হলুদ বাতাসি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

হলুদ বাতাসি
Yellow Sailer
Open wing posture Basking of Neptis ananta Moore, 1858 – Yellow Sailer WLB DSC 9058.jpg
ডানা খোলা অবস্থায়
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: Animalia
পর্ব: Arthropoda
শ্রেণী: Insecta
বর্গ: Lepidoptera
পরিবার: Nymphalidae
গণ: Neptis
প্রজাতি: N. ananta
দ্বিপদী নাম
Neptis ananta
Moore, 1858

হলুদ বাতাসি[১] (বৈজ্ঞানিক নাম: Neptis ananta (Moore)) 'নিমফ্যালিডি'(Nymphalidae) গোত্র ও 'লিমেনিটিডিনি' (Limenitidinae) উপ-গোত্রের অন্তর্ভুক্ত প্রজাতি।

আকার[সম্পাদনা]

হলুদ বাতাসি এর প্রসারিত অবস্থায় ডানার আকার ৫৫-৭০ মিলিমিটার দৈর্ঘ্যের হয়।[২]

উপপ্রজাতি[সম্পাদনা]

ভারতে প্রাপ্ত হলুদ বাতাসি এর উপপ্রজাতি হল-[৩]

  • Neptis ananta ananta Moore, 1858 – West Himalayan Yellow Sailer
  • Neptis ananta ochracea Evans, 1924 – East Himalayan Yellow Sailer

বিস্তার[সম্পাদনা]

ভারত (হিমাচল প্রদেশ থেকে অরুণাচল প্রদেশ ও উত্তর-পূর্ব ভারত) নেপাল, ভুটান, মায়ানমার এর বিভিন্ন অঞ্চলে এদের পাওয়া যায়।[২]

বর্ণনা[সম্পাদনা]

প্রজাপতির দেহাংশের পরিচয় বিষদ জানার জন্য প্রজাপতির দেহ এবং ডানার অংশের নির্দেশিকা দেখুন:-

এই দুর্লভ প্রজাতি জারদ বাতাসি (Neptis miah) ও নাম্বা সেইলার (Neptis namba) প্রজাতির সহিত ভীষণ সাদৃশ্যযুক্ত এবং চট করে এদের পৃথকীকরণ করা খুবই কঠিন।[২]

ডানার উপরিতল : ডানার উপরিতল কালচে বাদামি বা কালো ও কমলা-হলুদ দাগ-ছোপ-বন্ধনী যুক্ত। সামনের ডানায় সেল-এর দাগটি লম্বা,অনুভূমিক (horizontal),অবিচ্ছিন্ন ও ডানার গোড়া (base) থেকে সরুভাবে উৎপন্ন হয়ে ক্রমশ চওড়া হয়ে শেষপ্রান্তে তীক্ষ্ণ। উক্ত সেল -এর দাগটির উপরের কিনারায় শেষপ্রান্তের খানিক আগে একটি ছোট খাঁজ যুক্ত (dentate)। ডিসকাল ছোপগুলির মধ্যে ১ ও ২ নং শিরামধ্যের (inter-space) ছোপ দুটি সুস্পষ্টভাবে পৃথক এবং ২ নং এর ছোপটি আকারে বড়। কোস্টা থেকে ডানার মধ্যভাগ পর্যন্ত বিস্তৃত বাকি ডিসকাল ছোপগুলি অসংলগ্ন ভাবে সংযুক্ত ও বিভিন্ন আকৃতির ।সাব-টার্মিনাল রেখাটি অস্পষ্ট ও ফ্যাকাশে এবং শীর্ষভাগ (apex) থেকে টরনাস পর্যন্ত বিন্যস্ত।

পিছনের ডানার ডিসকাল বন্ধনীটি (কারো কারো মতে সাব-বেসাল বন্ধনী) চওড়া, অনুভূমিক ও সুস্পষ্ট এবং কালো শিরা দ্বারা খণ্ডিত। উক্ত বন্ধনীটি কোস্টাল শিরার নিচ থেকে ডানার গোড়া পর্যন্ত বিন্যস্ত ।এই বন্ধনীটির নিচে সরু ফ্যাকাশে একটি ডিসকাল রেখা বর্তমান। কালো শিরায় খণ্ডিত একটি পোস্ট-ডিসকাল সরু বন্ধনী কোস্টাল শিরার নিচ থেকে ডরসাম অবধি বক্রভাবে বিন্যস্ত ।সাব-টার্মিনাল রেখাটি সামনের ডানারই অনুরূপ ।উভয় ডানায় সিলিয়া (cillia) পর্যায়ক্রমে সাদা ও কালো।

ডানার নিম্নতল : ডানার নিম্নতল মরচেরঙা বাদামি বা লালচে বাদামি এবং দাগ-ছোপ-বন্ধনী উপরিতলেরই অনুরূপ, তবে সাদা ও ফ্যাকাশে বা কখনো ঈষদ হলুদ আভাযুক্ত। সামনের ডানার সাব-কোস্টাল ডিসকাল ছোপগুলির সর্বনিম্ন ছোপটি অস্পষ্ট ও ছোট এবং উক্ত ছোপগুলিকে বেষ্টন করে একটি অস্পষ্ট ফ্যাকাশে সাদা আঁকাবাঁকা পোস্ট-ডিসকাল রেখা বিদ্যমান। সাব-টার্মিনাল রেখাটি খুব অস্পষ্ট।পিছনের ডানায় বেসাল-কোস্টাল (কোস্টার গোড়ার অংশের) চওড়া দাগটি ফ্যাকাশে সাদা। সেল-এর গোড়ার অংশ দাগহীন। ডিসকাল রেখাটি ফ্যাকাশে রুপালি বর্ণের তবে স্পষ্ট। পোস্ট-ডিসকাল বন্ধনী ফ্যাকাশে বাদামি বর্ণের ও উপরিতল অপেক্ষা বেশি চওড়া ।সাব-টার্মিনাল রেখাটি ফ্যাকাশে বর্ণের তবে স্পষ্ট ।পিছনের ডানার শিরাগুলি উপরিতল অপেক্ষা স্পষ্টতর ভাবে প্রতীয়মান।

শুঙ্গ কালো ও শীর্ষে কমলা-হলুদ। মাথা, বক্ষদেশ (thorax) ও উদর উপরিতলে কালচে বাদামি বা কালো এবং নিম্নতলে ফ্যাকাশে সাদা।[৪]

আচরণ[সম্পাদনা]

দুর্লভ দর্শন এই প্রজাতির উড়ান মোটামুটি মধ্যগতির , তবে প্রয়োজনে এরা গতিবৃদ্ধি করতে পারে। স্বভাব মোটের উপর অন্যান্য সেইলারদের মতো। এরা ডানা অনুভূমিক রেখে বাতাসে ভেসে ওড়ে (glide) ও মাঝেমাঝে ডানা ঝাপটায় ।পাতায় ডানা মেলা ও বন্ধ অবস্থায় বসে রসপান, রোদ পোহানো এবং ভিজে মাটিতে বা পাথরের ভিজে ছোপে বসেও খ্যাদরস আহরণ ও রোদ পোহানো এদের অভ্যাসের মধ্যে পড়ে। জঙ্গলের পথের ধরে নদী-ঝর্ণার কিনারা, নদীখাত এদের পছন্দের বাসস্থান। এই প্রজাতি ফুলে অবস্থান করে মধুপান করে। এরা কখনো কখনো এক জায়গায় অনেকক্ষন বসে থাকে ও ক্রমাগত ডানা খোলা-বন্ধ করতে থাকে। পাহাড়ি জঙ্গলে ৯৭০ থেকে ২৩০০ মি, উচ্চতা পর্যন্ত মার্চ থেকে ডিসেম্বর অবধি এই প্রজাতির বিচরণ চোখে পড়ে।[১][৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. A Pictorial Guide Butterflies of Gorumara National Park (2013 সংস্করণ)। Department of Forests Government of West Bengal। পৃষ্ঠা 228। 
  2. Isaac, Kehimkar (২০০৮)। The book of Indian Butterflies (ইংরেজি ভাষায়) (1st সংস্করণ)। নতুন দিল্লি: অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় প্রেস। পৃষ্ঠা 378। আইএসবিএন 978 019569620 2 
  3. "Neptis ananta Moore, 1858 – Yellow Sailer"। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মার্চ ২০১৯ 
  4. Wynter-Blyth, M.A. (1957) Butterflies of the Indian Region, pg 194.
  5. Kunte, Krushnamegh (২০১৩)। Butterflies of The Garo Hills। Dehradun: Samrakshan Trust, Titli Trust and Indian Foundation of Butterflies। পৃষ্ঠা 105।