২০০৭-এর চট্টগ্রামের ভূমিধ্বস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

২০০৭ সালের ১১ই জুন তারিখে বাংলাদেশের বন্দর নগরী চট্টগ্রামে বৃষ্টিজনিত ভূমিধ্বসে অন্তত ১২২ জনের প্রাণহানী ঘটে।[১][২] প্রবল বর্ষণের ফলে পাহাড় থেকে মাটি ও কাদার ঢল পাহাড়ের পাদদেশে অবস্থিত বস্তি ও কাঁচা ঘরবাড়ি উপরে ধ্বসে পড়লে বহু মানুষ চাপা পড়ে যায়। অনেকে মানুষ নিখোঁজ হয়। রবিবার থেকে চলা টানা বর্ষণ এই ঘটনার মূল কারণ। আবহাওয়াবিদদের মতে কয়েক ঘণ্টার মধ্যে চট্টগ্রামে ২০ সে.মি.[১] এরও বেশি বৃষ্টিপাত হয়।

উদ্ধার তৎপরতা[সম্পাদনা]

উষ্ণমণ্ডলীয় বৃষ্টিপাত পরিমাপের উদ্দেশ্যে উপগ্রহের ভিত্তিতে জুন ৭, ২০০৭ তারিখে বাংলাদেশের উপর মোট বৃষ্টিপাতের পরিমাণ। লাল রঙে ৫০০ মিমি (২০ ইঞ্চি) ভারি বৃষ্টিপাত দেখানো হয়েছে।

উদ্ধারকর্মীরা দিনভর তৎপরতা চালিয়ে যায় এবং মৃত ও আহতের সংখ্যা বেড়ে চলে। সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা হচ্ছে হাটহাজারী, যেখানে তিনটি পরিবার চার মিটার মাটির নিচে চাপা পড়েছে। দোকান-পাট, বিদ্যালয় ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠানে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা চরম ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সূত্রমতে এলাকার কিছু যায়গায় কোমর পরিমাণ পানি জমে যায়। অনেক অধিবাসী বর্তমানে স্থানীয় মসজিদে আশ্রয় গ্রহণ করে।[৩][৪] বিশেষজ্ঞের মতে এটি চট্টগ্রামের ইতিহাসে ভয়াবহতম ভূমিধ্বস। চট্টগ্রাম শহরের প্রায় ১.৫ মিলিয়ন মানুষ যা শহরের মোট জনসংখ্যার এক তৃতীয়াংশ, তিন থেকে চার ফুট পানিতে আটকা পড়ে।[১][৫]

চট্টগ্রাম বিমানবন্দরের সকল ফ্লাইট বাতিল করা হয় এবং বাংলাদেশের আমদানী-রপ্তানির ৯০ শতাংশ যে বন্দর থেকে আসে, সেই চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর বন্ধ হয়ে যায়। ১২ জুন, পর্যন্ত চট্টগ্রামে ৩৯৭ মি.মি. বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়।

প্রতিক্রিয়া[সম্পাদনা]

তৎকালীন রাষ্ট্রপতি ইয়াজুদ্দিন আহমেদ এবং প্রধান উপদেষ্টা ফখরুদ্দীন আহমদ ঘটনায় মর্মাহত হন এবং পরিস্থিতির দিকে নজর রাখেন। বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ক্ষতিগ্রস্থদের জন্য শোক প্রকাশ করে। তত্ত্বাবধায়ক সরকার ক্ষমতায় আসার পর এটিই বাংলাদেশের প্রথম প্রাকৃতিক দুর্যোগ। সরকার ক্ষতিগ্রস্থদের ক্ষতিপূরণের আশ্বাস দেয়। ঝুকিপূর্ণ স্থানের অধিবাসীদের নিরাপদ স্থানে সরানোর ব্যবস্থা করা হয়। প্রতি ক্ষতিগ্রস্থ ব্যক্তিকে চাল, বিস্কুট, শাড়ি, লুঙ্গি ও ৩,০০০ টাকা দেওয়া হয়।[৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Mudslides kill many in Bangladesh বিবিসি, ১১ জুন ২০০৭।
  2. মৃত্যুর মিছিল গিয়ে শেষ হলো গণকবরে ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৭ সেপ্টেম্বর ২০০৭ তারিখে দৈনিক প্রথম আলো জুন ১৪, ২০০৭
  3. Bangladesh landslides, rain kill 68 people, রয়টার্স, ১১ জুন ২০০৭।
  4. Floods, landslides claim 52 in Bangladesh ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৯ সেপ্টেম্বর ২০০৭ তারিখে. The Nation. ১১-০৬-২০০৭।
  5. Landslides kill 30 in Bangladesh, IOL, ১১-০৬-২০০৭।
  6. বি ডি নিউজ, জুন ১২, ২০০৭, বাংলাদেশ সময়: রাত ৯.০২,