হাবশি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
হাবশি
Siddi Woman.jpg
ভারতের কর্নাটকার একজন হাবশি মহিলা।
মোট জনসংখ্যা
২০,০০০ – ৫৫,০০০ (আনুমানিক)
উল্লেখযোগ্য জনসংখ্যার অঞ্চলসমূহ
কর্ণাটকা, গুজরাট, মহারাষ্ট্র, ভারতের প্রদেশ সমুহ, সিন্ধু এবং পাকিস্তানের বেলুচিস্তান, ইরানের পশ্চিমাঞ্চল যেখানে তাদের আরব হিসেবে গন্য করা হয়।
ভাষাসমূহ

গুজরাটি, মারাঠি, কান্দা, কোনকানি, সিন্ধি, মাকরানি এবং বেলুচ

ধর্ম

প্রধানত মুসলিম, এছাড়া হিন্দু ও ক্যাথলিক খৃষ্টানও আছে।

হাবশি বা সিদ্দি হল এক জাতীগত গোষ্ঠি যারা ভারতপাকিস্তানের কিছু অংশে বসবাস করে। এদের পূর্বপুরুষরা অধিকাংশরাই ছিল আবিসিনিয়ার আদিবাসি যাদের পর্তুগীজ ব্যাবসায়ীরা ধরে ক্রীতদাশ হিসেবে ভারতবর্ষে নিয়ে আসে। ভারতের হায়দ্রাবাদ, গুজরাট ও করনাটকাতে এবং পাকিস্তানের মাকরান ও করাচীতে প্রায় বিশ থেকে পঁচিশ হাজার হাবশী বসবাস করে।[১] অধিকাংশ হাবশি সুফি মুসলিম হলেও হিন্দু এবং ক্যাথলিখ খৃষ্টান হাবশিও রয়েছে।[২]

নামের উৎপত্তি[সম্পাদনা]

হাবশি নামটির উৎপত্তি হয় আরবী আল-হাবশ থেকে। আরবরা আল-হাবশ বলতে বুঝাতো আবিসিনিয়াকে। ইথিওপিয়ান/ আবিসিনিয়ান জাহাজের ক্যাপ্টেনরা এই উপমহাদেশে পণ্যের সাথে কৃতদাশও নিয়ে আসত এবং বিক্রি করে দিত। হাবশিরা শারিরীক ভাবে অনেক শক্তিশালী ছিল এবং অনেক কাজ করতে পারত, তাই ধীরে ধীরে উপমহাদেশে হাবশি কৃতদাশের চাহিদা বৃদ্ধি পেতে থাকে। এই চাহিদার সুযোগ নিয়ে পর্তুগীজ নাবিক এবং ব্যাবসায়ীরা আফ্রিকা থেকে কৃতদাশ ধরে নিয়ে এসে এই উপমহাদেশ বিক্রি করে মুনাফা করত।

হাবশিদের সিদ্দি নামেও ডাকা হয়। এই সিদ্দি নামটির উৎপত্তির ব্যাপারে এখনও বিশ্লেষকরা একমত হতে পারেননি। একটি মতানুশারে সিদ্দি শব্দটি আফ্রিকায় সম্মানসূচক হিসেবে ব্যাবহার করে হত। শুধুমাত্র সম্মানিত আরবদের এই নামে ডাকা হত, অপরদিকে অবজ্ঞা অর্থ ব্যাবহৃত হত সিদ্দি এর বিপরীত শব্দ হাফসি শব্দটি।[৩] ধারনা করা হয় তাদের অবজ্ঞা না করে সিদ্দি নামে ডাকার ফলেই অনেক জায়গায় সিদ্দি নামটি প্রচলিত আছে। অপর মতানুশারে সিদ্দি শব্দটির অর্থ আরব জানাজের ক্যাপ্টেন কতৃক আনিত। এই ক্যাপ্টেনদের বলা হত সাঈদ।[৪]

হাবশিদের অনেকসময় আফ্রো-ইন্ডিয়ান হিসেবেও চিহ্নিত করা হয়।[৫][৬][৭] আরবরা হাবশি বলতে জাঞ্জদের বুঝায় (আরবি জাঞ্জ শব্দের অর্থ আফ্রিকার নিগ্রো) এছাড়া চীনারা আরবি ভাষার অনুবাদ করে হাবশিদের জিঞ্ঝি বা জিঞ্জি শব্দটি ব্যাবহার করে থাকে।[৮][৯][১০]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Kumar Suresh Singh, Rajendra Behari Lal (2003), Gujarat, Anthropological Survey of India (Popular Prakashan), আইএসবিএন 81-7991-106-3, "... At present the Siddis are living in the western coast of Gujarat, Andhra Pradesh, Maharashtra and Karnataka states. Their main concentration is in Junagadh district of Rajkot division. They are a scheduled tribe. According to the 1981 census, the population of the Siddi tribe is 54,291. The Siddi speak Gujarati language within their kin circle as well as with the outsiders. Gujarati script is used ..." 
  2. Shanti Sadiq Ali (1996), The African dispersal in the Deccan, Orient Blackswan, আইএসবিএন 81-250-0485-8, "... Among the Siddi families in Karnataka there are Catholics, Hindus and Muslims ... It was a normal procedure for the Portuguese to baptise African slaves ... After living for generations among Hindus they considered themselves to be Hindus ... The Siddi Hindus owe allegiance to Saudmath ..." 
  3. Ronald Segal (2002), Islam's Black Slaves: The Other Black Diaspora, Macmillan, আইএসবিএন 0-374-52797-0, "... Ethiopians were particularly favored; the term Habashi or Habshi— from the Arabic word for Ethiopian – came to be applied to other Africans as well, and referred not only to the freed but to their descendants ..." 
  4. Vijay Prashad, Everybody Was Kung Fu Fighting: Afro-Asian Connections and the Myth of Cultural Purity, (Beacon Press: 2002), p.8
  5. Ali Al'Amin Mazrui, Toby Kleban Levine (1986), The Africans: a reader, Praeger, আইএসবিএন 0-03-006209-8, "... continue to exist in three main communities. These Afro-Indians, known as "Siddis" ..." 
  6. Joseph E. Harris (1971), The African presence in Asia: consequences of the East African slave trade, Northwestern University Press, আইএসবিএন 0-8101-0348-6, "... In fact, it is frequently said that Afro-Indians in western Gujarat are descendants of escaped slaves. ..." 
  7. Ruth Simms Hamilton (2007), Routes of Passage: Rethinking the African Diaspora, Michigan State University Press, আইএসবিএন 0-87013-632-1, "..." 
  8. Ci Hai 7(1): 125
  9. Roland Oliver, Africa in the Iron Age: c.500 BC-1400 AD, (Cambridge University Press: 1975), p.192
  10. F.R.C. Bagley et al., The Last Great Muslim Empires, (Brill: 1997), p.174

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]