মডেম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

মডেম (মড্যুলেটর-ডিম্যুলেটর এর সংক্ষিপ্ত রূপ) হল একটি যন্ত্র যা একটি প্রেরিত এনালগ সিগনালকে (এনকোড করা) ডিজিটাল তথ্যে রূপান্তর করে এবং ডিজিটাল তথ্যকে পাঠানোর সময় এনকোড (তথ্য নিরাপত্তার জন্য) করে এনালগ সিগনাল হিসেবে প্রেরণ করে। এর উদ্দেশ্য হল সহজে সিগনাল পাঠানো এবং তা আবার একই রকমভাবে অন্য প্রান্তে পাওয়া। ট্রান্সমিশন বা প্ররণের অর্থে যেকোন কাজে মডেম ব্যবহার করা যায় রেডিও থেকে ডাইওড পর্যন্ত।

সবচেয়ে পরিচিত উদাহরণ হল ভয়েসব্যান্ড মডেম যেটা পারসোনাল কম্পিউটারের ডিজিটাল ডেটাকে ইলেট্রিকাল সিগনালে পরিনত করে টেলিফোনের ভয়েস ফ্রিকোয়েন্সি রেন্জ চ্যানেলে পাঠায়, অন্য প্রান্তে আরেকটি মডেম দ্বারা ডিজিটালে পরিনত হয়। মডেমগুলো সাধারণত ভাগ করা হয় কত পরিমান ডেটা তারা পাঠাতে পারে একক সময়ে তার উপর। সাধারণত মাপা হয় সেকেন্ড প্রতি বিট(বিপিএস) হিসেবে। এগুলো এক একক সেকেন্ডে কত পরিমান সংকেত পাঠাতে পারে তার ভিত্তিতে ভাগ করা যায়।

ভয়েস মডেম[সম্পাদনা]

ভয়েস মডেমগুলো সাধারণ মডেম যেগুলো টেলিফোন লাইনের মাধ্যমে প্ররণকৃত অডিও বা শব্দ ধারন করার ক্ষমতা সম্পন্ন ছিল।

জনপ্রিয়তা[সম্পাদনা]

কনজিউমার ইলেক্ট্রনিক এসোসিয়েশনের (সিইএ) একটি সমীক্ষায় পাওয়া গেছে যে আমেরিকায় ডায়াল-আপের মাধ্যমে ইন্টারনেটে প্রবেশ উল্ল্যেখযোগ্য ভাবে কমে আসছে। ২০০২ এ আমেরিকার মোট রেসিডেন্সিয়াল ইন্টারনেট সংযোগের ৭৪% ছিল ডায়াল-আপ নেটওয়ার্ক ব্যবহারকারী। একই ধরনের চিত্র দেখা গেছে কানাডা এবং অস্ট্রেলিয়ায় গত বিশ বছরে।

আমেরিকাতে ২০০৩ এর দিকে ৬০% এ নেমে আসে ডায়াল-আপ মডেম দিয়ে নেটওয়ার্কের ব্যবহার এবং ২০০৬ এ মাত্র ৩৬% এ পৌছায়। নতুন প্রযুক্তির আর্বিভাব ঘটাতে একসময়কার জনপ্রিয় ৫৬কে ধরনের মডেমগুলোর ব্যবহার কমে এসেছে উল্ল্যেখযোগ্য হারে।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

Wikibooks
উইকিবই প্রকল্পে নিম্নের বিষয়ের উপরে সহায়িকা, বই, বা তথ্য রয়েছে:

আদর্শ প্রতিষ্ঠান এবং মডেম প্রটোকলসমূহ[সম্পাদনা]

সাধারন মডেম তথ্য (ড্রাইভার, চিপসেট ইত্যাদি)[সম্পাদনা]

অন্যান্য[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:Modem standards

টেমপ্লেট:Internet access