গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা
সভাপতি বিমল গুরুং
মহাসচিব রোশন গিরি
সংস্থাপিত ২০০৭
সদর দপ্তর নর্থ পয়েন্ট, সিঙ্গামারি, দার্জিলিং
ওয়েবসাইট
http://www.gorkhajanmuktimorcha.org

গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা (জিজেএম) ভারতের একটি নথিবদ্ধ রাজনৈতিক দল।[১] এই দল পশ্চিমবঙ্গের দার্জিলিং পার্বত্য অঞ্চল ও ডুয়ার্স নিয়ে পৃথক গোর্খাল্যান্ড রাজ্য গঠনের দাবি জানাচ্ছে। ২০০৭ সালের ৭ অক্টোবর এই দল প্রতিষ্ঠিত হয়।[২]

দার্জিলিং পার্বত্য অঞ্চলের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ নেতা বিমল গুরুং দার্জিলিংকে ষষ্ঠ তফসিলভুক্ত করার বিরোধিতা করে গোর্খা ন্যাশানাল লিবারেশন ফ্রন্ট নেতা সুবাস ঘিসিঙের সঙ্গে বিবাদে জড়িয়ে পড়েন।[৩][৪] এই বিবাদের ফলে তিনি দল ভেঙে ২০০৭ সালের ৭ অক্টোবর পৃথক গোর্খাল্যান্ড রাজ্যের দাবিতে জিজেএম প্রতিষ্ঠা করেন।[২]

গোর্খাল্যান্ড রাজ্যের দাবিতে ১৯৮০-এর দশকে দার্জিলিং পার্বত্য অঞ্চলে হিংসাত্মক আন্দোলন হয়। কিন্তু জিজেএম অহিংস আন্দোলন চালানোর সিদ্ধান্ত নেয়।[৫] প্রথম দিকে তারা বনধ, অনশন ধর্মঘট ও পরিষেবা বিল না দিয়ে আন্দোলন চালাতে থাকে।[৬] রাজ্য সরকার এরপর তাঁদের আলোচনার জন্য ডাকেন। কিন্তু রাজ্য সরকার গোর্খাল্যান্ডের দাবি মেনে না নেওয়ায়, আলোচনা ভেস্তে যায়।[৭] পরে ভারত সরকার, রাজ্য সরকার ও জিজেএম-এর মধ্যে ত্রিপাক্ষিক বৈঠক শুরু হয়।[৮] এখনও এই বিষয়ে কোনো মীমাংসাসূত্র পাওয়া যায়নি।

পাদটীকা[সম্পাদনা]