হেইসন মুরিয়ো

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
হেইসন মুরিয়ো
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম হেইসন ফ্যাবিয়ান মুরিয়ো সেরন
জন্ম (1992-05-27) ২৭ মে ১৯৯২ (বয়স ২৬)
জন্ম স্থান কালি, কলম্বিয়া
উচ্চতা ১.৮২ মিটার (৬ ফুট ০ ইঞ্চি)[১]
মাঠে অবস্থান রক্ষণভাগের খেলোয়াড়
ক্লাবের তথ্য
বর্তমান ক্লাব বার্সেলোনা
জার্সি নম্বর ১৭
যুব পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন
২০০৯–২০১০ দেপোর্তিভো কালি
জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন*
বছর দল উপস্থিতি (গোল)
২০১০–২০১১ উদিনেসে ক্যালসিও (০)
২০১০–২০১১ → গ্রানাদা বি (ধারে) ২২ (২)
২০১১–২০১৫ গ্রানাদা ৫১ (১)
২০১১–২০১২ → কাদিজ (ধারে) ২৭ (৩)
২০১২–২০১৩ → লাস পালমাস (ধারে) ৩৭ (৩)
২০১৫–২০১৮ ইন্তারনাজিওনালে ৬১ (২)
২০১৭–২০১৮ভ্যালেন্সিয়া (ধারে) ১৭ (০)
২০১৮– ভ্যালেন্সিয়া (০)
২০১৯–বার্সেলোনা (ধারে) (০)
জাতীয় দল
২০০৯ কলম্বিয়া অনূর্ধ্ব-১৭ (১)
২০১১ কলম্বিয়া অনূর্ধ্ব-২০ (০)
২০১৪– কলম্বিয়া ২৭ (১)
  • পেশাদারী ক্লাবের উপস্থিতি ও গোলসংখ্যা শুধুমাত্র ঘরোয়া লিগের জন্য গণনা করা হয়েছে এবং ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

† উপস্থিতি(গোল সংখ্যা)।

‡ জাতীয় দলের হয়ে খেলার সংখ্যা এবং গোল ১২ অক্টোবর ২০১৮ তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

হেইসন ফ্যাবিয়ান মুরিয়ো সেরন (জন্ম: ২৭ মে ১৯৯২) একজন কলম্বিয়ান পেশাদার ফুটবলার যিনি স্পেনীয় ক্লাব বার্সেলোনা এবং কলম্বিয়া জাতীয় দল এর হয়ে সেন্টার ব্যাক হিসেবে খেলেন।

মুরিয়োর ফুটবলার জীবনে হাতেখড়ি হয় কলম্বিয়ার স্থানীয় ক্লাব দেপোর্তিভো কালি এর হয়ে। ২০১০ সালে তিনি ইতালির ক্লাব উদিনেসে তে যোগ দেন। সেখান থেকে তাকে তখনই স্পেনের ক্লাব গ্রানাডায় ধারে পাঠানো হয়। সেই বছরই গ্রানাডা বি দলের হয়ে তিনি তার পেশাদার ক্যারিয়ার শুরু করেন। ২০১১ সালে গ্রানাডা তাকে কিনে নিয়ে ধারে পাঠায় স্পেনীয় ক্লাব কাদিজ এ। ২০১২ সালে তাকে আবারও ধারে পাঠানো হয় আরেক স্পেনীয় ক্লাব লাস পালমাস এ। ২০১৩ সালে তিনি গ্রানাডায় ফিরে আসেন এবং ২০১৫ সাল পর্যন্ত সেখানে খেলেন। ২০১৫ সালে ইতালীয় ক্লাব ইন্তারনাজিওনালে তাকে কিনে নেয়। ২০১৭ সালে মুরিয়ো ভ্যালেন্সিয়ায় ধারে যোগ দেয়ার মধ্য দিয়ে স্পেনে প্রত্যাবর্তন করেন। ২০১৮ সালে ভ্যালেন্সিয়া তাকে পাকাপাকিভাবে কিনে নেয়। ২০১৯ সালের জানুয়ারিতে তিনি ধারে যোগ দেন স্পেনের বার্সেলোনায়

মুরিয়ো কলম্বিয়া অনূর্ধ্ব-১৭ এবং অনূর্ধ্ব-২০ দলে খেলেছেন। ২০১৪ সালের ১০ অক্টোবর এল সালভাদর এর বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে মুরিয়োর কলম্বিয়া জাতীয় দল এ অভিষেক হয়। ২০১৫ কোপা আমেরিকায় ব্রাজিলের বিপক্ষে ১-০ ব্যবধানে জেতা ম্যাচে তিনি একমাত্র গোলটি করেন। পরবর্তীতে তিনি উক্ত টুর্নামেন্টের সেরা উদীয়মান খেলোয়াড় নির্বাচিত হন।

পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

ক্লাব[সম্পাদনা]

১৮ জানুয়ারি ২০১৯ পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।[২]
ক্লাব মৌসুম লিগ কাপ ইউরোপ মোট
উপস্থিতি গোল উপস্থিতি গোল উপস্থিতি গোল উপস্থিতি গোল
গ্রানাদা ২০১৩–১৪ ৩২ ৩৪
২০১৪–১৫ ১৯ ১৯
মোট ৫১ ৫৩
কাদিজ (ধারে) ২০১১–১২ ২৭ ২৯
মোট ২৭ ২৯
লাস পালমাস (ধারে) ২০১২–১৩ ৩৭ ৪১
মোট ৩৭ ৪১
ইন্তারনাজিওনালে ২০১৫–১৬ ৩৪ ৩৫
২০১৬–১৭ ২৭ ৩০
মোট ৬১ ৬৫
ভ্যালেন্সিয়া (ধারে) ২০১৭–১৮ ১৭ ১৭
ভ্যালেন্সিয়া ২০১৮–১৯
মোট ১৮ ২০
বার্সেলোনা (ধারে) ২০১৮–১৯
সর্বমোট ১৯৪ ১৪ ২১৪ ১০

আন্তর্জাতিক[সম্পাদনা]

১২ অক্টোবর পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।
কলম্বিয়া
সাল উপস্থিতি গোল
২০১৪
২০১৫ ১১
২০১৬ ১০
২০১৭
২০১৮
মোট ২৭

অর্জন[সম্পাদনা]

আন্তর্জাতিক[সম্পাদনা]

ব্যক্তিগত[সম্পাদনা]

  • কোপা আমেরিকা সেরা উদীয়মান খেলোয়াড়: ২০১৫[৩]
  • কোপা আমেরিকা বর্ষসেরা দল: ২০১৫[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Jeison Murillo"। Inter Milan। ২০ ডিসেম্বর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  2. হেইসন মুরিয়ো প্রোফাইল সকারওয়েতে
  3. "2015 Copa America awards: Vargas, Guerrero beat Aguero, Vidal to top scorer"NBC Sports। ৪ জুলাই ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৫ জুলাই ২০১৫ 
  4. "Copa América 2015 – Team of the tournament"। Copa América Chile। ৫ জুলাই ২০১৫। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ জানুয়ারি ২০১৬