উল্কি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
উল্কি অঙ্কিত একজন মাউরি নেতার মুখমণ্ডল। আনুমানিক ১৭৬৯ খ্রিস্টাব্দের অঙ্কিত চিত্র

উল্কি (ইংরেজি: tattoo — উচ্চারণ: ট্যাটূ) হচ্ছে এক ধরনের শিল্প, যেখানে অমোচনীয় কালি শরীরের ত্বকের রং পরিবর্তন করার জন্য বা অন্য কোনো উদ্দেশ্যে ত্বকের ওপরাংশে প্রয়োগ করা হয়। উল্কি মানুষের শরীর সাজানোর একটি অংশ, এবং প্রাণীদের ক্ষেত্রে উল্কিকরণ করা হয় মূলত নির্ধারণ ও ব্র্যান্ডিং-এর জন্য।

বিশ্বজুড়েই উল্কি প্রচলন দেখা যায়। জাপানের আদি জাতিগোষ্ঠী আইনু ঐতিহ্যবাহীভাবে তাঁদের মুখে উল্কি ব্যবহার করে। বর্তমান বিশ্বেও ঐতিহ্যগতভাবে উল্কি ব্যবহারের প্রচলন রেখেছে এমন কতোগুলি জাতি হচ্ছে, উত্তর আফ্রিকার বার্বারের টামাজঘা, নিউ জিল্যান্ডের মাউরি, এবং তাইওয়ানের আতায়াপলিনেশীয় জনসাধারণের মাঝে এবং তাইওয়ান, বোর্নিও, মেন্তাওয়ী দ্বীপপুঞ্জ, আফ্রিকা, উত্তর আমেরিকা, দক্ষিণ আমেরিকা, মেসোআমেরিকা, ইউরোপ, জাপান, কম্বোডিয়া, নিউ জিল্যান্ড, মাইক্রোনেশিয়ার নির্দিষ্ট কিছু জনসাধারণের মধ্যেও উল্কি ব্যবহারের প্রচলন দেখা যায়। বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে আধুনিক সমাজের জনগণের মাধ্যমেও ট্যাটুর ব্যবহার ক্রমান্বয়ে জনপ্রিয় হচ্ছে।

হযরত আবু হুরায়রা (রা) কতৃর্ক বর্ণিত। তিনি বলেন, নবী করীম (ছ) বলেছেন, বদনজর লাগা সত্য এবং তিনি অঙ্গে উলকি করতে বারণ করেছেন”। ---হাদীস (বোখারী শরীফ)