সেঙ্গোল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
নতুন সংসদ ভবনে সেঙ্গোল

সেঙ্গোল, সেঙ্গল বা সেংগোল (তামিল: செங்கோல், প্রতিবর্ণী. সেঙ্গোল্, উচ্চারিত [sɛŋgoːl]) হল একটি ঐতিহাসিক সোনার রাজদণ্ড বা ধর্মদণ্ড।[১][২] এটি ব্রিটিশরাজ থেকে মুক্তি এবং স্বাধীন ভারতে ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রতীক হিসাবে স্বাধীন রাষ্ট্রের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহেরুর হাতে তুলে দেওয়া হয়েছিল।[১][৩]

সেঙ্গোল হল একটি ধর্মদণ্ড, যা "ঐশ্বরিক ও নৈতিক শাসন"-এর প্রতীক, এবং প্রাচীন তামিল গ্রন্থে উচ্চারিত হয়েছে। সেঙ্গোল হল কর্তৃত্ব ও সার্বভৌমত্বের প্রতীক, এবং এটি ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নেহেরুকে তার ভূমিকাকে স্বীকৃতি দেওয়ার উপায় হিসেবে প্রদান করা হয়েছিল।[১]

ব্যুৎপত্তি[সম্পাদনা]

সেঙ্গোল শব্দটি তামিল শব্দ "সেম্মৈ" থেকে এসেছে, যার অর্থ ‘ন্যায়’ বা 'ধার্মিকতা', এবং "কোল", যার অর্থ একটি 'লাঠি' বা 'যষ্টি'।[৪][৫]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

পটভূমি[সম্পাদনা]

ভারত ১৯৪৭ সালের ১৫ আগস্ট স্বাধীনতা লাভ করে। ইংরেজ শাসকগণ ভারতীয়দের কাছে শাসন ক্ষমতা হস্তান্তর করেছিল। ক্ষমতা হস্তান্তরের আগে নেহেরুর কাছে মাউন্টব্যাটনের জিজ্ঞাস্য ছিল, ভারত স্বাধীনতা অর্জন করলে ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রতীক কী হতে পারে।[১][৬] নেহেরু বিষয়টি নিয়ে দেশের শেষ গভর্নর জেনারেল সি. রাজাগোপালাচারীর সঙ্গে আলোচনা করেন। সি. রাজাগোপালাচারী তামিল পরিবারের সন্তান হওয়ায়, তিনি নেহেরুকে তামিলনাড়ুর রাজপরিবারের ঐতিহ্যের বিষয়ে বলেন, এবং জানান, প্রথা অনুযায়ী, রাজপরিবারের নতুন রাজার অভিষেকের সময় হাতে রাজদণ্ড তুলে দেওয়া হয়।[৭] এই প্রথার সূত্রপাত চোল রাজাদের শাসনকাল থেকে হয়েছিল।[১][৬][৮] রাজাগোপালাচারী নেহেরুকে ব্রিটিশদের হাত থেকে রাজদণ্ড নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন।[১][৬]

নির্মাণ ও হস্তান্তর[সম্পাদনা]

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নতুন সংসদ ভবনে সেঙ্গোল প্রতিষ্ঠা করছেন, ২৮ মে ২০২৩

নেহেরু ঐতিহাসিক রাজদণ্ডটি জোগাড় করার গুরুভার রাজাগোপালাচারীকেই প্রদান করেছিলেন। রাজাগোপালাচারী দায়িত্ব গ্রহণ করেছিলেন, এবং রাজদণ্ডটি তৈরির জন্য তামিলনাড়ুর মঠ ‘তিরুভাদুথুরাই আথিনাম’-এর সঙ্গে যোগাযোগ করেন। মঠের তৎকালীন গুরু রাজদণ্ড তৈরি করার দায়িত্ব গ্রহণ করেছিলেন। তিরুভাদুথুরাই আথিনাম মঠ আবার সেই রাজদণ্ড তৈরির দায়িত্ব তৎকালীন মাদ্রাজের এক প্রখ্যাত জহুরি ভুম্মিডি বঙ্গারু চেট্টির হাতে তুলে দিয়েছিল। বঙ্গারু সেই সোনার রাজদণ্ড তৈরি করেছিলেন।[৯][১০]

রাজদণ্ড সেঙ্গোল তৈরি করার পর বঙ্গারু সেই রাজদণ্ড মঠের কাছে হস্তান্তর করেন। মঠের এক প্রবীণ পুরোহিত রাজদণ্ডটি মাউন্টব্যাটনের হাতে তুলে দিয়েছিলেন। এর পর রাজদণ্ডটি মাউন্টব্যাটনের থেকে ফিরিয়ে আনা হয়েছিল। রাজদণ্ড সেঙ্গোলে গঙ্গাজল ছিটিয়ে ১৯৪৭ সালের ১৪ অগস্ট মধ্যরাতের মিনিট পনেরো আগে নেহেরুর হাতে তুলে দেওয়া হয়েছিল। নেহেরুর রাজদণ্ড গ্রহণ করার মুহূর্তের কথা মাথায় রেখে একটি বিশেষ গান রচনা করা হয়েছিল, এবং নির্দিষ্ট সময়ে গানটি পরিবেশিত হয়েছিল।[১][৯][১০]

সেঙ্গোল প্রয়াগরাজের একটি জাদুঘরে সংরক্ষিত ছিল।[১১] সেখান থেকে এটিকে ২০২৩ সালের ২৮ মে নতুন সংসদ ভবনে স্থানান্তর করা হয়েছে।[১][৯] ২৮ মে ২০২৩-এ নতুন সংসদ ভবনের উদ্বোধনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নতুন সংসদ ভবনে ঐতিহাসিক ও পবিত্র সেঙ্গোল প্রতিষ্ঠা করেছেন।[৭][১০][১২][১৩]

বৈশিষ্ট্য[সম্পাদনা]

সেঙ্গোলটি খাঁটি সোনা দিয়ে তৈরি, এবং প্রায় ১৮ ইঞ্চি লম্বা। এটি জটিল নকশা দিয়ে সজ্জিত এবং উপরে একটি নন্দীর (ষাঁড়) মূর্তি রয়েছে। হিন্দুধর্মে নন্দী একটি পবিত্র প্রাণী, এবং একে শক্তি ও শক্তির প্রতীক হিসেবে দেখা হয়। সেঙ্গোল ভারতের স্বাধীনতা এবং সমৃদ্ধ ইতিহাস ও সংস্কৃতির প্রতীক। এটি হল স্বাধীনতা অর্জনের জন্য যে ত্যাগ স্বীকার করা হয়েছিল এবং একটি স্বাধীন জাতি হওয়ার সঙ্গে যে দায়িত্বটি আসে তার একটি স্মারক। সেঙ্গল সমস্ত ভারতীয়দের জন্য গর্বের উৎস এবং দেশের উজ্জ্বল ভবিষ্যতের স্মারক।[১৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "নতুন সংসদ ভবনে থাকছে স্বাধীনতার অন্যতম প্রতীক 'সেঙ্গল'! সোনার রাজদণ্ডে লুকিয়ে কোন ইতিহাস?"Anandabazar। নতুন দিল্লি: আনন্দবাজার পত্রিকা। ২৪ মে ২০২৩। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০২৩ 
  2. Shemin Joy (২৪ মে ২০২৩)। "What is Sengol? Facts about historic sceptre in new Parliament"www.deccanherald.com (ইংরেজি ভাষায়)। নতুন দিল্লি: Deccan Herald। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০২৩ 
  3. "Sengol: The golden symbol of Independence that found its way into the new parliament building"economictimes.indiatimes.com (ইংরেজি ভাষায়)। দ্য ইকোনমিক টাইমস। ২৫ মে ২০২৩। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০২৩ 
  4. "'Sengol' to be installed in the new parliament: Significance of the sceptre, first given to Nehru"The Indian Express (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২৩-০৫-২৪। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-০৫-২৫ 
  5. "Inspired by the Cholas, handed over to Nehru: historic 'Sengol' to be installed in new Parliament building"The Hindu (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২৩-০৫-২৪। আইএসএসএন 0971-751X। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-০৫-২৫ 
  6. Abhijit Chowdhury (২৫ মে ২০২৩)। "এবার থেকে সংসদে স্পিকারের আসনের পাশে থাকবে 'সেঙ্গোল', ৫ ফুট উঁচু সোনার এই রাজদণ্ডের ইতিহাস জানেন?"bangla.hindustantimes.com। Hindustan Times - Bangla। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০২৩ 
  7. Poulomi Saha (২৪ মে ২০২৩)। "Sacred ritual steeped in Tamil culture: How PM Modi will install Sengol in new Parliament building"www.indiatoday.in (ইংরেজি ভাষায়)। New Delhi: India Today। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০২৩ 
  8. "Inspired by the Cholas, handed over to Nehru: historic 'Sengol' to be installed in new Parliament building"www.thehindu.com (ইংরেজি ভাষায়)। The Hindu। ২৪ মে ২০২৩। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০২৩ 
  9. Sreeparna Chakrabarty (২৪ মে ২০২৩)। "How a letter to PMO set off a search for the Sengol"www.thehindu.com (ইংরেজি ভাষায়)। New Delhi: The Hindu। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০২৩ 
  10. "'Sengol' to be installed in the new parliament: Significance of the sceptre, first given to Nehru"www.indianexpress.com (ইংরেজি ভাষায়)। New Delhi: The Indian Express। ২৫ মে ২০২৩। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০২৩ 
  11. Pramod Madhav (২৫ মে ২০২৩)। "Kept in Allahabad museum among Nehru's items, how Sengol returned to limelight"www.indiatoday.in (ইংরেজি ভাষায়)। Chennai: India Today। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০২৩ 
  12. Lingamgunta Nirmitha Rao (২৪ মে ২০২৩)। "'Sengol' (sceptre) to be installed by PM Modi in new Parliament on May 28: All you need to know"www.hindustantimes.com (ইংরেজি ভাষায়)। Hindustan Times। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০২৩ 
  13. "At the inauguration of the new Parliament House, PM Modi will establish the historical and sacred "Sengol" in the Parliament House."pib.gov.in (ইংরেজি ভাষায়)। PIB Delhi। ২৪ মে ২০২৩। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০২৩ 
  14. "New Parliament building opening | How a letter to PMO set off a search for the Sengol"The Hindu (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২৩-০৫-২৪। আইএসএসএন 0971-751X। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-০৫-২৫