সামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজ
সামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজ.jpeg
ধরনবেসরকারি কলেজ
স্থাপিত১৯৮৯
অধ্যক্ষড. মাহবুবুর রহমান মোল্লা [১]
ঠিকানা
ডেমরা, যাত্রাবাড়ী, কদমতলী
, ,
শিক্ষাঙ্গনশহর
সংক্ষিপ্ত নামসা.হ.খা.সু.ক
অধিভুক্তিমাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, ঢাকা [২]
ওয়েবসাইটwww.shksc.edu.bd

সামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজ ডেমরা ঢাকা বাংলাদেশের একটি বেসরকারি কলেজ । এই কলেজটি "সামসুল হক খান কলেজ" নামে পরিচিত। আধুনিক সুযোগ সুবিধা সহ শ্রেণীকক্ষ, গবেষণাগার, গ্রন্থাগার এবং সাধারণ কক্ষ রয়েছে। কলেজ রাজনৈতিক অস্থিরতা থেকে মুক্ত ফলে কলেজটি দেশের অন্যতম কলেজের স্বীকৃতি পেয়েছে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

সামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজ ঢাকা শহর সংলগ্ন ডেমরার একটি শিক্ষাঙ্গন। বাংলাদেশের মানচিত্রে এই প্রতিষ্ঠানটির অবস্থান হয়তো একটি বিন্দুর মত। হোক বিন্দু, বিন্দুও সিন্ধু হয় যদি তার থাকে গতি। একটি মহৎ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান একটি শিক্ষণীয় ইতিহাস, তা প্রভাবিত করে প্রতিবেশ, সমাজ, স্বদেশ, নির্মান করে সুস্থ, শৃঙ্খল সাংস্কৃতিক পরিমন্ডল। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে কোন বিশেষ স্থানের পরিবেশ। তার সদম্ভ পথচলা অনুপ্রাণিত করে সে অঞ্চলের সচেতন শ্রেণিকে হীরকোজ্জ্বল স্বপ্ন দেখতে। তাই কোন বড় মাপের বিদ্যাঙ্গনের ভৌগোলিক মূল্য নয়, গ্রাহ্য তার ঐতিহাসিক ও সাংস্কৃতিক মূল্য। কোন বিশেষ প্রতিষ্ঠানের ইতিহাস মানে কোন সমাজের হয়ে ওঠার ইতিহাস, তারুণ্য ও বুদ্ধি প্রকৌশল সৃষ্টির ইতিহাস। [৩]

দুইযুগ পেরোনো সামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজ সৃষ্টি,প্রজ্ঞায় বেশ প্রাগসর । ডেমরা অঞ্চল দীর্ঘকাল ভাগ্যবিড়ম্বিত ছিল। তবে অর্থ প্রাচুর্যে আজ সে সোনায় সোহাগা হয়েছে এমনও নয়। কিন্ত শিক্ষা সংস্কৃতির পরিবর্তন যে এসেছে সে বিষয়ে সন্দেহ নেই। স্বাধীনতাউত্তরকালে ডেমরার এটাই সবেচেয় বড় প্রাপ্তি। শিক্ষাগত পরিবর্তনের মূল ধারায় বর্তমান প্রতিষ্ঠানেও সক্রিয় অবস্থান ছিলো। ডেমরা সম্পর্কে জনশ্রুতি - ডেমরা অখ্যাত, অনুন্নত। কল কারখানার শ্রমিকদের বসবাস এখানে।প্রত্যাশা ও প্রচেষ্টার মাধ্যমে শিক্ষার অভাব দূর করার জন্য গুচ্ছখানেক প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠলেও ডেমরাবাসী হতাশামুক্ত হয়নি। তারই ফলশ্রুতিতে সামসুল হক খান জুনিয়র হাই স্কুলের গোড়াপত্তন হয়। মাতুয়াইলের বিশিষ্ট বিদ্যোৎসাহী ও জনহিতৈষী ব্যক্তিত্ব আলহাজ্ব সামসুল হক খান এই অক্ষয় অবদান রাখেন। সমাজকে বদলে দেবার বাসনা যার তীব্র এমন অবদান তার পক্ষেই রাখা সম্ভব। কাদা পানির ধান খেতে ১৯৮৯ সালে ছোট একটি টিনশেডের ঘরে ডজন খানেক শিক্ষক হাতে নিয়ে সামসুল হক খান জুনিয়র হাই স্কুল বিদ্যাশিক্ষার দ্বার উন্মুক্ত করে। এই স্কুলের শিক্ষার্থী সংখ্যা ছিলো অনধিক একশত। এ প্রসঙ্গে স্মরণ করা যেতে পারে বাইশ বছর মানে দুইযুগ আগের এই এলাকার জনজীবনের অর্থনৈতিক অবস্থার কথা। অর্থাৎ একটি অসচ্ছল লোকালয়ে এই স্কুলটি আত্ম প্রকাশ কের। আঁতুড় ঘরেই যার জীবনাবসানের সম্ভাবনা ছিলো নিরানব্বই ভাগ। কিন্ত সে মরেনি। [৪]

প্রতিষ্ঠা অগ্রযাত্রা[সম্পাদনা]

প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী সংখ্যা বাড়ছে, সেই সাথে বাড়ছে প্রতিষ্ঠানের পরিধি। এই চত্বরে নির্মিত হচ্ছে বিরাট কলেবরের বহুতল ভবন। প্রতিষ্ঠানকে সম্প্রসারিত করতে গিয়ে ২০১৪ সালে খোলা হয়েছে ইংরেজি মাধ্যম । মাধ্যম ইংরেজি হওয়া সত্ত্বেও এ শাখাটি অভিভাবক মহলে আশাব্যঞ্জক সাড়া জাগিয়েছে।

অনুষদ সমূহ[সম্পাদনা]

নিম্ন মাধ্যমিক

মাধ্যমিক

  • মানবিক
  • ব্যবসায়
  • বিজ্ঞান

উচ্চ মাধ্যমিক

  • মানবিক
  • ব্যবসায়
  • বিজ্ঞান

সহশিক্ষাকার্যক্রম[সম্পাদনা]

বিতর্ক, স্কাউটিং,[৫] বিজ্ঞান চর্চা, নৃত্য সংগীত, চিত্রকলা, সাহিত্য চর্চা, ইংরেজি ভাষা চর্চা এসব দিকেও প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা বেশ এগিয়ে রয়েছে।

অবস্থান[সম্পাদনা]

সামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজ
ডেমরা, যাত্রাবাড়ী,
কদমতলী, ঢাকা,
বাংলাদেশ

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান হিসেবে শামসুল হক খান স্কুল অ্যান্ড কলেজ নির্বাচিত | ড. মাহবুবুর রহমান মোল্লা শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান প্রধান কালের কণ্ঠ অনলাইন | ২৭ আগস্ট, ২০১৭ | ১৯:৫৩
  2. সামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজ সারা দেশে নবম দৈনিক সংগ্রাম | রবিবার | ১৮ মে ২০১৪ | প্রিন্ট সংস্করণ
  3. ভিন্নধারার সামসুল খান স্কুল এন্ড কলেজ দৈনিক ভোরের কাগজ | বৃহস্পতিবার | ২৬ মে ২০১৬
  4. প্রতিষ্ঠানের ইতিহাস ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২২ নভেম্বর ২০১৮ তারিখে সামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজ এর ওয়েবসাইট
  5. সামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজ জাতীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ স্কাউট গ্রুপ দৈনিক ইত্তেফাক | ২১ মে, ২০১৮ ইং

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]