ভিলহেল্ম ফন গ্লোডেন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ভিলহেল্ম ফন গ্লোডেন, ১৮৯১ সালে

ব্যারন ভিলহেল্ম ফন গ্লোডেন (জার্মান: Wilhelm von Gloeden) (১৬ই সেপ্টেম্বর, ১৮৫৬ – ১৬ই ফেব্রুয়ারি, ১৯৩১) ছিলেন একজন জার্মান ফটোগ্রাফার। তিনি প্রধানত ইতালিতে ফটোগ্রাফি চর্চা করেন। সিসিলিয়ান ছেলেদের রাখালিয়া ‘ন্যুড স্টাডি’ বা নগ্ন পাঠের জন্য তিনি সর্বাধিক পরিচিত। এই ফটোগ্রাফগুলিতে দৃষ্ট কিছু উপাদান যেমন রিদ বা অ্যামফোরা এগুলির সেকেলে গ্রিক বা ইতালীয় পটভূমি নির্দেশ করে। আধুনিক দৃষ্টিকোণ থেকেও আলোর নিয়ন্ত্রিত ব্যবহার ও মডেলদের সৌষ্ঠবপূর্ণ ভঙ্গিমার কারণে এই ফটোগ্রাফগুলি প্রশংসার্হ। ফটোগ্রাফিক ফিল্টারের যুগোত্তীর্ণ ব্যবহার ও বিশেষ দৈহিক মেকআপ তাঁর কাজে শৈল্পিক পূর্ণাঙ্গতা দান করে।

নিজের সমকালে বিশেষ খ্যাতিসম্পন্ন হলেও ফন গ্লোডেনের কাজ পরবর্তী প্রায় একশো বছর বিস্মৃতির আড়ালে চলে যায়। কিন্তু টমাস ওয়া তাঁকে "প্রাক-প্রথম বিশ্বযুদ্ধ যুগের সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ সমকামী ভিজুয়াল আর্টিস্ট"রূপে বর্ণনা করার পর বর্তমানে তিনি আবার আকর্ষণের কেন্দ্রে এসেছেন।[১]

জীবনী[সম্পাদনা]

Gloeden, Wilhelm von (1856-1931) - n. 1241 - Auch ich in Arkadien, p. 24.jpg
Gloeden, Wilhem von (1856-1931) - n. 2742 - ebay1.jpg

ফন গ্লোডেন পরিবার ও তাঁদের উত্তরাধিকারগণ দাবি করেন যে তাঁদের পারিবারিক রেকর্ডের সাক্ষীস্বরূপ কেউ বেঁচে নেই। ব্যারনি ফন গ্লোডেনের প্রতি তাঁর দাবিও পরোয়ানাবিহীন ছিল। ১৮৮৫ সালে ব্যারন ফ্যালকো ফন গ্লোডেনের মৃত্যুর সঙ্গে সঙ্গে সেই ব্যারনিটি অবলুপ্ত হয়।

ফন গ্লোডেন নিজেকে মেকলেনবার্গের একজন নিচুতলার সরকারি পদাধিকারী বলে দাবি করেন। যক্ষ্মায় আক্রান্ত হয়েছেন এই অনুমান করে ১৯৭৬ সালে তিনি সিসিলির তাওরমিনায় আসেন। তিনি ধনী ছিলেন। তিনি তাঁর ফটোগ্রাফ বিক্রি করে প্রাপ্ত আয় অত্যন্ত মহানুভবতার সঙ্গে তাঁর মডেলদের সঙ্গে ভাগ করে নেন। এর ফলে ইতালির এই তুলনামূলকভাবে দরিদ্র অঞ্চলে যথেষ্ট আর্থিক সমৃদ্ধি দেখা দেয়। হয়ত এই কারণেই তাঁর জীবন ও কাজের সমকামী দিকগুলি সম্পর্কে স্থানীয়রা আপত্তি তোলেননি।

ফটোগ্রাফি[সম্পাদনা]

ফন গ্লোডেন মুখ্যত দুই ধরনের ফটোগ্রাফ তোলেন: প্রথমত যেগুলি ইউরোপ ও ইউরোপের বাইরে সর্বাধিক দৃষ্টি আকর্ষণ করেছিল। এই ফটোগ্রাফগুলি ছিল যৌন উপাদান মুক্ত এবং এগুলির হোমোইরোটিক নিহিতার্থও ছিল কম।

অধিক কামোদ্দীপক ফটোগ্রাফগুলিতে ছেলেদের নগ্নতা প্রদর্শিত হয়েছে। এদের দৃষ্টিভঙ্গিমা ও দৈহিক নৈকট্যের যৌন উদ্দীপনামূলক হওয়ায় ফন গ্লোডেন এগুলিকে ঘণিষ্ঠ বন্ধুদের নিকট “গোপনে” বিক্রি করেন।

জার্মানি, ইংল্যান্ডযুক্তরাষ্ট্রে তাঁর ফটোগ্রাফির জনপ্রিয়তার পশ্চাতে প্রধানত তিনটি কারণ বিদ্যমান ছিল:

  • ক্ল্যাসিকাল ও চিত্রকরসুলভ থিম তাঁর ফটোগ্রাফিকে একটি সাংস্কৃতিক "সুরক্ষাকবচ" দান করে।
  • সেই যুগে পুরুষে-পুরুষে প্রেম অনেকের কাছেই অচিন্ত্যনীয় ছিল।
  • নতুন মুদ্রণ প্রযুক্তি তাঁর ফটোগ্রাফের বহুল উৎপাদন এবং পোস্টকার্ড আকারে বিক্রয়ে সাহায্য করে।

ফন গ্লোডেন মোট ৩০০০ ছবি তোলেন। তাঁর মৃত্যুর পর এগুলি তাঁর অন্যতম মডেল প্যাঙ্ক্রাজিও বুসিনির কাছে রয়ে যায়। বুসিনি তাঁর উত্তর আফ্রিকান চেহারার জন্য ইল মোরো নামে পরিচিত ছিলেন। চোদ্দো বছর বয়স থেকে তিনি ছিলেন ফন গ্লোডেনের প্রেমিক। এই সময়ই তিনি ফন গ্লোডেনের গৃহস্থালিতে নিযুক্ত হন। ১৯৩৬ সালে বেনিতো মুসোলিনির পুলিশ পর্নোগ্রাফিক উপাদানের অভিযোগে তাঁর ২,৫০০টি ফটোগ্রাফ নষ্ট করে দেয়। তাই বর্তমানে প্রাপ্ত তাঁর অধিকাংশই ফটোগ্রাফই ব্যক্তিগত সংগ্রহের সৌজন্যে পাওয়া যায়।

সমকালীন অন্যান্য সমজাতীয় ফটোগ্রাফার[সম্পাদনা]

ফন গ্লোডেনের তুতো-ভাই ভিলহেল্ম ফনপ্লাসকো ইতালিরোমে একই ধরনের নগ্ন পুরুষ ফটোগ্রাফি চর্চায় নিযুক্ত ছিলেন। তবে শৈল্পিক দৃষ্টিকোণ থেকে তিনি ছিলেন গ্লোডেনের তুলনায় কম গুরুত্বসম্পন্ন। কারণ প্লাসকোর ব্যবহৃত আলো অত্যন্ত চড়া ও মডেলদের ভঙ্গিমা অত্যন্ত আড়ষ্ট ছিল।

১৮৯০-এর দশকের শুরুতে যখন ফন গ্লোডেন ফটোগ্রাফি চর্চা শুরু করেন তখন প্লাসকো এক লব্ধপ্রতিষ্ঠ ফটোগ্রাফার। মনে করা হয়, তখনকার দিনে জটিল বিষয় হিসেবে চিহ্নিত ফটোগ্রাফির পাঠ গ্লোডেন প্লাসকোর থেকেই পেয়েছিলেন। যদিও অল্পকালের মধ্যেই ফন গ্লোডেন প্লাসকোকে ছাপিয়ে যান। এবং প্লাসকোর শেষের দিকের কাজগুলি প্রায়শই ভুলবশত গ্লোডেনের নামে চিহ্নিত হতে থাকে।

১৯০৭ সাল পর্যন্ত তাঁর সহকারী ভিনসেজো গ্যাল্ডি গোপনে কিছু করে প্লাসকোর নামে চালাতে চেষ্টা করেন। যদিও গ্যাল্ডির ছবিগুলিতে সৌষ্ঠবের ঘাটতি ছিল এবং নারীদের নিয়ে করা তাঁর কাজগুলি অনেকাংশেই পর্নোগ্রাফির পর্যায়ে পর্যবসিত হয়।

গ্যালারি[সম্পাদনা]

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. Nostalgia and the Photography of Wilhelm von Gloeden by Jason Goldman in GLQ: A Journal of Lesbian and Gay Studies 12.2 (2006) 237-258

তথ্যপঞ্জি[সম্পাদনা]

  • Baron Wilhelm von Gloeden (1856–1931). Kunsthalle Basel (1979) Exhibition catalog.
  • 'Wilhelm Von Pluschow and Wilhelm Von Gloeden': Two Photo Essays. (IN: Studies in Visual Communications. Volume 9, Number 2, Spring 1983).
  • Peter Weiermair: Wilhelm Von Gloeden: Erotic Photographs. Taschen Verlag (1994) ISBN 3-8228-9315-3
  • Charles Leslie: "Wilhelm Von Gloeden Photograper. A Brief Introduction to His Life and Work". SoHo Photographic Publishers, New York, 1977. Library of Congress Catalog Card Number 77-83146.
  • Ulrich Pohlmann: Wilhelm von Gloeden: Taormina, München (Schirmer Mosel) 1998, ISBN 3-88814-474-4

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]