সান্দ্রা পার্কোভিচ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সান্দ্রা পার্কোভিচ
২০১০ সালে জাগরেবের হাঞ্জেকোভিচ মেমোরিয়ালে সান্দ্রা
ব্যক্তিগত তথ্য
জন্ম (১৯৯০-০৬-২১) ২১ জুন ১৯৯০ (বয়স ২৫)
জাগরেব, ক্রোয়েশিয়া
বাসস্থান জাগরেব, ক্রোয়েশিয়া
উচ্চতা ১.৮৩ মি (৬ ফু ০ ইঞ্চি)[১]
ওজন ৮৫ কেজি (১৮৭ পা) (২০১২)[২]
ক্রীড়া
ক্রীড়া ট্র্যাক এন্ড ফিল্ড
ঘটনাসমূহ চাকতি নিক্ষেপ
ক্লাব দিনামো-রিনজেভাক[১]
কোচ এদিস এলকাসেভিচ
সাফল্য ও খেতাব
সর্বোচ্চ বিশ্ব স্থান ২য় (২০১০, ২০১১)[৩][৪]
ব্যক্তিগত সেরা চাকতি নিক্ষেপ: ৬৯.১১ (২০১২, এনআর)
গোলক নিক্ষেপ: ১৬.৪০ (২০১১, এনআর)

সান্দ্রা পার্কোভিচ (ইংরেজি: Sandra Perković; জন্ম: ২১ জুন, ১৯৯০) জাগরেবে জন্মগ্রহণকারী ক্রোয়েশিয়ার বিশিষ্ট চাকতি নিক্ষেপকারী। বর্তমানে তিনি ইউরোপীয়, বিশ্ব ও অলিম্পিক চ্যাম্পিয়ন। তার ব্যক্তিগত সেরা ও ক্রোয়েশিয়ার জাতীয় রেকর্ড হচ্ছে ৬৯.১১ মিটার। এ রেকর্ডটি তিনি লন্ডনে অনুষ্ঠিত ২০১২ সালের গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে গড়েন।[৫]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

প্রাথমিক শ্রেণীর ২য় গ্রেডে অধ্যয়নকালীন পার্কোভিচ অ্যাথলেটিক্সের পাশাপাশি বাস্কেটবলভলিবল খেলেন। ৬ষ্ঠ গ্রেডে অ্যাথলেটিক্সকেই প্রাধান্য দিয়ে গোলক নিক্ষেপ ও চাকতি নিক্ষেপে মনোনিবেশ ঘটান। ২০০১ সালে দিনামো-রিনজেভাক অ্যাথলেটিক্স ক্লাবে যোগ দেন তিনি। ২০০৪ সাল থেকে তার কোচের দায়িত্ব নেন সাবেক অলিম্পিক গোলক নিক্ষেপকারী ইভান ইভানচিচ। তিনি চাকতি নিক্ষেপে তার প্রতিভা লক্ষ্য করেন। নতুন কোচের পরিচালনার প্রথম বছরেই চাকতি নিক্ষেপে তার সেরা ৩২ মিটার থেকে ৫০ মিটারেরও বেশী দূরত্ব অতিক্রম করেন।[৬]

ক্রীড়া জীবন[সম্পাদনা]

২০০৬ সালে তিনি প্রথমবারের মতো চাকতিতে সাফল্য লাভ করেন। এ বছরের বিশ্ব জুনিয়র চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ব্যর্থ হলেও নিয়মিতভাবে পরবর্তী আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতাগুলোয় রৌপ্যপদক লাভ করেন; তন্মধ্যে ২০০৭ সালের ইউরোপীয় জুনিয়র চ্যাম্পিয়নশিপ উল্লেখযোগ্য। ২০০৮ সালের ওয়ার্ল্ড জুনিয়র চ্যাম্পিয়নশিপে লাভ করেন ব্রোঞ্জপদক। ২০০৮ সালে জুনিয়রদের বৈশ্বিক তালিকায় ৫৫.৮৯ মিটার নিয়ে ৫ম স্থান দখল করেন।[৭] ২০০৯ সালে ইউরোপীয় জুনিয়র চ্যাম্পিয়নশিপে নতুন জাতীয় রেকর্ড গড়ার মাধ্যমে স্বর্ণপদক জয় করেন। এর একমাস পর বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে সর্বকনিষ্ঠ চাকতি নিক্ষেপকারী হিসেবে ফাইনালে উন্নীত হন।

২০১০ সালের ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপের ন্যায় বড়দের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের মাধ্যমে স্বর্ণ জয় করেন। নিষিদ্ধ মাদক গ্রহণের দায়ে ২০১১ মৌসুমের অধিকাংশ সময় প্রতিযোগিতার বাইরে থাকেন। ২০১২ সালে পুরো শক্তি নিয়ে ফিরে এসে ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা অক্ষুণ্ন রাখেন সান্দ্রা।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ১.০ ১.১ Mikolčević, Sanja (১৮ মে ২০১০)। "'Dobro da nemam dečka, nemam vremena i za vezu'"Jutarnji list (Croatian ভাষায়)। সংগৃহীত ২ আগস্ট ২০১০ 
  2. Hrga, T. (৯ ফেব্রুয়ারি ২০১২)। "'Zaista imam 85 kilograma, a nemam celulita!'"sportski.net.hr (Croatian ভাষায়)। সংগৃহীত ১৪ জুলাই ২০১২ 
  3. "Top Lists: Outdoor/Senior/2010/Women"iaaf.orgInternational Association of Athletics Federations। ২০ জানুয়ারি ২০১১। সংগৃহীত ১৮ মার্চ ২০১২ 
  4. "Top Lists: Outdoor/Senior/2011/Women"iaaf.orgInternational Association of Athletics Federations। ১২ জানুয়ারি ২০১২। সংগৃহীত ১৮ মার্চ ২০১২ 
  5. "Women's Discus Throw"London2012.com। ৪ আগস্ট ২০১২। সংগৃহীত ৪ আগস্ট ২০১২ 
  6. Hebar, Srđan; Mrvec, Damir (29 July 2010). "Sandra je već dva puta bila na rubu smrti, a danas živi san". Večernji list (in Croatian). Retrieved 3 August 2010.
  7. "Top Lists: Outdoor/Junior/2008/Women". iaaf.org. International Association of Athletics Federations. 16 February 2009. Retrieved 13 July 2012.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

পুরস্কার
পূর্বসূরী
নরওয়ে ক্যারোলিন জারকেলি গ্রোভদাল
বর্ষসেরা রাইজিং স্টার বিজয়ী ইউরোপীয় মহিলা ক্রীড়াবিদ
২০১০
উত্তরসূরী
যুক্তরাজ্য যোদাই উইলিয়ামস

টেমপ্লেট:Footer Olympic Champions Discus Throw Women টেমপ্লেট:Footer World Champions Discus Throw Women টেমপ্লেট:Footer World Champions Discus Throw Women টেমপ্লেট:Footer European Champions Discus Throw Women টেমপ্লেট:Footer Mediterranean Champions Discus Women টেমপ্লেট:Croatian Athlete of the Year (women)