শিশুশ্রমের বিরুদ্ধে বিশ্ব দিবস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
শিশুশ্রমের বিরুদ্ধে বিশ্ব দিবস
The Earth seen from Apollo 17.jpg
অন্য নামডব্লিউডিএসিএল
পালনকারীজাতিসংঘের সদস্যরাষ্ট্রসমূহ
উপাসনার রঙসবুজ
পালনজাতিসংঘ, আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা
তারিখ১২ জুন
পরবর্তী আয়োজন১২ জুন ২০২২
সংঘটনবার্ষিক

শিশুশ্রমের বিরুদ্ধে বিশ্ব দিবস একটি আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (আইএলও)-অনুমোদিত ছুটি, যা প্রথম ২০০২ সালে চালু হয়েছিল [১] লক্ষ্য ছিল শিশুশ্রম রোধে সচেতনতা ও সক্রিয়তা বৃদ্ধি করা। এটি আইএলও কনভেনশন নং ১৩৮ [২] অনুমোদনের মাধ্যমে চাকরির জন্য সর্বনিম্ন বয়স এবং আইএলও কনভেনশন নং ১৮২ [৩] মাধ্যমে শিশুশ্রমের সবচেয়ে খারাপ ধরন দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়েছিল।

শিশুশ্রমের বিরুদ্ধে বিশ্ব দিবস, যা প্রতিবছর ১২ জুন,[৪] শিশুশ্রমের বিরুদ্ধে বিশ্বব্যাপী আন্দোলনকে উৎসাহিত করার লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত ও পালিত হয়। [৫]

পটভূমি[সম্পাদনা]

আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (আইএলও) মতে, বিশ্বব্যাপী প্রায় ১৫২ মিলিয়ন শিশু শিশুশ্রমে নিয়োজিত, যাদের মধ্যে ৭২ মিলিয়ন বিপজ্জনক কাজে রয়েছে। ২০০০ সাল থেকে শিশুশ্রমে শিশুর সংখ্যা ৪ মিলিয়ন হ্রাস পেয়েছে, সাম্প্রতিক বছরগুলিতে এই হ্রাসের হার দুই-তৃতীয়াংশ।

আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (আইএলও), জাতিসংঘের সংস্থা যা কাজের জগতকে নিয়ন্ত্রণ করে, শিশুশ্রমের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের প্রচেষ্টায় সকলের মনোযোগ আনতে এবং সকলের অংশগ্রহনের জন্য ২০০২ সালে শিশুশ্রমের বিরুদ্ধে বিশ্ব দিবস চালু করে। এই দিনটি সরকার, স্থানীয় কর্তৃপক্ষ, সুশীল সমাজ এবং আন্তর্জাতিক, শ্রমিক এবং নিয়োগকারী সংস্থাগুলিকে একত্রিত করে শিশুশ্রমের সমস্যা চিহ্নিত করে এবং শিশুশ্রমিকদের সাহায্য করার জন্য নির্দেশিকা নির্ধারণ করে। [৬]

আইএলও এর তথ্য অনুসারে, সারা বিশ্বে লক্ষ লক্ষ মেয়ে এবং ছেলে এমন কাজে জড়িত যা তাদের পর্যাপ্ত শিক্ষা, স্বাস্থ্য, অবসর এবং মৌলিক স্বাধীনতা থেকে বঞ্চিত করে, এভাবে তাদের অধিকার লঙ্ঘিত হয়। এই শিশুদের মধ্যে, অর্ধেকেরও বেশি শিশুশ্রমের নিকৃষ্ট রূপের মুখোমুখি হয়। শিশুশ্রমের এই নিকৃষ্ট রূপগুলির মধ্যে রয়েছে বিপজ্জনক পরিবেশে কাজ, দাসত্ব, বা অন্য ধরনের জোরপূর্বক শ্রম, মাদক পাচার এবং পতিতাবৃত্তির মতো অবৈধ কার্যকলাপ, পাশাপাশি সশস্ত্র সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়াও রয়েছে। [৭]

শিশুশ্রমের বিরুদ্ধে বিশ্ব দিবসের থিম ২০২০ জাতিসংঘের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট অনুসারে, শিশুশ্রমের বিরুদ্ধে বিশ্ব দিবস ২০২০ শিশুশ্রমের উপর সংকটের প্রভাবকে কেন্দ্র করে। কোভিড -১৯ মহামারী এবং পরবর্তী অর্থনৈতিক মন্দা এবং শ্রম বাজারের ধাক্কা অনেকের জীবন ও জীবিকার উপর ব্যাপক প্রভাব ফেলছে। এই সংকট লক্ষ লক্ষ দুর্বল শিশুকে শিশুশ্রমের দিকে ঠেলে দিতে পারে।

তাৎপর্য[সম্পাদনা]

শিশুশ্রমের বিরুদ্ধে বিশ্ব দিবসের তাৎপর্য হলো শিশুশ্রমের সমস্যার দিকে মনোযোগ দেওয়া এবং তা নির্মূলের উপায় খুঁজে বের করা। [৮] সারা বিশ্বে শিশুশ্রমের জন্য বাধ্য করা শিশুদের দ্বারা সৃষ্ট ক্ষতিকর মানসিক ও শারীরিক সমস্যা সম্পর্কে সচেতনতা ছড়িয়ে দিতে বিশ্বের বিভিন্ন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সংস্থা ও সংগঠন কর্তৃক দিনটির গুরুত্ব ও তাপর্য তুলে ধরে বিভিন্ন সভা ও সিম্পোজিয়ামের আয়োজন করা হয়। [৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. [১] ILO news, Published 5 June 2002, Retrieved 14 January 2020
  2. Text of ILO Convention 138
  3. "Text of ILO Convention 182" 
  4. "World Day Against Child Labour 2021: Theme, History, Quotes Significance"S A NEWS (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-০৬-১২। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৬-১২ 
  5. "World Day Against Child Labour 2020: Protecting children from labour in times of COVID-19 pandemic"www.timesnownews.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৬-১২ 
  6. Nations, United। "World Day Against Child Labour"United Nations (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৬-১২ 
  7. Team, BS Web (২০২০-০৬-১২)। "World Day against Child Labour 2020: Theme, importance in times of Covid-19"Business Standard India। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৬-১২ 
  8. "World Day against Child Labour 2020: Significance, Theme, Steps taken to eradicate the social evil"Hindustan Times (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-০৬-১২। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৬-১২ 
  9. "World Day Against Child Labour 2020: History, significance & this year's theme"DNA India (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-০৬-১২। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৬-১২ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]