ভারতের রাজনীতি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Emblem of India.svg

এই প্রবন্ধটি নিম্নোক্ত শ্রেণীর অংশ:
ভারতের রাজনীতি


Emblem of India.svg

This article is part of the series:
ভারতীয় সংবিধান

Constitution of India.jpg
প্রস্তাবনা


ভারতের রাজনীতি ব্রিটিশ ওয়েস্টমিনিস্টার সিস্টেমের পরে একটি কেন্দ্রীয় সংসদীয় বহু দলীয় গনতন্ত্রী প্রজাতন্ত্রের একটি কাঠামোতে স্থান গ্রহণ করে আদল করে। ভারতের প্রধানমন্ত্রী সরকারের প্রধান, ভারতের রাষ্ট্রপতির সময় দেশের আনুষ্ঠানিক প্রধান এবং বিপুল ভবিষ্যত সঞ্চয় অধিকার, স্থাপন তাকে ধরে অথবা ব্রিটিশ রাজা হিসেবে আন্দাজ একই অবস্থানে তার। কার্যকরী অধিকার সরকারের দ্বারা অনুশীলন করা হয়। কেন্দ্রীয় আইনের ক্ষমতা উভয় সরকারে অর্পন করা হয় এবং ভারতীয় সংসদের দুই কক্ষ। বিচারবিভাগ কার্যকরী এবং আইনসভার স্বাধীন।যুক্তরাষ্ট্রীয় স্তরে ভারত বিশ্বের বৃহত্তম গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র।[১][২] স্বাধীনতার পর অধিকাংশ সময়ই ভারতের শাসনকর্তৃত্ব ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের কুক্ষিগত ছিল।[৩] অন্যদিকে রাজ্যগুলির রাজনীতিতে প্রাধান্য বিস্তার করে ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস, ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি), ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্কসবাদী) (সিপিআই(এম)) প্রভৃতি জাতীয় দল ও একাধিক আঞ্চলিক পার্টি। দুটি সংক্ষিপ্ত সময়কালকে বাদ দিলে ১৯৫০ সাল থেকে ১৯৯০ সাল অবধি জাতীয় কংগ্রেস সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের মর্যাদা ভোগ করেছে। প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী ঘোষিত জরুরি অবস্থার কারণে জন-অসন্তোষকে কাজে লাগিয়ে ১৯৭৭ থেকে ১৯৮০ মধ্যবর্তী সময়ে কংগ্রেসকে ক্ষমতাচ্যুত করে জনতা পার্টি সরকার গঠন করে। ১৯৮৯ সালে জনতা দলের নেতৃত্বে জাতীয় ফ্রন্ট বামফ্রন্টের সহযোগিতায় নির্বাচনে জয়লাভ করে দু-বছর ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত থাকে।[৪] ১৯৯১ সালে কোনও পার্টি সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ না করতে পারায় কংগ্রেস পি ভি নরসিমা রাওয়ের প্রধানমন্ত্রিত্বে একটি সংখ্যালঘু সরকার গঠন করে। এই সরকার অবশ্য পূর্ণ মেয়াদে ক্ষমতায় টিকে থাকতে সক্ষম হয়। [৫]

১৯৯৬-১৯৯৮ সালটি যুক্তরাষ্ট্রীয় সরকারের অস্থিরতার যুগ। এই সময় একাধিক স্বল্পসময়ের জোট কেন্দ্রে সরকার গঠন করে। ১৯৯৬ সালে সংক্ষিপ্ত সময়কালের জন্য বিজেপি সরকার গঠন করে। তারপর কংগ্রেস ও বিজেপি বিরোধী যুক্তফ্রন্ট ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হয়। ১৯৯৮ সালে বিজেপির নেতৃত্বে ন্যাশানাল ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্স (এনডিএ) ক্ষমতা দখল করে। এই সরকারই ভারতের প্রথম পূর্ণ সময়কালের অকংগ্রেসি সরকার।[৬] ২০০৪ সালের সাধারণ নির্বাচনে কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউনাইটেড প্রগ্রেসিভ অ্যালায়েন্স (ইউপিএ) লোকসভায় বিপুল সংখ্যক আসনে জয়লাভ করে এবং বিজেপি-বিরোধী বাম সাংসদদের সহায়তায় সরকার গঠন করে। ইউপিএ ২০০৯ সালের সাধারণ নির্বাচনে পুনরায় ক্ষমতায় আসে। অবশ্য, জোটের মধ্যে বামপন্থী পার্টির প্রতিনিধিত্ব গুরুত্বপূর্ণভাবে কমেছে।[৭]

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. "Country profile: India"। BBC। 9 January 2007। সংগৃহীত 2007-03-21 
  2. "World's Largest Democracy to Reach One Billion Persons on Independence Day"United Nations Department of Economic and Social AffairsUnited Nations: Population Division। সংগৃহীত 2007-12-06 
  3. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; LOC_PROFILE নামের ref গুলির জন্য কোন টেক্সট প্রদান করা হয়নি
  4. Bhambhri, Chandra Prakash (1992)। Politics in India 1991-92। Shipra Publications। পৃ: 118, 143। আইএসবিএন 978-8185402178 
  5. "Narasimha Rao passes away"The Hindu। সংগৃহীত 2008-11-02 
  6. Patrick Dunleavy, Rekha Diwakar, Christopher Dunleavy। "The effective space of party competition" (PDF)। London School of Economics and Political Science। সংগৃহীত 2007-10-01 
  7. Hermann, Kulke; Dietmar Rothermund (2004)। A History of India। Routledge। পৃ: 384। আইএসবিএন 978-0415329194  |coauthors= প্যারামিটার অজানা, উপেক্ষা করুন (সাহায্য)

আরও দেখুন[সম্পাদনা]