সিডনি শেলডন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

টেমপ্লেট:Use mdy dates

সিডনি শেলডন
জীবিকা ঔপন্যাসিক
জাতীয়তা আমেরিকান
সময়কাল ১৯৬৯-২০০৭
ধরন অপরাধ কথাসাহিত্য,
থ্রিলার
ওয়েবসাইট
http://www.hachettebookgroupusa.com/features/sidneysheldon/meet_ss.html


সিডনি শেলডন (জন্ম: ১১ই ফেব্রুয়ারি, ১৯১৭-মৃত্যু: ৩০শে জানুয়ারি, ২০০৭) একজন অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ড বিজয়ী লেখক ছিলেন। তার ২০ বছর টিভিতে কাজ করার সময়কালে তিনি দ্য প্যাটি ডিউক শো (১৯৬৩–৬৬), এ ড্রিম অফ জেনি (১৯৬৫–৭০) এবং হার্ট টু হার্ট (১৯৭৯–৮৪) তৈরি করেছেন, কিন্তু তিনি বিখ্যাত হন যখন তিনি ৫০ বছর বয়স পূর্ণ করেন এবং তিনি সেরা-বিক্রয়কৃত উপন্যাস যেমন মাস্টার অফ দ্য গেম (১৯৮২), দ্যা আদার সাইড অফ দ্য মিডনাইট (১৯৭৩) এবং রেজ অফ অ্যাঞ্জেলস (১৯৮০) লিখতে শুরু করেন। তিনি হলেন সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ ষষ্ঠ লেখক বিক্রেতা।

প্রথম জীবন[সম্পাদনা]

সিডনি শিকাগোর, ইলিনয়ের সিডনে স্কেচটেলে জন্ম গ্রহণ করেন। তার পিতা-মাতা ছিলেন, রাশিয়ান ইহুদীর বংশবৃতান্ত, একটি গহনার দোকানের ম্যানেজার ছিলেন। দশ বছর বয়সে সিডনি প্রথম আয় করেন। তিনি একটি কবিতার জন্য ৫ ডলার পান। ডিপ্রেশনের মধ্যে, তিনি ভেটেনারি কাজ করতেন। ডেভার ইস্ট হাই স্কুল থেকে গ্রাজুয়েট হওয়ার পর, তিনি নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটিতে ভর্তি হন। তিনি তখন নাট্যদলে ছোট ছোট নাটক করতেন। তিনি ১৮টি থ্রিলার উপন্যাসের লেখক (যা ৩০০ মিলিয়ন কপির বেশি বিক্রিত)। তিনি দুশোটির বেশি টেলিভিশন স্ক্রিপ্ট লেখেন। তিনি ২৫টি বড় সিনেমা এবং ৬টি নাটক তৈরি করেন।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

১৯৩৭ সালে, শেলডন হলিউডে আসেন। এখানে তিনি স্ক্রিপ্ট রিভিউ করেন[১][২] শেলডন দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় সেনাবাহিনীর যুদ্ধ প্রশিক্ষণ শিবিরেএকজন পাইলট হিসেবে যোগ দেন। তিনি কোন যুদ্ধ দেখার আগে তার শিবির ডিসবেন্ডেড ছিলো. বেসামরিক জীবনে আসার পর তিনি নিউ ইয়র্কে আসেন। এখানে তিনি লেখালেখি শুরু করেন।তিনিব্রডওয়ের জন্য মিউজিকাল লিখতেন। তিনি এ সময় একজন লাভবান লেখক হিসেবে আয় করেন। যেমন এক সময় তার ব্রডওয়েতে তিনটি মিউজিকাল ছিল,দ্য মেরি উইন্ডো, জ্যাকপট, এবং ড্রিম উইথ মিউজিক[৩] তার হলিউডে প্রথম কাজ ছিল দি বাচেলর অ্যান্ড দি ববি সক্সার। ১৯৪৭ সালে, এটা অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ড জয় করে।

গ্রন্থপঞ্জি[সম্পাদনা]

উপন্যাস[সম্পাদনা]

আত্মজীবনী[সম্পাদনা]

বাংলা অনুবাদ[সম্পাদনা]

বাংলায় সিডনি শেলডনের বই পাওয়া যায়। অনিশ দাস অপু তাঁর বই খুব ভালো অনুবাদ করেন।

ব্রডঅয়ে নাটক[সম্পাদনা]

সিনেমা[সম্পাদনা]

টেলিভিশন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]