সেত

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সেত
Set.svg
ঝড়, মরুভূমি এবং বিশৃংখলার দেবতা
প্রধান অর্চনাকেন্দ্র ওম্বোস
প্রতীক ওয়াস রাজদণ্ড
পিতা/মাতা গেব এবং নুট
ভাই/বোন ওসাইরিস, আইসিস, নেপথিস
স্বামী/স্ত্রী নেপথিস, Tawaret (কোন বর্ণনাতে), Anat, Astarte
সন্তান আনুবিস (কোন বর্ণনাতে), সবেক (কোন বর্ণনাতে), Upuaut (কোন বর্ণনাতে), Thoth (কোন বর্ণনাতে)
sw W t
x
E20 A40
Sutekh
চিত্রলিপিতে

সেত (ইংরেজি: Seth)(বিকল্প বানান সেথ, সেতেশ, সুতেখ, সেতেখ অথবা সুতি) প্রাচীন মিশরীয় ধর্ম বিশ্বাসে তিনি ছিল মরুভূমি, ঝড় ও বিদেশীদের দেবতা। পরবর্তী পুরাণে তিনি ছিল অন্ধকার এবং বিশৃঙ্খলারও দেবতা। প্রাচীন গ্রিসে তার নাম দেয়া হয়েছিল Σήθ (সেত)।

নামের উৎস[সম্পাদনা]

সেত নামের অর্থ অজানা, কিন্তু ঐতিহাসিক কালে কয়েকটি ছদ্ম-ব্যুৎপত্তি কথা জানা যায়, যারা ইঙ্গিত করে প্রাচীন মিশরীয়রা এই নামটির সাথে তিনটা ভিন্ন অর্থ সম্পৃক্ত করত: দ্বিধার প্রনোদনা দানকারী, পরিত্যাগকারী এবং মাতাল। মিশরীয় চিত্রলিপির উপর ভিত্তি করে থেকে তার নামের উচ্চারণ ধ্বনি পুনঃনির্মিত হয়েছে (Sūtaḫ) হিসেবে এবং কপটিক ভাষায় লিখিত বিভিন্ন দলিল দস্তাবেজে তার উল্লেখ দেখা যায় Sēt[১]

সেত জন্তু[সম্পাদনা]

চিত্রকলায় সেতকে অধিকাংশক্ষেত্রেই একটা কাল্পনিক প্রানী হিসেবে চিত্রত করা হয় যার নাম মিশরতাত্ত্বিকগণ দিয়েছেন "সেত জন্তু" বা টাইফনিয় জন্তু। এই টাইফনের বাঁকান নাক, চারকোনা কান, লেজের প্রান্ত দ্বি-খণ্ডিত এবং কুকুর সদৃশ দেহ; কখনো কখনো সেতকে মানব দেহ এবং সেত জন্তুর মত মাথার অধিকারী হিসেবেও চিত্রিত করা হয়। জানা কোন প্রানীর সাথেই এই জন্তুর সদৃশ্যতা নেই, কিন্তু aardavak, গাধা, শিয়াল অথবা ফেনেক শৃগালের শংকর ভাবা যেতে পারে। বড় আকারের সমতল শীর্ষ বিশিষ্ট শিংগুলো দেখে জিরাফের সাথে সাদৃশ্য প্রস্তাব করেন কোন কোন Egyptologists । তবে, প্রাচীন মিশরীয়রা জিরাফ এবং সেত জন্তুর মধ্যে পার্থক্য বেশ যত্নের সাথেই ফুটিয়ে তুলত। পরবর্তীকালে সেতকে চিত্রিত করা হত গাধা অথবা গাধার মাথা বিশিষ্ট মানবদেহ এঁকে।[২]

গ্রন্থপঞ্জি[সম্পাদনা]

  • Allen, James P. 2004. "Theology, Theodicy, Philosophy: Egypt." In Sarah Iles Johnston, ed. Religions of the Ancient World: A Guide. Cambridge: Harvard University Press. ISBN 0-674-01517-7.
  • Bickel, Susanne. 2004. "Myths and Sacred Narratives: Egypt." In Sarah Iles Johnston, ed. Religions of the Ancient World: A Guide. Cambridge: Harvard University Press. ISBN 0-674-01517-7.
  • Cohn, Norman. 1995. Cosmos, Chaos and the World to Come: The Ancient Roots of Apocalyptic Faith. New Haven: Yale University Press. ISBN 0-300-09088-9 (1999 paperback reprint).
  • Ions, Veronica. 1982. "Egyptian Mythology." New York: Peter Bedrick Books. ISBN 0-87226-249-9.
  • Kaper, Olaf Ernst. 1997. Temples and Gods in Roman Dakhlah: Studies in the Indigenous Cults of an Egyptian Oasis. Doctoral dissertation; Groningen: Rijksuniversiteit Groningen, Faculteit der Letteren.
  • Kaper, Olaf Ernst. 1997. "The Statue of Penbast: On the Cult of Seth in the Dakhlah Oasis". In Egyptological Memoirs, Essays on ancient Egypt in Honour of Herman Te Velde, edited by Jacobus van Dijk. Egyptological Memoirs 1. Groningen: Styx Publications. 231–241, ISBN 90-5693-014-1.
  • Lesko, Leonard H. 1987. "Seth." In The Encyclopedia of Religion, edited by Mircea Eliade, 2nd edition (2005) edited by Lindsay Jones. Farmington Hills, Michigan: Thomson-Gale. ISBN 0-02-865733-0.
  • Osing, Jürgen. 1985. "Seth in Dachla und Charga." Mitteilungen des Deutschen Archäologischen Instituts, Abteilung Kairo 41:229–233.
  • Quirke, Stephen G. J. 1992. Ancient Egyptian Religion. New York: Dover Publications, inc., ISBN 0-486-27427-6 (1993 reprint).
  • Stoyanov, Yuri. 2000. The Other God: Dualist Religions from Antiquity to the Cathar Heresy. New Haven: Yale University Press. ISBN 0-300-08253-3 (paperback).
  • te Velde, Herman. 1967. Seth, God of Confusion: A Study of His Role in Egyptian Mythology and Religion. 2nd ed. Probleme der Ägyptologie 6. Leiden: E. J. Brill, ISBN 90-04-05402-2.

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. .H. te Velde, Seth, God of Confusion: A Study of His Role in Egyptian Mythology and Religion, Probleme der Ägyptologie, 6 , G. E. van Baaren-Pape, transl. (W. Helck. Leiden: Brill 1967), pp.1-7.
  2. H. te Velde, Seth, God of Confusion: A Study of His Role in Egyptian Mythology and Religion, Probleme der Ägyptologie, 6 , G. E. van Baaren-Pape, transl. (W. Helck. Leiden: Brill 1967), pp.13-15.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]