অচ্যুত লহকর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অচ্যুত লহকর
জন্ম৯ জুলাই, ১৯৩১
পেশাভ্রাম্যমাণ থিয়েটারের জন্মদাতা, নাট্যকার, চলচ্চিত্র নির্মাতা, আলোচনী সম্পাদনা
পুরস্কারঅতুল চন্দ্র হাজরিকা পুরস্কার

অচ্যুত লহকর (ইংরেজি: Achyut Lahakar; অসমীয়া: অচ্যুত লহকর) অসমের ভ্রাম্যমাণ থিয়েটারের জনক রুপে বিখ্যাত ।[১] পরিভ্রমী নাট্যদল যেমন যাত্রা, অপেরা ইত্যাদি থেকে পৃথক ভ্রাম্যমাণ থিয়েটার সৃষ্টি করা ছাড়াও তিনি দিপাবলী নামক একটি আলোচনা পত্রিকা সম্পাদনা ও প্রকাশ করেছিলেন। তিনি চলচ্চিত্র ও নাটক রচনা করা ছাড়াও থিয়েটারের বিভিন্ন কৌশল আবিস্কার করেছিলেন। অতুল চন্দ্র হাজরিকা পুরস্কার দ্বারা সম্মানিত অচ্যুত লহকরকে মঞ্চ প্রভাকর নামেও জানা যায়।[২]

শৈশব ও শিক্ষা[সম্পাদনা]

১৯৩১ সনের জুলাই মাসের ৯জুন তারিখে অসমের পাঠশালার নিকটবর্তী বাগণা নামক স্থানে অচ্যুত লহকর জন্মগ্রহন করেন। তাঁর পিতার নাম গৌরীকান্ত লহকর ও মাতার নাম কান্তিপ্রীয়া লহকর। তিনি পাঠশালা মজলীয়া বিদ্যালয় থেকে প্রাথমিক শিক্ষা গ্রহণ করেন ও ১৯৪৯ সনে বজালী হাইস্কুল( বর্তমান বজালী উচ্চতর মাধ্যমিক বিদ্যালয়) থেকে প্রবেশিকা পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। সেই সময়ে তাঁর পিতৃবিয়োগ হয় ফলে ঘরের সকল দায়িত্ব তাঁকে বহন করিতে হয়।তিনি কলকাতার সেন্ট পল কলেজের বাণিজ্য শাখায় নামভর্তি করেন। কিন্তু তিনি অধ্যয়ন অসমাপ্ত করে পাঠশালায় ফিরে আসেন ও বজালী মহাবিদ্যালয় থেকে প্রাইভেট আই.এ পাশ করেন । তিনি পুনরায় কলকাতায় বি.এ অধ্যয়ন করার জন্য যান। কলকাতায় অধ্যয়নরত সময়ে তিনি অনুবাদের কাজ করে পারিশ্রমিক উপার্জন করেন। তিনি আব্রাহাম লিংকন ও গনতন্ত্র নামক গ্রন্থ অনুবাদ করেছিলেন। বি.এ অধ্যয়ন অসমাপ্ত করে তিনি পুনরায় গৃহে ফিরে আসেন ও তাঁর ভাতৃর দ্বারা প্রতিষ্ঠিত নটরাজ অপেরাকে নতুন রুপ দেওয়ার প্রয়াস করেন। এই প্রয়াসের ফলে ১৯৬৩ সনে ভ্রাম্যমাণ থিয়েটার নটরাজের জন্ম হয়।[৩]

নটরাজ থিয়েটারের জন্ম[সম্পাদনা]

নটরাজ থিয়েটার হচ্ছে অসমের প্রথম ভ্রাম্যমাণ থিয়েটার। বরপেটা জেলার পাঠশালা নগরে ১৯৬৩ সনে এই নাট্যদলটি গঢ়ে উঠেছিল। ১৯৫৯ সনে পাঠশালায় সদানন্দ লহকরে গঠন করা নটরাজ অপেরার যাত্রাদলকে নিয়ে অচ্যুত লহকর নটরাজ থিয়েটার গঠন করেন। [৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Eminent Personalities of Assam"। creative.sulekha.com। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০১৩ 
  2. কিশোর কুমার কলিতা (লেখক-সংকলক) (২০১১)। ভ্রাম্যমাণ থিয়েটারর ইতিহাস (প্রথম খণ্ড)। পাঠশালা: সদৌ অসম ভ্রাম্যমান থিয়েটার প্রযোজক সন্থা। 
  3. মঞ্চপ্রভাকর। পাঠশালা: সদৌ অসম ভ্রাম্যমান থিয়েটার প্রযোজক সন্থা। ২০০৬। 
  4. কিশোর কুমার কলিতা (লেখক), কিশোর কুমার কলিতা আরু ড° রনজিৎ ডেকা (সম্পাদক), পাঠশালা, আনন্দরাম বরুৱা একাডেমী প্রকাশন, পাঠশালা, পৃষ্ঠা ১৫৯ -র পরা উল্লেখিত , ডিচেম্বর, ২০১১