বার্থোলিনের গ্রন্থি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বার্থোলিনের গ্রন্থি
Skenes gland.jpg
স্ত্রী যৌন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গসমূহ.
ল্যাটিন glandula vestibularis major
গ্রে বিষয় #270 1266
ধমনী বহিঃস্থ পিউডেন্ডাল ধমনী[১]
স্নায়ু ইলিওইঙ্গুইনাল স্নায়ু [১]
লসিকা superficial inguinal lymph nodes
ভ্রূণবিদ্যা ইউরোজেনিটাল সাইনাস
চিকিৎসীয় শিরোনাম Bartholin's+Glands

বার্থোলিনের গ্রন্থি (Bartholin’s glands) যা বার্থোলিন গ্রন্থি (Bartholin gland) বা গ্রেটার ভেসটিবিউলার গ্রন্থি (greater vestibular glands) নামেও পরিচিত—দুটি গ্রন্থি যা মহিলাদের যোনির প্রবেশদ্বারের কাছে একটু নিচে ডানে ও বামে অবস্থিত। এদের সম্মন্ধে প্রথম বর্ণনা পাওয়া যায় সপ্তদশ শতকে। ড্যানিশ শরীরবিদ ক্যাসপার বার্থোলিন দ্য ইয়াঙ্গার (১৬৫৫-১৭৩৮) এদের বর্ণনা দেন।

বার্থোলিনের গ্রন্থি পুরুষের বালবোউরেথ্রাল গ্রন্থির সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ। যদিও বার্থোলিনের গ্রন্থি সুপারফিশিয়াল পেরিনিয়াল পাউচে অবস্থিত, আর বালবোউরেথ্রাল গ্রন্থি অবস্থিত ডিপ পেরিনিয়াল পাউচে

কাজ ও উদ্দেশ্য[সম্পাদনা]

বার্থোলিনের গ্রন্থি যোনির পিচ্ছিলতা বাড়ানোর জন্য মিউকাস ক্ষরণ করে। একজন মহিলার অর্গাজমের (শীর্ষসুখ) আগে প্রতি মিনিটে কম-বেশি এক বা দুই ফোঁটা তরল ক্ষরণ করে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ১.০ ১.১ Greater Vestibular (Bartholin) gland