার অ্যান্ড আর্ট ইন ল্যাঙ্গুয়েজ (১৯২৯)
  • অ্যাডভার্সেটিভ কনজাঙ্কশন (১৯৩৩)

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Haislund, Niels (১৯৪৩)। "Otto Jespersen" 
  2. "Otto Jespersen's life and career"Warwick