সাউথ এশিয়ান ফেডারেশন অব অ্যাকাউন্ট্যান্টস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সাউথ এশিয়ান ফেডারেশন অব অ্যাকাউন্ট্যান্টস
অবস্থাসার্কভুক্ত
সভাপতিএ এস এম নাইম
উপ-সভাপতিসুবোধ কুমার কর্ন (Dr.) Suvod Kumar Karn
ওয়েবসাইটwww.esafa.org

সাউথ এশিয়ান ফেডারেশন অব অ্যাকাউন্ট্যান্টস (ইংরেজি: South Asian Federation of Accountants) বা সংক্ষেপে সাফা (SAFA) দক্ষিণ এশীয় আঞ্চলিক সহযোগিতা সংস্থা (সার্ক) এর ৮টি দেশের একটি পেশাদারী হিসাববিদ সংস্থা। সার্কভুক্ত দেশসমূহের জনস্বার্থ ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য এই সংগঠন কাজ করে থাকে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

সাউথ এশিয়ান ফেডারেশন অব অ্যাকাউন্ট্যান্টস সংগঠনটি ১৯৮৪ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। এটি সার্কের অন্তর্গত একটি প্রতিষ্ঠান। এর উদ্দেশ্য নতুন কোন পদ্ধতি বা মানগত পরিবর্তন তৈরী করা নয়, বরং পারস্পরিক সম্পর্ক উন্নয়নের মাধ্যমে সাধারণ জ্ঞান বৃদ্ধি ও আন্তর্জাতিক হিসাবরক্ষণ আদর্শের অনুরূপ মান বজায় রাখা।[১][২] আন্তর্জাতিক এবং অঞ্চলভিত্তিক পারস্পরিক সহযোগিতা ও হিসাবরক্ষণ পেশার মান উন্নয়নের লক্ষ্যে ভারত, পাকিস্তান, নেপাল,  শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশের চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টস ইনস্টিটিউটগুলিকে অর্থাৎ রাজকীয় সনদপ্রাপ্ত হিসাববিদদের সংস্থাগুলিকে নিয়েই এটি প্রতিষ্ঠা করা হয়। বর্তমানে ভুটান, আফগানিস্তান এবং মালদ্বীপ সাফা'র পর্যবেক্ষক। সাউথ এশিয়ান ফেডারেশন অব অ্যাকাউন্ট্যান্টস সংগঠনটি দক্ষিণ এশিয়ার হিসাবরক্ষণ পেশার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোর একটি ফোরাম, যার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যে হলো শিক্ষা, প্রশিক্ষণ, কৌশলগত এবং নৈতিক মানদণ্ডের ভিত্তিতে হিসাবরক্ষণ পেশার উৎকর্ষ সাধন করা।[৩]

সাউথ এশিয়ান ফেডারেশন অব অ্যাকাউন্ট্যান্টস এর সাবেক সভাপতি ছিলেন বাংলাদেশের সাবেক উপপ্রধানমন্ত্রী জামাল উদ্দিন আহমেদ[৪] তিনি ২ বার এর সভাপতি হয়েছিলেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Muhammad Jahangir Ali, Kamran Ahmed and Darren Henry। "Harmonization of Accounting Measurement Practices in South Asia"। Advances in International Accounting। পৃষ্ঠা 25-58। 
  2. K.R. Sharma (২০০৪)। "Accounting Education in South Asia"। Ashok Kumar Mittal Concept Publishing Company। 
  3. "সফলতায় সাফা সম্মেলন" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০১-০৩ 
  4. "Former deputy prime minister Jamal Uddin Ahmad dies"Bdnews24.com। ২০১৫-০১-১৪। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০১-০৪