সোলাস্টালজিয়া

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

সোলাস্টালজিয়া (/ˌsɒləˈstælə/) একটি পুরাতন শব্দ যাকে আবার নতুন রূপ দেয়া হয়েছে এবং এটি দ্বারা পরিবেশের পরিবর্তনের সাথে মানুষের মানসিক যে চাপ সৃষ্টি হয় তাকে বুঝানো হয়। আরেকভাবে বললে বলা যায় যে এটা হচ্ছে মানুষের জীবদ্দশায় অনুভব করা অনুভূতি বা পরিবেশের সাথে খাপ খাইয়ে নেয়া । শোক এবং সোলাস্টালজিয়ার মধ্যে পার্থক্য হচ্ছে শোক পালন করা হয় যার জন্য তা আর ফিরে পাওয়া যায় না আর সোলাস্টালজিয়াতে মানুষের মানসিক অবস্থার বিবেচনা করা হয় (যাকে তুলনা করা যায় "পূর্ববর্তী মানসিক চাপ",পরবর্তী মানসিক চাপ এর সাপেক্ষে)

গ্লেন আলব্রেক্ট এটাকে ব্যাখ্যা করেছেন এভাবে j এটা হচ্ছে ঘরকাতুরেপনা যখন কেউ ঘরে আছে এবং ঘরের পরিবেশ বদলানোতে তুমি মানসিক চাপ অনুভব করছ।বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই জলবায়ু পরিবর্তন এর কারণে হয়,তাছাড়াও বিভিন্ন এলাকাভিত্তিক ঘটনা যেমন - ভলক্যানো উদগীরণ, খরা বা অনিরাপদ মাইনিং প্রযুক্তি এগুলির কারণেও হয়।[১] দার্শনিক গ্লেন আলব্রেক্ট এর ২০০৫ সালে[২] প্রকাশিত ধারণা অনুযায়ী দুটি লাতিন শব্দ দ্বারা এটি গঠিত সোলাসিযাম(আরাম) এবং গ্রীক শব্দ -এলগিয়া(ব্যথা)।ঘরকাতুরেপণা কে আলাদা রেখে সোলাস্টাজিয়া মানে আসলেই পরিবেশের সাথে মানসিক অবস্থার সম্পর্ক। [২]২০১৫ সালে মেডিক্যাল প্রতিবেদন দি লানচেট ও এটিকে মানুষের শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের উপর জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব হিসাবে উল্লেখ করেছে। [৩]

বিভিন্ন আঙ্গিকে[সম্পাদনা]

আলব্রেক্ট কর্তৃক ২০০৫ সালে প্রকাশিত নিবন্ধে ২ টি বিষয়কে মুখ্য করে দেখা হয়:নিউ সাউথ ওয়েলস এলাকায় চলমান খরার প্রভাব এবং  সম্পূর্ণ উন্মুক্ত উপায়ে নিউ সাউথ ওয়েলস এলাকার আপার হান্টার ভ্যালি তে কয়লা উত্তোলন মানুষের উপর কি প্রভাব ফেলছে।[৪]

দুই ক্ষেত্রেই দেখা যায় যে মানুষের উপর নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে এবং মানুষ শক্তিহীনতায় ভুগসে।একটি এলাকার যে  ভূমিপ্রকৃতি তাতে পরিবর্তন এর ফলে মানুষের মধ্যে যে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হয় তাকেই সোলাস্টালজিয়া বলে।[১] আস্কলাণ্ড এর নিবন্ধ অনুযায়ী সামাজিক এবং রাজনৈতিকভাবে মানুষের মধ্যে মিথষ্ক্রিয়া বিঘ্নিত হয় এবং ওই জাতি সোলাস্টালজিয়াতে ভোগে।[৫] যেসমস্ত সমাজ বেশি কৃষির সাথে যুক্ত তারাই এতে বেশি আক্রান্ত এবং অন্যান্যরা এত ক্ষতিগ্রস্ত হয়না। [৬] কৃষিভিত্তিক সমাজ যারা তারাই বেশি ঝুঁকির মুখে আছে।[৬] আফ্রিকা অঞ্চলে এমন প্রচুর উদাহরণ রয়েছে যে পরিবেশের পরিবর্তনের জন্য অনেক মূল্যবান কৃষিজ ফসল হারিয়ে গেছে।[৬]এর ফলে সাম্প্রতিক বছরগুলিতে বাস্তুহারা বা উদ্বাস্তু মানুষের সংখ্যাও বেড়ে গিয়েছে।[৬] এটি বিত্তবানদের জীবনে তেমন প্রভাব ফেলেনা। [৭] ওয়েস্টার্ন ইউএসএ তে গবেষণা চালিয়ে দেখা যায় একটি ভয়ঙ্কর দাবানলে নিম্নবিত্ত মানুষেরা বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল বিত্তবানদের চেয়ে। [৭]এর কারণ তাদের অতিরিক্ত সম্পদ থাকায় তাদের হাতে বিকল্প পথ ছিল।[৭] ফলে তারা নতুন জায়গায় গিয়ে আবার ঘরবাড়ি বানাতে পেরেছে,অনিশ্চয়তা কম ছিল তাদের জীবনে ।[৭] অন্য আরেকটি গবেষণায় দেখা যায় আপালেসিয়ান গোষ্ঠীতে পর্বতের উপরে কয়লা উত্তোলনে তারা ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়।[৮] যারা ওই এলাকার কাছাকাছি ছিল তারাই বেশি আক্রান্ত ছিল,দূরে অবস্থানকারীরা এর প্রভাব তেমন টের পায়নি। [৮]

১৫ বছর ধরে চলা বিভিন্ন গবেষণায় দেখা যায় সোলাস্টালজিয়া কিভাবে মানুষকে আক্রান্ত করেছে এবং জলবায়ু পরিবর্তন দ্বারা কিভাবে তার পরিমাপ করা যায়।[৯]

গবেষণায় দেখা যায় জনগন সমন্বিতভাবে সোলাস্টালজিয়ার সাথে খাপ খাইয়ে নিতে পারে,যেমন অন্যান্য প্রাকৃতিক দুর্যোগে মানুষ একে অপরের সাথে কথা বলে এবং এতে তাদের অনুভব প্রশমিত হয় , কাজের গতি বাড়ে যা পরবর্তীতে সহনশীলতা এবং বৃদ্ধিতে সাহায্য করে । [১০]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Warsini, Sri; Mills, Jane; Usher, Kim (ফেব্রুয়ারি ২০১৪)। "Solastalgia: Living With the Environmental Damage Caused By Natural Disasters"। Prehospital and Disaster Medicine (ইংরেজি ভাষায়)। 29 (1): 87–90। আইএসএসএন 1049-023Xডিওআই:10.1017/S1049023X13009266পিএমআইডি 24438454 
  2. Albrecht, Glenn (২০০৭)। "Solastalgia: the distress caused by environmental change"। Australasian Psychiatry15: S95–S98। এসটুসিআইডি 22295900ডিওআই:10.1080/10398560701701288পিএমআইডি 18027145 
  3. Watts, Nick; Adger, W Neil; Agnolucci, Paolo; Blackstock, Jason; Byass, Peter; Cai, Wenjia; Chaytor, Sarah; Colbourn, Tim; Collins, Mat; Cooper, Adam; Cox, Peter M.; Depledge, Joanna; Drummond, Paul; Ekins, Paul; Galaz, Victor; Grace, Delia; Graham, Hilary; Grubb, Michael; Haines, Andy; Hamilton, Ian; Hunter, Alasdair; Jiang, Xujia; Li, Moxuan; Kelman, Ilan; Liang, Lu; Lott, Melissa; Lowe, Robert; Luo, Yong; Mace, Georgina; ও অন্যান্য (২০১৫-১১-০৭)। "Health and climate change: policy responses to protect public health"। The Lancet (ইংরেজি ভাষায়)। 386 (10006): 1861–1914। hdl:10871/20783অবাধে প্রবেশযোগ্যআইএসএসএন 0140-6736এসটুসিআইডি 205979317ডিওআই:10.1016/S0140-6736(15)60854-6পিএমআইডি 26111439 
  4. Albrecht, Glenn (ফেব্রুয়ারি ১, ২০০৭)। "Solastalgia: The Distress Caused by Environmental Change"। Australasian Psychiatry15: S95–S98। এসটুসিআইডি 22295900ডিওআই:10.1080/10398560701701288পিএমআইডি 18027145 
  5. Askland, Hedda Haugen; Bunn, Matthew (মে ২০১৮)। "Lived experiences of environmental change: Solastalgia, power and place"Emotion, Space and Society (ইংরেজি ভাষায়)। 27: 16–22। ডিওআই:10.1016/j.emospa.2018.02.003 
  6. Tschakert, Petra; Tutu, Raymond (২০১০)। Environment, Forced Migration and Social Vulnerability (ইংরেজি ভাষায়)। Springer, Berlin, Heidelberg। পৃষ্ঠা 57–69। আইএসবিএন 9783642124150ডিওআই:10.1007/978-3-642-12416-7_5 
  7. Eisenman, David; McCaffrey, Sarah; Donatello, Ian; Marshal, Grant (২০১৫-১২-০১)। "An Ecosystems and Vulnerable Populations Perspective on Solastalgia and Psychological Distress After a Wildfire"EcoHealth (ইংরেজি ভাষায়)। 12 (4): 602–610। আইএসএসএন 1612-9202এসটুসিআইডি 22223042ডিওআই:10.1007/s10393-015-1052-1পিএমআইডি 26302957 
  8. Hendryx, Michael; Innes-Wimsatt, Kestrel A. (২০১৩-০৯-০১)। "Increased Risk of Depression for People Living in Coal Mining Areas of Central Appalachia"। Ecopsychology5 (3): 179–187। ডিওআই:10.1089/eco.2013.0029 
  9. Galway, Lindsay P.; Beery, Thomas; Jones-Casey, Kelsey; Tasala, Kirsti (২০১৯-০৭-২৫)। "Mapping the Solastalgia Literature: A Scoping Review Study"International Journal of Environmental Research and Public Health (ইংরেজি ভাষায়)। 16 (15): 2662। আইএসএসএন 1660-4601ডিওআই:10.3390/ijerph16152662পিএমআইডি 31349659পিএমসি 6696016অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  10. Kieft, Jasmine and Bendell, Jem (2021) The responsibility of communicating difficult truths about climate influenced societal disruption and collapse: an introduction to psychological research. Institute for Leadership and Sustainability (IFLAS) Occasional Papers Volume 7. University of Cumbria, Ambleside, UK..(Unpublished)